নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪১
ট্রলারে ঝুঁকিপূর্ণ বিদেশ যাত্রা
বর্তমানে দেশের মানবপাচারের অন্যতম রুট কক্সবাজার। কক্সবাজার থেকে দুঃসাহসিক এ অনিরাপদ নৌযাত্রা নতুন কোনো ঘটনা নয়। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কঠোর অবস্থানের কারণে গত কয়েক বছরে সেটি হরাস পেয়েছিল। কিন্তু কক্সবাজারের সীমান্তবর্তী ও উপকূলীয় এলাকার মানবপাচারকারী চক্র হঠাৎ আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। প্রশাসনের তৎপরতার কারণে পাচারকারীরাও কৌশল বদলিয়ে বাংলাদেশিদের পরিবর্তে রোহিঙ্গাদের টার্গেট করছে। মায়ানমারে নির্যাতন এবং বাংলাদেশে শরণার্থীশিবিরে মানবেতর জীবনযাপন ও জন্মভূমিতে ফিরে যাওয়ার জোরালো সম্ভাবনা না থাকায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সমুদ্র পাড়ি দিয়ে মালয়েশিয়ার স্বপ্নে গোপনে ক্যাম্প ছাড়ছে রোহিঙ্গারা। স্বল্প খরচে নৌকায় মালয়েশিয়া নেয়ার প্রলোভন দেখাচ্ছে দালাল চক্র। উত্তাল সমুদ্র পাড়ি দিতে গিয়ে অনেকের মৃত্যুর খবর হলেও থামছে না এ ভয়ঙ্কর যাত্রা। জানা যায়, রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে এখন ৪০ থেকে ৪৫টির মতো দালাল চক্র সক্রিয়। এ জন্য রোহিঙ্গারা ৩০ থেকে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত দালালদের দিচ্ছেন। এভাবেই গত দুই বছরে অনেক রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ রাতের আঁধারে মালয়েশিয়া পাড়ি জমিয়েছে। ছোট ছোট কাঠের নৌকায় বা ট্রলারে পাড়ি দিতে গিয়ে কারো সাগরে সলিলসমাধিও হয়েছে।

সর্বশেষ গত ১০ ফেব্রুয়ারি রাতে কাঠের নৌকায় করে মালয়েশিয়ার উদ্দেশে পাড়ি জমিয়েছিলেন ১৩৮ জন রোহিঙ্গা। কিন্তু পথে ট্রলারডুবিতে ১৯ জনের মৃত্যু ও ৭২ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। যাত্রীদের প্রায় সবাই রোহিঙ্গা এবং তাদের বেশির ভাগই নারী ও শিশু। এভাবে ট্রলারডুবিতে মৃত্যু, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে আটক হয়ে দীর্ঘ কারাবাস, পথে পথে নানা বিপদ ও নির্যাতনের তোয়াক্কা করছে না অবৈধভাবে মালয়েশিয়ার উদ্দেশে দেশত্যাগীরা। অনেকেই বিদেশের কারাগারে বছরের পর বছর বন্দী জীবন কাটাচ্ছেন। স্বজনরা জানেনও না তাদের জন্য উপার্জন করতে যাওয়া প্রিয়জনটি বিপদে কিংবা আদৌ বেঁচে আছেন কিনা। তবুও কক্সবাজার উপকূল দিয়ে ট্রলারে চেপে মালয়েশিয়ায় মানব পাচার থামছেই না। আদালত সূত্রে জানা যায়, কক্সবাজারে দায়ের হওয়া মানবপাচারের কিছু মামলার নিষ্পত্তি হলেও সাক্ষ্যদানের অভাবে সেগুলোতে কোনো আসামিরই সাজা হয়নি। এখনো জেলার বিভিন্ন আদালতে ৩৯৮টি মানবপাচার মামলা বিচারাধীন। মামলার আসামিরা জামিনে বেরিয়ে এসে আবার মানবপাচারে জড়াচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে সরকারের আইন মন্ত্রণালয় ও পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে গভীরভাবে ভাবতে হবে বলে আমরা মনে করি।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীফেব্রুয়ারী - ১৭
ফজর৫:১৪
যোহর১২:১৩
আসর৪:১৮
মাগরিব৫:৫৮
এশা৭:১১
সূর্যোদয় - ৬:৩০সূর্যাস্ত - ০৫:৫৩
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৬৬৯.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.