নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বুধবার ১১ জানুয়ারি ২০১৭, ২৮ পৌষ ১৪২৩, ১২ রবিউস সানি ১৪৩৮
উত্তরার কিশোররা মেতেছে ভয়ঙ্কর খেলায় সবাই উচ্চবিত্ত পরিবারের সন্তান
পুলিশ কিছুই না জানার ভান করছে
স্টাফ রিপোর্টার
উত্তরায় খেলার মাঠে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র আদনানকে কুপিয়ে হত্যার পর বেরিয়ে আসছে ভয়ঙ্কর সব তথ্য। ঐ এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সেখানে কিশোরদের পাঁচটি গ্রুপ রয়েছে। যাদের বেশিরভাগই নামকরা স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী এবং উচ্চবিত্ত পরিবারের সন্তান। তাদের প্রায় সবার বয়সই ১৮ বছরের নিচে। এই পাঁচ 'গ্যাংয়ের' মধ্যে মারামারি, অস্ত্র প্রদর্শন, মাদক নেয়া, নিজেদের ভাগাভাগি করে নেয়া এলাকায় 'শো-ডাউন' লেগেই থাকে। সবাই সব জানে, কিন্তু এখন কেউ মুখ খুলছে না। এরা এলাকার কিশোরীদের জন্য রীতিমতো ত্রাস হয়ে উঠেছে।

উত্তরায় সক্রিয় থাকা গ্রুপগুলোর মধ্যে রয়েছে বিগবস, ডিসকো বয়েজ উত্তরা, পাওয়ার বয়েস উত্তরা, নাইনএমএম বয়েজ উত্তরা ও নাইন স্টার। এর মধ্যে আদনানের যোগাযোগ ছিল নাইন স্টারের সঙ্গে। তাদের দাবি, আদনানকে হত্যা করেছে ডিসকো গ্রুপের সদস্যরা। প্রতিটা গ্রুপের ফেসবুক পেজ আছে। সেখানে তারা পরস্পরকে হুমকি দেয়া, নিজেদের ক্ষমতা প্রদর্শন করা নিত্যদিনের ঘটনা। এমনকি এদের প্রায় সবার ফেসবুক প্রোফাইলে 'নিক নেম' (ডাক নাম) আছে। কারও নামের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে নবাব, হিটলার বা বয়রা। আবার কারও নাম ইবলিশ। গ্রুপের ভেতর এসব নাম ধরেই ডাকা হয় তাদের। এদের ফেসবুক গ্রুপ ও ব্যক্তিগত প্রোফাইল স্ট্যাটাসে ইমো হিসেবে বোমা, পিস্তল, সিগারেট ব্যবহার করতে দেখা গেছে। এছাড়া এক গ্রুপ আরেক গুপকে গালি দিয়ে তাদের এলাকায় প্রবেশ করলে 'দেখে নেয়ার প্রকাশ্য' হুমকি দেয়।

আদনানের মৃত্যুর পর একজনের সঙ্গে কথা বলেছে নাইন স্টার গ্রুপের এক সদস্য। নাম প্রকাশ না করার শর্তে সে জানায়, আদনান আমাদের গ্রুপের ভাই। তার এ পরিণতির প্রতিশোধ আমরা নিতে চাই।

আদনানের গ্রুপের সঙ্গে সম্পৃক্ততা বিষয়ে সে বলে, উঠাবসা একসঙ্গে ছিল আমাদের। ও তৈরি হচ্ছিল। ডিসকো গ্রুপের যারা আদনান হত্যায় অংশ নিয়েছিল তাদের আমরা চিনি। আমরা জানি তাদের বিচার হবে না। আপনারা খোঁজ নিলেই জানবেন। মূল হত্যাকারীর বাবা কত বড় পদমর্যাদার লোক।

উত্তরা ৯ নম্বর সেক্টরের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক অভিভাবক বলেন, এখন আমরা কি সব জেনেও না জানার ভান করছি। এই গ্যাংগুলোর নাম মোটামুটি সবার মুখে মুখে। এদের ভয়ে এখন না জানার ভান করছি। বিষয়টা কারোরই অজানা নেই যে বিষয়টি 'গ্যাং-ওয়ার' নামক নোংরা খেলা। কেউ চেষ্টা করছেন শাক দিয়ে মাছ ঢাকতে।

উত্তরা মাইলস্টোন স্কুলের এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক বলেন, এলাকাভিত্তিক একেকটা গ্রুপ আমাদের ছোটবেলাতেও দেখেছি। কিন্তু সেগুলো রাজনীতির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ছিল। উত্তরায় যা হচ্ছে তা এক কথায় ভয়ঙ্কর। এদের সবার বয়সই ১৮ বছরের নিচে। কিন্তু এদের চলাফেরা, আচরণ এবং যেসব বিষয় নিয়ে পরস্পর মারামারি করে সেগুলো বিভৎস। তিনি আরও বলেন, উত্তরায় যে ছেলেটা খুন হয়েছে সে এমনই একটি গ্রুপ করতো। এসব দলগুলোর সঙ্গে পুলিশ কথা বললেই জানতে পারবে এদের গ্রুপের নেতারা কলেজের প্রথম বা দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। আর দলের সদস্যরা অষ্টম থেকে দশম শ্রেণীর ছাত্র। বিষয়টি নিয়ে কাজে নেমেছে জাস্টিস ফর উইমেন বাংলাদেশের মাহবুবুর রহমান। তিনি বলেন, উত্তরায় এখন পর্যন্ত আমরা ৫টি গ্রুপের সন্ধান পেয়েছি। আদনানের হত্যাকারীদের খুঁজে বের করা কোনও সমস্যা না। কারণ এদের সবাই চেনে। প্রশ্ন হলো, আমাদের প্রশাসন কী করছে। গত পরশুদিন উত্তরায় যা ঘটলো সেটি ?হুট করে ঘটা কোনও ঘটনা না।

তিনি বলেন, এসব দলর পরস্পরের এলাকা নির্দিষ্ট করে সেই এলাকায় নিজেদের নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করার ঘোষণা আছে তাদের প্রোফাইলে। এমনকি ফেসবুকে তারা আদনান হত্যার প্রতিশোধ নেওয়ার ঘোষণা দিচ্ছে। এসব কারোর নজরে পড়ে না?

উত্তরা থানার (পশ্চিম) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলী হোসেন খান বলেন, এরই মধ্যে দু'জনকে আটক করা হয়েছে। এরা সবই স্কুলের ছেলে। এরা কোনও গ্রুপের কথা বলেছে কিনা জানতে চাইলে তিনি কিছুই না জানার ভান করে বলেন, 'গ্রুপ ট্রপ না, স্কুলের পোলাপাইন। একসঙ্গে চলে না, সে রকমই।' আটককৃতদের মধ্যে এক আসামি জেলা জজের ছেলে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আটক আছে, সাবেক জাজের ছেলে। সে আটকই আছে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীমার্চ - ২৯
ফজর৪:৩৮
যোহর১২:০৪
আসর৪:৩০
মাগরিব৬:১৬
এশা৭:২৯
সূর্যোদয় - ৫:৫৪সূর্যাস্ত - ০৬:১১
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৩৮০.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.