নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৬ মে ২০১৯, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১০ রমজান ১৪৪০
ইফতারের ক্ষণটি দোয়া কবুলের সময়-২
যে ইবাদতের মধ্যে আনন্দ পাওয়া যায়, সে ইবাদত করতেও ভালো লাগে। আর প্রকৃত মুমিনগণ ইবাদতে আনন্দ লাভ করেন। মহানবী (সা.) বলেছেন, রোজাদারের জন্য দুটি খুশি। একটি ইফতারের সময়, অপরটি আল্লাহর সঙ্গে সাক্ষাতের সময়। সূর্যাস্তের পর রোজাদার প্রথম যে পানাহারের মাধ্যমে রোজা ছাড়ে, তাকে ইফতার বলে। ইফতার অর্থ ভাঙা বা উপবাস ভঙ্গন করা। ইফতারের সময় হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ইফতার করা উত্তম। ইফতারের আগেই ইফতার সামনে নিয়ে অপেক্ষা করা এবং যথাসময়ে ইফতার করা সুন্নত। ইফতার সামনে নিয়ে যে দোয়া করা হয়, সেই দোয়া আল্লাহ কবুল করেন।

সূর্য অস্ত যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ইফতার করতে হবে। সময় হওয়ার সাথে সাথে ইফতার করা বিরাট ফজিলতপূর্ণ আমল। কোনো বিলম্ব না করা। ইফতারের জন্য খেজুর ও পানির কথা হাদিস দ্বারা সমর্থিত। ইফতার নিজে করা এবং অন্যকে করানো সওয়াবের কাজ। যে ব্যক্তি অন্যকে ইফতার করাবে, তার সওয়াবের কোনো কমতি হবে না। হাদিস শরিফে ইরশাদ হয়েছে, 'যদি কেউ রমজান মাসে তার সার্মথ্য অনুযায়ী একটি খেজুর বা এক গ্লাস পানি দ্বারা হলেও আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য অপর ভাইকে ইফতার করায় তাহলে আল্লাহ তা'লা তাকে মাফ করে দিবেন। একই সাথে জাহান্নাম থেকে মুক্তি দিবেন ও উক্ত রোজাদারের সমপরিমান সওয়াব দিবেন আর এ কারণে ঐ রোজাদারের সওয়াব একটুও কমানো হবে না।' ইফতার করার সময় এ দোয়াটি পড়া উত্তম, 'আল্লাহুম্মা লাকা ছুমতু, ওয়াআলা রিজকিকা আফতারতু।' অর্থ- 'হে আল্লাহ! আমি আপনার সন্তুষ্টির জন্য রোজা রেখেছি এবং আপনার রিযিক দ্বারাই ইফতার করছি।' ইফতারের ক্ষণটি দোয়া কবুলের সময়। রোজাদারের জন্য আনন্দময় মুহূর্ত এটি। হাদিস শরিফে বর্ণিত আছে, রোজাদার যখন ইফতার করে, তার দোয়া প্রত্যাখ্যান করা হয় না।'

হাদিসে বর্ণিত হয়েছে, রোজাদারের দোয়া আল্লাহর নিকট এতই আকর্ষণীয় যে আল্লাহ তাআলা রমজানের সময় ফেরেশতাদের উদ্দেশে ঘোষণা করেন, 'রমজানে তোমাদের পূর্বের দায়িত্ব মওকুফ করা হলো এবং নতুন দায়িত্বের আদেশ করা হলো, তা হলো আমার রোজাদার বান্দাগণ যখন কোনো দোয়া মোনাজাত করবে, তখন তোমরা আমিন! আমিন! বলতে থাকবে।'

ইফতার মাহফিল ও ইফতার পার্টি সওয়াবের উদ্দেশ্য ভিন্ন হওয়া অনুচিত। ইফতার অনুষ্ঠানের লক্ষ্য হওয়া উচিত_ ইফতার করা ও করানোর মাধ্যমে সওয়াব লাভ করা; দ্বীনি তালিম; ইসলামি তাহজিব তমুদ্দুন ও সংস্কৃতির বিকাশ; গরিবদের আর্থিক ও সামাজিক সহযোগিতা করা, ইত্যাদি। বিশুদ্ধ নিয়ত ছাড়া কোনো ইবাদতই কবুল হয় না। হালাল খাদ্য ও হালাল উপার্জন রোজা, নামাজ ও যাবতীয় ইবাদত কবুলের পূর্বশর্ত। তাই ইফতার ও সাহ্?রিতে বৈধ উপার্জনের হালাল খাবার অবশ্যই হওয়া চাই।

মোহাম্মদ আবু নোমান : লেখক

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীসেপ্টেম্বর - ১৬
ফজর৪:২৯
যোহর১১:৫৪
আসর৪:১৯
মাগরিব৬:০৫
এশা৭:১৮
সূর্যোদয় - ৫:৪৫সূর্যাস্ত - ০৬:০০
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৭৯৭.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.