নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪১
বিশ্বজয়ী আকবরকে রংপুরে গণসংবর্ধনা
রংপুর প্রতিনিধি
মোঘল সাম্রাজ্যের অধিপতি আকবরে যেমন আলোকিত ভারত বর্ষের ইতিহাস। তেমনি যুবাদের বিশ্ব ক্রিকেট যুদ্ধ মঞ্চে ভারতকে হারিয়ে বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পূর্ণ করেছে আকবরের বাংলাদেশ। ভারতের আকবর নামার চারশ বছর পর নতুন আকবরের ক্রিকেট সাম্রাজ্য বিজয়ে ঘুচে গেছে বাংলাদেশের দীর্ঘদিনের আক্ষেপ আর হতাশা। মোঘল অধিপতির মতই বাংলার যুবাদের অধিনায়ক আকবরও এখন 'আকবর

দ্য গ্রেট'। বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের এই মহানায়ক বোনের মৃত্যুর ১৯ দিনের মাথায় শোককে শক্তিতে পরিণত করে বিশ্বকাপ শিরোপার আনন্দে ভাসিয়েছেন গোটা দেশকে। উনিশের হাত ধরে ১ আকবর তা-বে ৯ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব শুনেছে বাংলাদেশের জুনিয়র টাইগারের গর্জন। রচিত হয়েছে ক্রিকেট বাংলায় আকবর নামার গল্প।

আকবরের নেতৃত্বে বিশ্বজয়ী সেই যুবারা ১২ ফেব্রুয়ারি (বুধবার) দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে দেশের মাটিতে ফিরে এক ঝলমলে ঐতিহাসিক সন্ধ্যায় অকল্পনীয় সংবর্ধনায় সংবর্ধিত হয়েছেন। যা সত্যি বিস্ময়ের, গর্বের আর স্মরণীয় করে রাখার। এবার বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জয়ের শুরুর হিরো আকবর ফিরছেন তার গ্রামের বাড়ি রংপুরে।

বিশ্বজয়ের পর যে এটাই তার প্রথম নিজ জেলায় সফর। তার শৈশব-কৈশোরের স্বর্ণালী দিনগুলো কেটেছে এই রংপুর শহরের পশ্চিম জুম্মাপাড়া মহল্লায়। আর তাকে বরণ করে নিতে উৎসবের আমেজ বইছে পুরো রংপুরসহ আকবর আলীর নিজ মহল্লায়। বীরোচিত এই তরুণের রঙে রঙিন শুধু আকবরের নিজ বাড়ি নয়, সারা রংপুরেই চলছে সাজ সাজ রব।

আকবর আলীর রংপুরে আগমনে উৎফুল্ল পুরো রংপুরবাসী। গতকাল বৃহস্পতিবার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে রওয়ানা দিয়ে দুপুর সাড়ে ১২টায় সৈয়দপুর বিমানবন্দরে আসেন নায়ক আকবর আলী। সেখানে তাকে অভ্যর্থনা জানান রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাসহ বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের সুধীজন। পরে সেখান থেকে তাকে কার, মাইক্রো, মোটরবাইকের বিশাল বহরে করে রংপুরে নেয়া হয়। তার নিজ পাড়ায় ঢোকার পথে নগরীর কৈলাস রঞ্জন স্কুল গেটের সামনে থেকে ফুলেল বিছানো গালিচায় ফুলে ফুলে সিক্ত হয়ে মা-বাবার কোলে গিয়ে পৌঁছান আকবর।

সেখান থেকে বিকেলে তাকে আনা হবে সংবর্ধনা মঞ্চে। আতশবাজি, মিউজিক্যাল সাউন্ড শো, আর লাল সবুজের পতাকায় বিকেলের পর পশ্চিম জুম্মাপাড়া হয়ে উঠবে বর্ণিল। এখন পাড়া-মহল্লাজুড়ে এখন একটাই নাম প্রকম্পিত হচ্ছে 'আকবর দ্য গ্রেট'।

