নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ১১ জানুয়ারি ২০১৯, ২৮ পৌষ ১৪২৫, ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০
এমপি স্বপনের ফেসবুকে স্টেটাস নিয়ে আলোচনার ঝড়
ক্ষেতলাল (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি
জয়পুরহাট-২ (কালাই, ক্ষেতলাল, আক্কেলপুর) আসনে দ্বিতীয় বারের মতো বিপুল ভোটে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়া বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন নির্বাচনী এলাকার অতি উৎসায়ী কিছু চামচা নেতাদের উদ্দেশ্যে একটি নিদের্শনা ফেসবুকে শেয়ার করার পর এলাকায় আলোচনার ঝর বইছে সকল শ্রেণী মানুষের মাঝে। অনেকেই সতর্কতা অবলম্বন করছেন তার ফেসবুক সাইটে কমেন্ট করা নিয়েও। (ফেসবুক থেকে সংগৃহীত) সংসদ সদস্য হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর আমার নির্বাচনী এলাকায় আমাকে ক্রেস্ট, বাঁধাই করা মানপত্র, যে কোনো ধরনের উপঢৌকন প্রদান করা বন্ধ করেছি। আমার জন্য রাস্তায় শিক্ষার্থীদের দাঁড় করিয়ে রাখা বন্ধ করেছি। কিন্তু এরপরও কতিপয় অতি চামচা প্রকৃতির শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান ও স্থানীয় নেতা বাচ্চাদের রোদে দাঁড় করিয়ে কষ্ট দেন। শিক্ষকদের জিজ্ঞেস করলে বলেন, স্যার এই মাত্র দাঁড়িয়েছে, ওরা আপনাকে খুব ভালোবাসে এই জন্য আমাদের নিষেধ সত্ত্বেও দাঁড়িয়েছে। সমাজের শ্রদ্ধাভাজন শিক্ষকদের মুখে এই জাতীয় ঢাহা মিথ্যা কথা শুনতে ভালো লাগে না। অনেক সময় চামচামির মাত্রা অতিরিক্ত বেড়ে গেলে মেজাজ সংযত করা সম্ভব হয় না। শিক্ষার্থীদের সামনে শিক্ষক বা স্থানীয় নেতাকে বকাঝকা করাও দুষ্কর। সবার মাঝে আমার ইমেজ প্রশ্নবিদ্ধ হয়।

সার্বিক বিবেচনায় এবং প্রতিষ্ঠান, সমিতি বা জনগণের টাকার অপচয় রোধকল্পে আমি নিম্নে অনুরোধ করছি :

১. অনুগ্রহপূর্বক আমাকে কোনো ক্রেস্ট, ক্রয়কৃত ফুলের তোড়া, কোনো মানপত্র বা উপঢৌকন প্রদান করবেন না। মানপত্রে অতিথিকে উদ্দেশ্য করে যেসব তোষামোদ বাক্য লিখা থাকে তার ৯৫ ভাগ মিথ্যা। কোনো প্রতিষ্ঠানের দাবি থাকলে কেবলমাত্র দাবিসমূহ হাতে লেখা কাগজে আমাকে হস্তান্তর করবেন। সেখানে হে মহান অতিথি, তোমার আগমনে ফুল, লতাপাতা, গুল্ম আজ আনন্দে আত্মহারা টাইপের মিথ্যা শব্দ চয়ন থাকলে আমি তা গ্রহণ করব না। ২.অনুগ্রহপূর্বক কোনো প্রতিষ্ঠান, সমিতি বা স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান পাবলিক মানি ব্যয় করে আমাকে স্বাগত জানিয়ে কোনো গেট নির্মাণ করবেন না। কেবলমাত্র রাজনৈতিক সংগঠন নিজেদের মধ্যে অর্থ ব্যবস্থা করে বা কোনো স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের প্রধান নিজের পকেটের টাকা দিয়ে গেট করতে পারেন। তাও সীমিত আকারে। এই জন্য জনগণের নিকট কোনো টাকা নেয়া যাবে না। ৩. কোথাও কোনো শিক্ষার্থীদের লাইনে দাঁড় করিয়ে রাখলে আমি সেই অনুষ্ঠান বয়কট করব এবং সেই প্রতিষ্ঠান প্রধানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করব।

৪. অনুগ্রহপূর্বক কোনো অনুষ্ঠানে আমার জন্য কোনো বোতলজাত পানি, চা আপ্যায়নের নামে বাচ্চাদের বা জনগণের টাকায় রকমারি খাবারের আয়োজন করবেন না। ৫. কোনো প্রতিষ্ঠানের অনুষ্ঠানে অযথা বিপুল অর্থ ব্যয় করে স্টেজ বানাবেন না। অনুগ্রহপূর্বক কৃচ্ছতা সাধন করবেন। ৬. অনুগ্রহপূর্বক কোনো শিক্ষার্থীদের দিয়ে দাবি উপস্থাপনের নামে তাকে ভিক্ষাবৃত্তি শেখাবেন না। কোনো সমস্যা থাকলে বয়স্কগণ দয়া করে বলবেন। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ভিক্ষাবৃত্তি শেখানো একটি সামাজিক অপরাধ।

৭. অনুগ্রহপূর্বক আমার কোনো অনুষ্ঠানে বাধ্যতামূলক কাউকে উপস্থিত থাকতে বলবেন না।

৮. অনুগ্রহপূর্বক সরকারি কর্মচারী ব্যতীত কেউ আমাকে স্যার সম্বোধন করবেন না। সরকারি কর্মচারীগণ তাদের নিজস্ব রীতি মেনে চলেন বিধায় তারা কি বলে সম্বোধন করবেন সেটি তাদের নিজস্ব বিষয়।

উপরোক্ত বিষয়গুলো আমার নির্বাচনী এলাকার জন্য প্রযোজ্য, আমার দায়িত্বপ্রাপ্ত রাজনৈতিক বিভাগের জন্যও প্রযোজ্য। আমাকে কোথাও আমন্ত্রণ জানালে আমি উপস্থিত থাকতে সম্মত হলে সেই আয়োজকগণের জন্যও প্রযোজ্য। আমি, প্রজাতন্ত্রের জনপ্রতিনিধি, জনগণের দয়ায় নির্বাচিত প্রতিনিধি, দেশ ও জনগণের জন্য কাজ করতে শপথ গ্রহণ করেছি। রাষ্ট্র আমাকে আইনানুগভাবে বেতন, ভাতা, সম্মানী ও সুবিধাদি প্রদান করে। আমি প্রভু বা জমিদার নই।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২৪
ফজর৪:৪৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৮
মাগরিব৫:২৯
এশা৬:৪২
সূর্যোদয় - ৫:৫৯সূর্যাস্ত - ০৫:২৪
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫২৪৮.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.