নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১২ জানুয়ারি ২০১৭, ২৯ পৌষ ১৪২৩, ১৩ রবিউস সানি ১৪৩৮
ট্রাফিক আইন মানছেন না কেউ
বাগেরহাটে ভ্যান মোটরসাইকেলে হাইড্রোলিক হর্ন, দাপিয়ে বেড়াচ্ছে নসিমন-করিমন
বাগেরহাট প্রতিনিধি
জেলা শহর বাগেরহাটের সমগ্র এলাকাজুড়ে দাঁপিয়ে বেড়াচ্ছে অবৈধ নছিমন-করিমন। সেই সাথে প্রতিনিয়ত বেড়ে চলেছে, লাইসেন্স বিহিন চালকের সংখ্যা আর হাইড্রোলিক হর্নের ব্যবহার। ফলে একদিকে যেমন দুর্ঘটনার সংখ্যা ক্রমশই বাড়ছে, তেমনি উচ্চ শব্দে হর্ন বাজানোর কারণে নানা সমস্যায় ভুগতে হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের রোগীসহ সাধারণ মানুষকে। সমপ্রতি জেলা শহরসহ আশপাশ উপজেলাগুলোতে সরেজমিনে ঘুরে অবৈধ নছিমন-করিমনের বেপরোয়া চলাচল আর ব্যাটারী চালিত রিকশা, অটোরিঙ্া ও মোটরসাইকেলে হাইড্রোলিক হর্ন ব্যবহারের বিষয়টি নজরে আসে।

জানা গেছে, যানবাহন নিয়ন্ত্রণে নিয়োজিত জেলা ট্রাফিক পুলিশ সদস্যরা আন্তরিকতার সাথে দায়িত্ব পালন করলেও প্রয়োজনীয় জনবলের অভাবে এ সব অনিয়ম সম্পূর্ণরূপে নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হচ্ছে না। প্রতিদিন সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জেলার বিভিন্ন এলাকা হতে নারিকেল, সুপারি, মৌসুমি সবজি সহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ বহনকারী শত শত নছিমন- করিমনের আগমণ ঘটে জেলা সদরে নিষিদ্ধ এসব যান্ত্রিক দানবের অদ্ক্ষ চালকেরা ছোট খাটো দুর্ঘটনা ঘটাচ্ছেন প্রতিনিয়ত। এসব দুর্ঘটনার শিকার হয়ে অনেকেই প্রাণ হারিয়েছেন, আবার পঙ্গুত্ব বরণ করে বিছানায় পড়ে আছেন এমন মানুষের সংখ্যাও কম নয়। সমপ্রতি জেলা সদরের যাত্রাপুর এলাকায় মটর সাইকেল আরোহী ৩ যুবক অবৈধ নছিমনের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত হন। স্থানীয়রা এ ব্যপারে বেপরোয়া গতি সম্পন্ন নছিমন চালকেই দায়ী করে এগুলোর চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপে প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানান। এ প্রসঙ্গে স্থানীয় এক জনপ্রতিনিধি বলেন, অবৈধ এ সব যানবাহন চলাচলে সরকারি নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও এরা আইনের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। তিনি বলেন, শুধু নছিমন- করিমনই নয় ছোট খাটে দুর্ঘটনার জন্য ব্যাটারী চালিত রিকশা, ইজি বাইক ও মোটরসাইকেলের অদক্ষ চালকেরা অনেকাংশে দায়ী। অনুসন্ধানে জানা যায়, জেলা শহর সহ প্রত্যন্ত অঞ্চলে চলাচলকারী যান্ত্রিক ও ব্যাটারী চালিত যানবাহনের অধিকাংশ চালকের খামখেয়ালী-পনায় প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা। আর অকালে প্রাণ হারাচ্ছেন অনেকেই। সমপ্রতি এক সন্ধ্যায় শহরের ব্যস্ততম সাধনার মোড়ে বেপোরোয়া মোটরসাইকেলের ধাক্কায় আহত হন জনৈক স্কুল শিক্ষক। সবর্োচ্চ ১৫ বছর বয়সী ঐ কিশোরের হাতে একটি পালসার মটর সাইকেলের আকস্মিক হাইড্রোলিক হর্নের শব্দে দিশেহারা ঐ শিক্ষক কিছু বুঝে ওঠার আগেই ধাক্কা লেগে পড়ে যান। এ সময় পথচারীরা ঐ শিক্ষককে টেনে তোলেন। এ ব্যাপারে পথচারী অনেকেই মন্তব্য করেন, উচ্চ শব্দে হাইড্রোলিক হর্ন ব্যবহারের ফলে রোগীসহ সাধারণ মানুষেরা অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। তারা বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখাসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২৩
ফজর৪:৪৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৯
মাগরিব৫:২৯
এশা৬:৪২
সূর্যোদয় - ৫:৫৯সূর্যাস্ত - ০৫:২৪
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩০২৩.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.