সংবর্ধনা আয়োজন নিয়ে পশ্চিম জুম্মাপাড়া স্পোর্টিং ক্লাবের সভাপতি শফিকুল ইসলাম জানান, আমাদের আকবর বিশ্ব ক্রিকেট যুদ্ধে যে ক্রীড়া নৈপূণ্য দেখিয়েছে, তা বাংলাদেশের আগামীর উজ্জ্বল সম্ভাবনার দিগন্তকে উন্মোচিত করেছে। আকবরের জন্য যেমন বাংলাদেশ গর্বিত। তেমনি রংপুরের মানুষ হিসেবে আমরা গর্বিত। বীরোচিত অধিনায়ক আকবরকে আমাদের সন্তান হিসেবে ক্লাবের পক্ষ থেকে সংবর্ধিত করা হবে।এখন আকবর আকবর সস্নোগানে যেমন উচ্ছ্বসিত রংপুর। তেমন 'আকবার দ্য গ্রেট' নামেও রঙিন হয়ে উঠেছে রংপুর। যেন ছোট-বড় বয়সী মানুষের মাঝে আনন্দে উচ্ছ্বাসের দিন এসেছে আজ। সকাল থেকেই আকবরের বাড়ির সামনেই ঘুরঘুর করছে তারা।

এর আগে আকবর আলীকে সৈয়দপুর বিমানবন্দর থেকে রংপুরে নেয়ার পথে মোড়ে মোড়ে হাত উঁচিয়ে ও ফুল ছিটিয়ে সংবর্ধিত করেন রাস্তার দু'পাশে দাঁড়িয়ে থাকা হাজারো মানুষ। আর দুপুরে রংপুর পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে জেলা প্রশাসন ও জেলা ক্রীড়া সংস্থা আয়োজিত গণসংবর্ধনায় ভালোবাসার ফুল, শুভেচ্ছা ও আশীর্বাদে সিক্ত হয় আকবর।

আকবর শুরুতে মাদরাসায় ভর্তি হলেও পরে বাড়ির পাশে বেগম রোকেয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত লেখাপড়া করে নগরীর লায়ন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজে ভর্তি হন। ক্লাস সিঙ্ েউঠে রংপুরের অসীম মেমোরিয়াল ক্রিকেট একাডেমিতে ভর্তি হন। সেখানে অঞ্জন সরকারের হাত ধরে রংপুর জিলা স্কুলের মাঠে তার ক্রিকেটের সত্যিকারের হাতেখড়িটাও হয়ে যায়। ২০১২ সালে বিকেএসপিতে সুযোগ পান। এরপর শুধুই এগিয়ে যাওয়ার গল্প তৈরি করে আকবর। বিকেএসপির বয়সভিত্তিক দলে খেলে সুযোগ পেয়ে যান জাতীয় অনূর্ধ্ব-১৭ দলে। নেতৃত্ব দেয়ার অভিজ্ঞতাও হতে থাকে সমানতালে।

শুধু ক্রিকেট নিয়েই অবশ্য পড়ে থাকেননি আকবর। পড়াশোনাটাও দারুণভাবে করেছেন তিনি। ২০১৬ সালে তার এসএসসি পরীক্ষার সময় চলছিল প্রথম বিভাগ ক্রিকেট লিগ। তখন খেলা ও লেখাপড়া দুটিই সামলেছেন দারুণ মনোযোগে। এসএসসিতে জিপিএ-৫ পান তিনি। এইচএসসিতে জিপিএ ৪.৪২। সব কিছুতে ভালো করার ধারাবাহিকতায় এবার বাংলাদেশ যুবদলের নেতৃত্বের ভার তার কাঁধে। দক্ষিণ আফ্রিকার আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে নেতৃত্বের ভার সামলে চমক দেখালেন আকবর আলী।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীফেব্রুয়ারী - ২৪
ফজর৫:০৯
যোহর১২:১২
আসর৪:২২
মাগরিব৬:০২
এশা৭:১৫
সূর্যোদয় - ৬:২৫সূর্যাস্ত - ০৫:৫৭
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩০১৯.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.