নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শনিবার ১৩ জানুয়ারি ২০১৮, ৩০ পৌষ ১৪২৪, ২৪ রবিউস সানি ১৪৩৯
রাজধানীতে জঙ্গি আস্তানায় র‌্যাবের অভিযানে ৩ জন নিহত
বড় মাপের জঙ্গি হামলার পরিকল্পনা নস্যাৎ । নিহত ৩ জনই জেএমবি সদস্য
হাবিবুর রহমান
রাজধানীতে গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায় বড় ধরনের হামলা চালানোর পরিকল্পনা নস্যাৎ করে দিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। গতকাল নগরীর পশ্চিম নাখালপাড়ার পুরাতন এমপি হোস্টেল সংলগ্ন ১৩/১ রুবি ভিলায়। জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে চালানো অভিযানে ৩ জন নিহত হয়েছেন। এই ৩ জনই জেএমবির সদস্য। এর আগেও রুবি ভিলা থেকে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের প্রধান মুফতি মাহমুদ খান।

র‌্যাবের মিডিয়া উইংয়ের প্রধান মুফতি মাহমুদ খান আরো বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পশ্চিম নাখালপাড়ার পুরাতন এমপি হোস্টেল সংলগ্ন ১৩/১ রুবি ভিলা নামে ৬ তলা বাড়িটির পঞ্চম তলায় কয়েকজন জঙ্গি সদস্য রয়েছে বলে জানতে পারে র‌্যাব। এই তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালাতে গেলে বাড়ির ভেতর থেকে গুলিবর্ষণ ও গ্রেনেড ছুড়ে মারা হয়। র‌্যাব সদস্যরা পাল্টা গুলি ছুড়লে হতাহতের ঘটনা ঘটে। এতে ২ র‌্যাব সদস্য আহত হয়েছেন। মূলত র‌্যাবের সাথে গোলাগুলিতেই জঙ্গিরা নিহত হয়েছে। রাজধানীতে বড় ধরনের নাশকতা করার পরিকল্পনা ছিল জঙ্গিদের। এখানেও বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারতো।

কিন্তু আল্লাহর রহমতে তেমন কিছু ঘটেনি। বাড়ির সবাই নিরাপদে আছে। তিনি বলেন, বাড়ির মালিক ও ম্যানেজারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‌্যাব হেফাজতে নেয়া হয়েছে। যে রুমে জঙ্গিরা ছিল সেই রুম থেকে প্রচুর বিস্ফোরক দ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছে। তাতে মনে হচ্ছে, তাদের বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা ছিল। তবে এখন পর্যন্ত জঙ্গিদের কারো পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা। তিনি আরো বলেন, তদন্ত শেষ হলে বিস্তারিত জানা যাবে।

ঐ বাড়ির কেয়ারটেকার রুবেল দৈনিক জনতাকে বলেন, জাহিদ নামের এক যুবক গত ২৮ ডিসেম্বর এসে ৫ তলার একটি কক্ষ ভাড়া নিতে চায়। জাহিদ তাকে বলেছিল, সে একটি বেসরকারি কোম্পানিতে চাকরি করে। ২ ভাইকে নিয়ে ঐ বাসায় সে থাকবে। এরপর ৪ জানুয়ারি 'জাহিদ' পরিচয় দেয়া সেই যুবক বাসায় ওঠেন। বাকি ২ জন ওঠেন ৮ জানুয়ারি।

পঞ্চম তলার ঐ ফ্ল্যাটের একটি কক্ষে তারা ৩ জন থাকতেন। বাকি ২টি কক্ষে আগে থেকেই আরও ৪ জন থাকতেন। তবে ঐ ঘরে জাহিদের ছবিসহ ২টি জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়া গেছে। তার একটিতে নামের জায়গায় জাহিদ লেখা থাকলেও অন্যটিতে লেখা রয়েছে সজীব। জাহিদ খুব ভোরে বাড়ি থেকে বের হয়ে অনেক রাতে ফিরত। অন্য ২ জন কখন কি করত সে বিষয়ে কেউ কিছু বলতে পারেনি। তিনি আরো জানান, পঞ্চম ও ষষ্ঠ তলার ৪টি ফ্ল্যাটের মধ্যে ৩টিই মেস হিসেবে ভাড়া দেয়া হয়েছিল। ঐ ৩ বাসায় ২১/২২ জন থাকত। আর পুরো ভবনে ১০টি ফ্ল্যাটে ৬০ জনের বেশি মানুষের বসবাস। তেজগাঁওয়ের পশ্চিম নাখালপাড়াস্থ স্থানীয় প্রতিবেশী খলিল হোসেন দৈনিক জনতাকে জানান, প্রায় ২ মাস আগে রুবি ভিলা থেকে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছিল র?্যাব। কিন্তু গত বৃহস্পতিবার মধ্য রাতে হঠাৎ তারা গোলাগুলির শব্দ শুনতে পান। এ সময় ৪০-৪৫ মিনিট গোলাগুলির শব্দ চলে।

