নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, সোমবার ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২৯ মাঘ ১৪২৫, ৫ জমাদিউস সানি ১৪৪০
ট্রুথ কমিশনের নথি নিয়ে কাজ করছে দুদক : মইদুল
জনতা ডেস্ক
সত্য ও জবাবদিহিতা কমিশন (ট্রুথ কমিশন) থেকে তিতাসের ৪৫১ জন কর্মকর্তাকে দেয়া মার্জনাপত্র অবৈধ। হাইকোর্ট ট্রুথ কমিশন গঠন অবৈধ ঘোষণা করেছিলেন। আত্মস্বীকৃত দুর্নীতিবাজ ট্রুথ কমিশন থেকে মার্জনা পত্র পেলেও আতংকে রয়েছেন তারা। ক্ষমা পাওয়া ওই সব দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে কিছু অভিযোগ নিষ্পত্তি, আর বাকিগুলো অনুসন্ধান ও তদন্তাধীন রয়েছে বলে গতকাল রোববার জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের আইন বিভাগের মহাপরিচালক (লিগাল) মো. মইদুল ইসলাম। দুদক সূত্রে জানা যায়,

তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে মোট ৪৫১ জন দুনীতিবাজ ট্রুথ কমিশন থেকে নিজের দোষ স্বীকার করে মার্জনাপত্র নেয় কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের আত্মস্বীকৃত দুর্নীতিবাজরা। এর মধ্যে দুর্নীতি দমন কমিশন থেকে তিতাসের রয়েছে ২০৯ জন সাব-রেজিষ্ট্রার, ৩৩ জন ডেসাসহ বাকি ২৪২ জন রয়েছে অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা। তবে ট্রুথ কমিশন ক্ষমা করলেও ওই সময় দুদক ক্ষমা করেনি।

উল্লেখ্য, দুর্নীতিবাজরা স্বেচ্ছায় স্বপ্রণোদিত হয়ে ট্রুথ কমিশনে নিজের দোষ স্বীকার করে সরকারের কোষাগারে ৩৬ কোটি ৮৫ লাখ ৯১ হাজার টাকা জমা দেয়। দুদক থেকে যাওয়া ২৪২ জনের বিরুদ্ধে দায়ের করা অভিযোগ আইনি প্রক্রিয়ায় কার্যক্রম শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। দুদকের সূত্রে বিষয়টি জানা গেছে। তত্ত্বাবধায়ক সরকার টু্রথ কমিশন গঠন করেন ২০০৮ সালের ৩ আগষ্ট। এই কমিশনের চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব গ্রহন করেছিলেন সাবেক বিচাপতি হাবিবুর রহমান। ঘোষনা দেন স্বপ্রনোদিত হয়ে যারা নিজের দোষ স্বীকার করে উপার্জিত অবৈধ সম্পদ রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দেবেন তাদেরকে মার্জনা পত্র (সাটিফিকেট) দেয়া হবে। এই ঘোষনায় দুদক থেকে ২৪২ জন, তিতাস থেকে সরাসরি যান ২০৯ জন। নির্দোষ হিসেবে ট্রুথ কমিশন তাদের সনদ পত্রও দিয়েছে। দুদক থেকে যারা ট্রুথ কমিশনে গেছেন তাদের অধিকাংশ তিতাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী কিছু রয়েছে সাব-রেজিস্ট্রার। এদের মধ্যে কিছু ব্যক্তির বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা বিচারিক আদালতে বিচার প্রক্রিয়াধীন ছিল। কিছু মামলা রয়েছে চার্জশিট দেয়ার প্রক্রিয়ায়। ২০৯ জনের বিরুদ্ধে তৎকালীন সময়ে কোন অভিযোগ আনা হয়নি। তাদের নথি নিয়ে এখন কাজ করছে দুদক।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১২
ফজর৪:৫৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৩৯
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩২
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৫:১২
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৮১২৯.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.