নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, সোমবার ১৬ এপ্রিল ২০১৮, ৩ বৈশাখ ১৪২৫, ২৮ রজব ১৪৩৯
হৃদযন্ত্রের সমস্যায় দায়ী জিনের খোঁজ
জনতা ডেস্ক
হৃদপি- কিংবা ফুসফুস প্রতিস্থাপন করা লাগে হৃদযন্ত্রের এমন সমস্যার জন্য দায়ী জিনগুলোকে সনাক্তের দাবি করছেন একদল বিজ্ঞানী।

পালমোনারি আরটেরিয়াল হাইপারটেনশনে (পিএএইচ) ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের ৫০ শতাংশই আক্রান্ত হওয়ার ৫ বছরের মধ্যেই মারা যান বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। রোগাক্রান্ত অনেকের ক্ষেত্রে ঠিক কী কারণে তারা এর কবলে পড়েন সে সম্বন্ধে বিজ্ঞানীদের ধারণাও কম ছিল।

গবেষকরা এখন বলছেন, তারা পিএএইচের পেছনে দায়ী পাঁচ ধরনের জিন চিহ্নিত করেছেন। এ উদ্ভাবনের ফলে প্রাথমিক পর্যায়েই রোগটি সনাক্ত করা যাবে; আক্রান্তদের সারিয়ে তুলতে নতুন ধরনের চিকিৎসাপদ্ধতি নিয়েও ভাবা যাবে বলে জানিয়েছেন তারা। রোগটিতে আক্রান্ত ব্যক্তিদের হৃদপি- থেকে ফুসফুসে রক্ত পরিবাহী ধমনীগুলো স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি সংকুচিত ও প্রসারিত হয়; এরই এক পর্যায়ে রোগীর হৃদস্পন্দন বন্ধ হয়ে যায়। সাধারণত হৃদযন্ত্র বা ফুসফুসের অন্য পরীক্ষার সময় রোগটি ধরা পড়ে। যে কোনো বয়সী ব্যক্তি পিএএইচে আক্রান্ত হতে পারেন; এক পঞ্চমাংশ রোগীর ক্ষেত্রে ঠিক কী কারণে তারা আক্রান্ত হয়েছেন তা নিশ্চিত হওয়া যায় না।

রোগ থেকে পরিত্রাণের একমাত্র উপায় হৃদপি- কিংবা ফুসফুস প্রতিস্থাপন। কিন্তু অঙ্গ প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে দীর্ঘসূত্রিতা এবং বেশিরভাগ সময়ই প্রতিস্থাপিত অঙ্গ শরীরের সঙ্গে মানিয়ে নিতে না পারায় চিকিৎসরাও এ পদ্ধতিকে কার্যকর বলে গণ্য করেন না। ক্যান্সারের মতো বিরল রোগের সঙ্গে জিনের সম্পর্ক খুঁজতে চালানো বিশাল এক প্রকল্পে বিজ্ঞানীরা হৃদযন্ত্রের সমস্যার জন্য দায়ী পাঁচটি জিনকে চিহ্নিত করার কথা বলছেন। গবেষণায় এক লাখ জিনের গতিপ্রকৃতি নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। আক্রান্ত হওয়ার কারণ চিহ্নিত করা যায়নি এমন হাজারেরও বেশি রোগীর ডিএনএ-ও খতিয়ে দেখেছেন তারা। বিজ্ঞানীরা বলছেন, পাঁচটি জিনের পরিবর্তনের কারণেই কোনো ব্যক্তি পিএএইচই-এ আক্রান্ত হন।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১৬
ফজর৫:১২
যোহর১১:৫৪
আসর৩:৩৯
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩৫
সূর্যোদয় - ৬:৩৩সূর্যাস্ত - ০৫:১২
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬০১৩.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.