নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বুধবার ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৩, ১৫ ফাল্গুন ১৪১৯, ১৬ রবিউস সানি ১৪৩৪
জনতারমত
আলোর মিনার শায়খে বর্ণভী (রহ.)
শাহ নজরুল ইসলাম
বিশ শতকের দ্বিতীয় দশকে জন্ম নেয়া মাওলানা লুৎফুর রহমান শায়খে বর্ণভী (রহ.) যেমন ছিলেন বিখ্যাত ওলী, তেমনি ছিলেন সমাজ সংস্কারক মুজাদ্দেদ। বরুণার পীর সাহেব খ্যাত হলেও তিনি ছিলেন সমাজসেবক, উন্নয়ন কর্মী, সাংবাদিক, কবি, বর্ষীয়ান আলেম এবং মুক্তিযোদ্ধা। সিলেট বিভাগের মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, সুনামগঞ্জ ও সিলেট জেলাসহ বি-বাড়িয়া, নেত্রকোনা, মোমেনশাহী, কিশোরগঞ্জ, নরসিংদী ইত্যাদি জেলায় হজরত শায়খে বর্ণভীর দাওয়াতী মাহফিল ও শেষ রাতের আবেগভরা কান্নার রোল গণমানুষকে শিহরণ তুলতো।

মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার ৫ নং কালাপুর ইউনিয়নের বরুনা গ্রামে হজরত মাওলানা লুৎফুর রহমান বর্ণভী ১৯১৬ সালে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মুন্সি হামিদ উল্লাহ ও মায়ের নাম আমেনা খাতুন। জানা যায়, মুন্সি হামিদ উল্লাহর পূর্বপুরুষরা শেখ বুরহান উদ্দীনের বংশধর ও সিলেটের বাসিন্দা ছিলেন। পরবর্তী সময়ে মৌলভীবাজারের ভানুগাছে বসতি স্থাপন করেন।

হজরত শায়খে বর্ণভী (রহ:) প্রাথমিক শিক্ষা গ্রহণ করেন স্বীয় পিতা মুন্সি হামিদউল্লাহর কাছে। পরবর্তীকালে সিলেট জেলার কানাইঘাট উপজেলার গাছবাড়ী মাদরাসায় লেখাপড়া করেন। সেখান থেকে ১৯৩৬ সালে ১৩৪১ বাংলায় পৃথিবী বিখ্যাত ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান দারুল উলুম দেওবন্দ গমন করেন। সেখানে ৬ বছর লেখাপড়া করে দাওরায়ে হাদিস সমাপন করেন। সে সময়ে দারুল উলুম দেওবন্দের শায়খুল হাদিস ছিলেন হজরত মাওলানা হুসাইন আহমদ মাদানী (রহ.)। হজরত শায়খে বর্ণভী (রহ.) ছাত্র অবস্থায়ই শায়খুল ইসলাম মাদানীর (রহ.) কাছে বাইয়াত হন। ১৯৪১ সালে ১৩৪৬ বাংলার মাঘ মাসের ১০ তারিখে স্বীয় শায়খ মাদানী থেকে বাইয়াতের ইজাযতপ্রাপ্ত হন তিনি। এ বছরের শেষের দিকে তিনি স্বদেশ প্রত্যাবর্তন করেন।

১৯৪১ সালে দেশে ফিরে তিনি মৌলভীবাজারের প্রসিদ্ধ মাদরাসা দারুল উলুমে শিক্ষকতা করেন। সেখানে ১০ বছর শিক্ষকতার পর ১৯৫১ সালে নিজ গ্রামে পৈতৃক ভূমিতে আনওয়ারুল উলুম হামিদনগর বরুনা মাদরাসা প্রতিষ্ঠিত করেন। মৃত্যু পর্যন্ত তিনি এ মাদরাসার শায়খুল হাদিস ও প্রধান পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

হজরত বর্ণভীর রেখে যাওয়া সবচেয়ে বড় অবদান হচ্ছে বরুণা মাদরাসা ও আঞ্জুমানে হেফাজতে ইসলাম। ১৯৫১ সালে বরুণা মাদরাসা প্রতিষ্ঠা করেন এবং জনসাধারণের মাঝে দ্বীনের মৌলিক শিক্ষা বিস্তারের জন্য আঞ্জুমানে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ ১৯৪৪ সালে ১৩৪৯ বাংলায় প্রতিষ্ঠা করেন। অতঃপর ১৯৭৩ সালে ইসলামী তাহযিব তমাদ্দুন বিষয়ক মাসিক হেফাজতে ইসলাম পত্রিকা প্রকাশ করেন।

তিনি ছিলেন একজন প্রাজ্ঞ আলেম ও বর্ষীয়ান পীর। সঙ্গে সঙ্গে তিনি ছিলেন একজন যুগ সচেতন মানুষ। সৃষ্টি করেছিলেন সময়ের গণমাধ্যম মাসিক হেফাজতে ইসলাম। হজরত শায়খে বর্ণভী ছিলেন আর্ত-মানবতার সেবায় একজন নিবেদিতপ্রাণ উন্নয়নকর্মী। ব্যক্তিগতভাবে তিনি ছিলেন দরিদ্র মানুষের বন্ধু।

হজরত শায়খে বর্ণভী ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে বিভিন্ন সমাবেশে যুদ্ধজয়ের দোয়া করতেন। তার বাড়ি ছিল মুক্তিযোদ্ধাদের আশ্রয়স্থল। সংখ্যালঘু সমপ্রদায়ের নারী-পুরুষ নিরাপদ আশ্রয় লাভ করেছিল তার সানি্নধ্যে।

হজরত শায়খে বর্ণভী (রহ.) ১৯৭৭ সালের ১৭ মে মঙ্গলবার এ পৃথিবী থেকে মহান মাওলার সানি্নধ্যে চলে যান। আল্লাহ তাকে জান্নাতে উচ্চ মর্যাদা প্রদান করুন। আমিন!!

শাহ নজরুল ইসলাম : লেখক


Fatal error: Uncaught exception 'PDOException' with message 'SQLSTATE[HY000]: General error: 26 file is encrypted or is not a database' in /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php:7 Stack trace: #0 /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php(7): PDO->query('Update newsHitC...') #1 /home/janata/public_html/lib/index.php(135): require('/home/janata/pu...') #2 /home/janata/public_html/web/details.php(10): lib->newsHitCount() #3 /home/janata/public_html/web/index.php(28): include('/home/janata/pu...') #4 /home/janata/public_html/index.php(15): include('/home/janata/pu...') #5 {main} thrown in /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php on line 7