নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১ ফাল্গুন ১৪২৪, ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯
ব্যাংক জালিয়াতি কি দুর্নীতি নয়?
ছৈয়দ আনওয়ার
অবশেষে মামলার হুমকির মুখে বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক। যে প্রতিবেদন প্রকাশ না করে দেশের সাধারণ জনগণকে অন্ধকারে রাখা হয়েছে। তার ইঙ্গিত দিচ্ছে ফিলিপিন্সের রিজাল কমার্শিয়াল ব্যাংকিং কর্পোরেশন আরসিবিসি। 'অপরাধ বাংলাদেশ ব্যাংকের অভ্যন্তরেই ঘটেছে' বলে তারা তাদের বিরুদ্ধে করা মামলার প্রতিবাদে এক হাত দেখে নিতে চায়। যদি রিজাল ব্যাংকের এই দাবি সত্য হয় তাহলে জনগণ বলতেই পারে, দেশের ব্যাংক খাতের জালিয়াতিই শীর্ষ দুর্নীতি। তা বলার কারণটাও কারো অজানা নয়। কিন্তু দুঃখের বিষয় যে, আমাদের অর্থমন্ত্রী এই দুর্নীতিকে ধর্তব্যের মধ্যে দেখতে রাজি নন। তিনি সোনালী ব্যাংকের ৪ হাজার কোটি টাকার দুর্নীতিকে তুচ্ছভাবেই দেখেছেন। তাঁর এমন তাচ্ছিল্যের কারণেই হয়তো দেশের ব্যাংক খাতের জালিয়াতিতে বরকত দেখা দিয়েছে। বিসমিল্লাহ্ গ্রুপ, ডেসিটিনির মতো বেপরোয়া জালিয়াতি করেও তারা আজও ধরা ছোঁয়ার বাইরে। শেয়ারবাজারের লাখ লাখ মানুষ পথে বসলেও অর্থমন্ত্রী তাদের প্রতি সহানুভূতির পরিবর্তে বিরূপ মন্তব্য করতে ছাড়েননি। বেসিক ব্যাংকের হাজার হাজার কোটি টাকা লুটপাট করে দিব্যি গায়ে হাওয়া লাগিয়ে বেড়াচ্ছেন হোতারা। ফারমার্স ব্যাংকের ঋণ জালিয়াতি ফাঁস হওয়ার পর পরিচালনা পর্ষদে পরিবর্তনের মহড়ার মধ্য দিয়ে প্রায় ধামাচাপায় পড়ে আছে বিষয়টি। আর

ব্যাংক জালিয়াতি কি আমের চেয়ে বিচি বড়র মতো মূলধনের চেয়ে দ্বিগুণ অর্থাৎ পাঁচ হাজার কোটি টাকার ঋণের রেকর্ড গড়ে জনতা ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা হয়তো আজ হিসাব-নিকাশ নিয়ে মহাব্যস্ত। তাই হয়তো তাদেরকে বিচারের আওতায় আনা সম্ভব হচ্ছে না। ব্যাংকগুলোর এমন আগ্রাসী ঋণ বিতরণের ফলে আমানতে টান পড়েছে। সুদ বাড়িয়ে দিয়েও ঋণ পাচ্ছে না ব্যবসায়ীরা।

পুনশ্চ: ব্যাংক খাতের এই ভয়াবহ জালিয়াতি দেশের সাধারণ জনগণের আমানতে খেয়ানত। কষ্টার্জিত অর্থ লোপাটকারীদের বিচার দেখতে চায় দেশবাসী।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীজুলাই - ১৭
ফজর৩:৫৫
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৩
সূর্যোদয় - ৫:২১সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৩০৭.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.