নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১ ফাল্গুন ১৪২৪, ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯
২২ দিন পর সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে শুরু হলো পাথর আমদানি
চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি
২২ দিন পর ভারতীয় ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশি আমদানিকারকদের ৬ দফা দাবি মেনে নেওয়ায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে পাথর আমদানি শুরু হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল থেকে এ আমদানি শুরু হয়। ফলে বন্দরে বেড়েছে কর্মচাঞ্চল্য। এর আগে গত ২১ জানুয়ারি থেকে ভারতের রপ্তানিকারকরা দফায় দফায় পাথরের দাম বৃদ্ধি, ওজনে কম দেওয়া, মানসম্মত পাথর না দিয়ে ধুলা মেশানো নিম্নমানের পাথর সরবরাহ, জিএসটির নামে রশিদ ছাড়াই প্রতি টন পাথরে অতিরিক্ত ২ রুপি করে চাঁদা আদায়ের প্রতিবাদে বাংলাদেশি পাথর আমদানি ও রপ্তানিকারকরা আমদানি বন্ধ করে দেয়। এ ব্যাপারে সোনামসজিদ বন্দর আমদানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. তৌফিকুর রহমান বাবু গতকাল সোমবার থেকে পাথর আমদানির বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, গত রোববার বিকেলে উভয় দেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যে ফলপ্রসু আলোচনা হয়। পরে ভারতের মোহদীপুর রপ্তানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সহ সভাপতি মানবেন্দ্র সরকার ও বাংলাদেশের সোনামসজিদ আমদানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদকের যৌথ সমঝোতা স্বাক্ষরের পর গতকাল সোমবার সকাল থেকে পাথর আমদানির সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা। প্রসঙ্গত এর আগে ২০১৬ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে একই কারণে ৫ দিন পাথর আমদানি বন্ধ রাখে দেশীয় আমদানিকারকরা। রফতানিকারকরা পাথর আমদানির ক্ষেত্রে অগ্রিম রাজস্ব প্রদান বহাল, অহেতুকভাবে দাম বাড়ানো, কথিত জিএসটি বাবদ অযাচিত ২ রূপি কমিশন আদায় (পরে ২ রূপির স্থলে ৪ রূপি করা হয়), পাথরের ওজন সিএফটি'র পরিবর্তে মেট্রিক টনে প্রদান, পাথরে আবর্জনা মিশিয়ে ওজন বাড়ানো ও দফায় দফায় দাম বাড়ানোসহ কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি ও জিম্মি করে বাংলাদেশি আমদানিকারকদের কাছ থেকে অধিক মুনাফা আদায় করায় সে সময় পাথর আমদানি বন্ধ করে দেয় আমদানিকারকরা। তবে এর ৫দিন পর থেকে মৌখিকভাবে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের দাবি ভারতীয় রপ্তানিকারকরা মেনে নেওয়ায় আবার পাথর রপ্তানি শুরু হলেও ঘটনার এক বছরের মাথায় আবারো প্রায় একই কারণে চলতি বছরের ২১ জানুয়ারি থেকে পাথর আমদানি বন্ধ হয়ে যায়। এবার লিখিত সমঝোতা হওয়ায় এ নিয়ে আর অচলবস্থা সৃষ্টি হবে না বলে দাবি সংশ্লিষ্টদের।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীআগষ্ট - ১৮
ফজর৪:১৬
যোহর১২:০৩
আসর৪:৩৭
মাগরিব৬:৩৩
এশা৭:৪৯
সূর্যোদয় - ৫:৩৫সূর্যাস্ত - ০৬:২৮
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৭৯৮.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.