নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বুধবার ১১ জানুয়ারি ২০১৭, ২৮ পৌষ ১৪২৩, ১২ রবিউস সানি ১৪৩৮
সাংসদ লিটন হত্যাকারীদের খুঁজে বের করা হবে : আইজিপি
গাইবান্ধা/সুন্দরগঞ্জ প্রতিনিধি
বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক বলেছেন, দেশের সব সন্ত্রাসী ও জঙ্গি হামলার ঘটনায় অপরাধীদের খুঁজে বের করা হয়েছে। তাদের আইনের আওতায় আনা হযেছে। সাংসদ মনজুরুল হত্যাকারীদেরও খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে। আমি বাংলাদেশের পুলিশ প্রধান হিসেবে আপনাদের কথা দিয়ে যাচ্ছি সাংসদের হত্যকারী যারাই হোক তারা পার পাবে না। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গা আব্দুল হক ডিগ্রি কলেজ মাঠে আয়োজিত আইনশৃঙ্খলাবিষয়ক এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন। মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন গাইবান্ধার পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন, রংপুর রেঞ্জের বিভাগীয় পুলিশ কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক, গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক মো. আব্দুস সামাদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিক, নিহত সাংসদ লিটনের বড় বোন আফরোজা বানু ও স্ত্রী খুরশিদ জাহান এবং জেলা কমিউনিটি পুলিশিংয়ের সভাপতি এম আবদুস সালাম।

গতকাল বিকেল সাড়ে চারটায় পুলিশের মহাপরিদর্শক রংপুর থেকে বামনডাঙ্গায় আসেন। মতবিনিময় সভা শেষে তিনি সাংসদের বাড়ি সাহাবাজ গ্রামে যান। সেখানে তিনি সাংসদের কবর জিয়ারত ও পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলেন ও সমবেদনা জানান।

শহীদুল হক বলেন, একজন জনপ্রতিনিধি, মহান জাতীয় সংসদের একজন সদস্য, তাকে হত্যা করা হয়েছে, এটা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায়না। আমরা অতীতে কি দেখি, ২০১৩ থেকে যতগুলো সন্ত্রাসী কর্মকা- ঘটেছে জঙ্গিরাই করেছে, আপনারা পত্র-পত্রিকা মিডিয়ার মাধ্যমে দেখেছেন, আমরা প্রতিটি ঘটনা বিশ্লেষণ করেছি, অপরাধীদের শনাক্ত করেছি, তাদের গ্রেফতার করেছি, অস্ত্র-বোমা উদ্ধার হয়েছে, পুলিশের সাথে এনকাউন্টার হয়ে মারা গেছে, পুলিশের অপারেশনে অনেক মারা গেছে। সাংসদ লিটনকে যারা হত্যা করেছে অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে তারা হত্যা করেছে।

সাংসদ লিটনের হত্যাকারীদের খুঁজে বের করার জন্য পুলিশের প্রতিটি ইউনিট কাজ করছে। কোনো অপরাধী রেহাই পাবে না। তিনি সুন্দরগঞ্জকে জনপদ সন্ত্রাসীদের জনপদ হিসেবে আখ্যায়িত করে বলেন, এখানকার শতকরা ৯৯ ভাগ লোক শান্তি চায়। কিন্তু এখানে ৪ জন পুলিশ হত্যা, সাংসদকে হত্যা কারা করেছে, তাদের খোঁজার জন্য জনগণকে সহযোগিতা করতে হবে। জনগণ এবং পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় অপরাধীদের দমন করা সম্ভব হবে। জনগণের শক্তির সাথে আইনের শক্তি এক করে জঙ্গিদের দমন করা হবে। আমরা সুন্দরগঞ্জকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদমুক্ত করতে চাই। সাংসদ হত্যার পর শিক্ষা নেয়া উচিত এখন থেকে এখানে সন্ত্রাসী থাকবে না। মতবিনিময় সভায় সাংসদের বড় বোন আফরোজা বানু বলেন, আমার ভাই হত্যার এগারো দিন পেরিয়ে যাচ্ছে। আমরা অনিশ্চয়তার মধ্যে আছি। আপনারা আমার ভাইয়ের খুনিদের খুঁজে বের করে শাস্তি দিন। সাংসদের স্ত্রী খুরশিদ জাহান কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমি আমার স্বামীর হত্যাকারীদের দুষ্টান্তমূলক শাস্তি দেখে যেতে চাই। সে আপনাদের সাথে থেকে কাজ করেছে তাকে কেন হত্য করা হলো।

এদিকে সাংসদ হত্যার ১১ দিন পেরিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু পুলিশ এখানো হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন করতে পারেনি। গত ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সাহাবাজ গ্রামে নিজের বাড়িতে দুর্বৃত্তদের হাতে সাংসদ মনজুরুল ইসলাম লিটন খুন হন।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীএপ্রিল - ২৯
ফজর৪:০৫
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩২
মাগরিব৬:২৯
এশা৭:৪৬
সূর্যোদয় - ৫:২৫সূর্যাস্ত - ০৬:২৪
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৬৪৪.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.