এদিকে সুজন নামের আরেক প্রতিবেশী জানান, গত বৃহস্পতিবার রাত ১১টা থেকেই রুবি ভিলার সামনে র?্যাবের আনাগোনা লক্ষ্য করেছি। তবে রাত ২টার দিকে গোলাগুলি শুরু হয়।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) সূত্র জানায়, গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে এ অভিযান থেকে আহত অবস্থায় একজন কনস্টেবল ও একজন সৈনিককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জঙ্গি আস্তানা থেকে ৩টি লাশ বের করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে তেজগাঁও থানা পুলিশ লাশ ৩টির সুরতহাল করেছে। এরপর ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ৩টি সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। জঙ্গিদের কক্ষটি সিলগালা করে দেয়া হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান, ভবনের ভেতরে ৩ জনের মরদেহ পড়ে আছে। ৩ জনই পুরুষ। তাদের বয়স ২০-৩০ এর মধ্যে। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, অবিস্ফোরিত গ্রেনেড, সুইসাইডাল বেস্ট (বোমা বাঁধার যন্ত্র) উদ্ধার করা হয়েছে। তারা পুরো রুমের ভেতর গ্যাস ছড়িয়ে দিয়ে গ্রেনেডটি চুলায় দিয়ে বিস্ফোরণের জন্য চেষ্টা করেছিল। কিন্তু ভাগ্যক্রমে গ্রেনেডটি কিস্ফোরিত হয়নি। ঘটনাস্থলে বোম ডিসপোজাল ইউনিট কাজ শেষ করেছে।

অপর একটি সূত্র জানায়, রাজধানীর তেজগাঁও থানাধীন পশ্চিম নাখালপাড়ার 'রুবি ভিলা' নামের ঐ বাড়িতে আগেও অভিযান চালিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। র‌্যাব ও পুলিশ এর আগে আরও ৩ বার অভিযান চালানোর কথা জানিয়েছে। ২০১৩, ২০১৬ ও গত বছর সেখানে অভিযান চালানো হয়। গত বৃহস্পতিবার রাতের অভিযান নিয়ে মোট ৪বার অভিযান চালানো হলো সেখানে। আগের অভিযানগুলোয় বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতারও করা হয় বলে জানান এলাকার বাসিন্দা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

নাখালপাড়ার বাসিন্দা ও ২৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক নাসির উদ্দিন বলেন, গত বছরের ১৪ আগস্ট এই বাড়িতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা অভিযান চালায়। তখন অন্তত ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়। শুনছি তারাও জঙ্গি। এরপর তাদের কী হয়েছে আর জানি না। নাসির উদ্দিন পশ্চিম নাখালপাড়ার ৭৪ নম্বর বাড়ির মালিক। তিনি আরও বলেন, গত ৩ বছর আগে আরো একবার অভিযান চালিয়ে ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। এসব কারণে আমাদের এলাকায় কোনো মেস ভাড়া দেই না।

তার প্রতিবেশী আরেক বাড়িওয়ালা সারোয়ার আলম জানান, এই বাড়িতে এর আগেও একাধিকবার আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযান চালিয়েছে।

তেজাগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম বলেন, গত বছর আমরা ঐ বাসায় অভিযান চালিয়েছিলাম। তখন জামায়াত-শিবিরের ৩ কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে নাশকতার মামলা ছিল। নাখালপাড়ার ঐ বাড়িতে আগেও অভিযান চালানোর খবর নিশ্চিত করে র‌্যাবের মুখপাত্র মুফতি মাহমুদ খান বলেন, এর আগে ২০১৩ ও ২০১৬ সালে র‌্যাব আরও ২বার অভিযান চালায় এই বাসায়। সে সময় কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছিল।

এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পশ্চিম নাখালপাড়ার ১৩/১ রুবি ভিলা নামের যে ৬ তলা বাড়িতে র‌্যাব অভিযান চালায় তার মালিক সাবি্বর হোসেনের গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহে। তিনি বিমান বাহিনীতে ফ্লাইট অফিসার ছিলেন বলে জানিয়েছে র‌্যাব। তার বাড়ির ৫ ও ৬ তলায় মেস ভাড়া দেয়া হয়। একবার পুলিশ তাকে গ্রেফতার করছিল, পরে আবার ছেড়ে দেয়। তার ২ মেয়ে ও ১ ছেলে। মেয়েদের বিয়ে হয়েছে। ছেলে স্ত্রী নিয়ে বাড়িটির দোতলায় থাকেন।

ঐ বাড়ির মেসে ভাড়া থাকেন ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থী পারভেজ (১৮)। তার বাবা কামাল হোসেন গাজীপুরে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন। তাদের বাড়ি বরিশালের বাবুগঞ্জে। গতকাল শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে কামাল হোসেন বলেন, পারভেজ ভোররাত সোয়া ৪টার দিকে আমাকে ফোন করে। সে জানায় বাসায় গোলাগুলি হচ্ছে। বাইরে থেকে দরজা লাগানো। ওরা বের হতে পারছে না। এরপরই আমি গাজীপুর থেকে নাখালপাড়ায় চলে আসি। আমার ছেলের সঙ্গে সর্বশেষ সকাল ৮টায় কথা হয়েছে। এরপর থেকে মোবাইল বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।

পশ্চিম নাখালপাড়ার বাসিন্দা সাইফুল ইসলাম বলেন, গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে প্রথমে একটা শব্দ পাই। এর কিছুক্ষণ পর আবার শব্দ। শীতের কারণে বাসার দরজা-জানালা সব বন্ধ ছিল। তাই শব্দ খুব আস্তে শোনা গেছে। আমরা প্রথমে ভেবেছি আতশবাজি হচ্ছে। পাশেই চ্যানেল আই-এর অফিস থাকায় প্রায়ই এমন আতশবাজি হয়। আমরা তাই ভেবেছিলাম।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১৯
ফজর৫:১৫
যোহর১১:৫৬
আসর৩:৪০
মাগরিব৫:১৯
এশা৬:৩৬
সূর্যোদয় - ৬:৩৫সূর্যাস্ত - ০৫:১৪
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৭৬৬.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.