নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৬ মে ২০১৯, ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১০ রমজান ১৪৪০
দেশের জনগণ যেভাবে ট্যাঙ্ দেয় সেভাবে সুযোগ সুবিধা পায় না
অনিয়ম ও প্রতিবন্ধকতা থেকে বেরিয়ে সমাধানের আদেশ হাইকোর্টের
স্টাফ রিপোর্টার
জনগণ যেভাবে ট্যাঙ্ দিচ্ছে, সেভাবে নাগরিক সুযোগ সুবিধা পাচ্ছেন না। তাই, সব অনিয়ম ও প্রতিবন্ধকতা থেকে বেরিয়ে সমস্যা সমাধান করতে দুই সিটির নির্বাহীদের আদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

ঢাকার বায়ুদূষণ নিয়ে জারি করা রুল শুনানিকালে বুধবার বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের প্রধান দুই নির্বাহীর ব্যাখ্যা শেষে আদালত এ আদেশ দেন।

আদালতের নির্দেশে ব্যাখ্যা দিতে হাজির হয়েছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী মো. আব্দুল হাই এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী মোস্তাফিজুল রহমান।

এসময় আদালত মশা, বায়ুদূষণ ও জলাবদ্ধতা রোধে ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবহেলা রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন।

শুনানির সময় আদালত বলেন, 'বিভিন্ন উন্নয়নমূলক প্রকল্পের কাজের সময় আপনাদের মধ্যে সমন্বয়হীনতা দেখা যায় কেন? আপনারা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় খোঁড়াখুঁড়ি করেন। এসব কাজ সমন্বিতভাবে করবেন। এছাড়াও, নাগরিক যেসব সুযোগ-সুবিধা রয়েছে তাও আপনারা নিশ্চিত করবেন। পয়ঃনিষ্কাশন, জলাবদ্ধতা ও মশা নিধনে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

আদালত বলেন, সামনে বর্ষা মৌসুম আসছে। একটু বৃষ্টি হলেই বিভিন্ন এলাকায় হাঁটু পানি উঠে যায়। আবার মশার উৎপাতও বেড়ে যায়। তাই আগামী বর্ষায় মশার উৎপাত কমাতে পদক্ষেপ গ্রহণ করুন। বাংলাদেশে অনেক বিদেশি বসবাস করেন, বেশ কয়টি দূতাবাসও রয়েছে। দেশে বিনিয়োগের আরও সম্ভাবনা রয়েছে। তাই, সেগুলো লক্ষ্য রাখতে এবং সচেতন হয়ে আরো কর্মমুখী হতে হবে।

আদালত আরো বলেন, জনগণ যেভাবে ট্যাঙ্ দিচ্ছেন তাতে নাগরিক সুযোগ-সুবিধা পাওয়া তাদের অধিকার। তাই, সব অনিয়ম ও প্রতিবন্ধকতা থেকে বেরিয়ে অচিরেই সব সমস্যা সমাধান করতে দুই সিটির নির্বাহীদের নির্দেশ দেন আদালত।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন এডভোকেট মনজিল মোরশেদ, দুই নির্বাহীর পক্ষে ছিলেন আইনজীবী ড. নুরুন্নাহার নূপুর। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল এ বি এম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

পরে ডেপুটি এটর্নি জেনারেল এ বি এম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার বলেন, দুই সিটির নির্বাহীরা বুধবার হাইকোর্টে হাজির হয়ে তারা কি ধরনের পদক্ষেপ নিচ্ছেন তার ব্যাখ্যা দেয়ার চেষ্টা করেছেন। তাদের ব্যাখ্যা শুনে আদালত তাদেরকে বলেছেন, উন্নয়ন কাজের সময় সমন্বয়হীনভাবে বিভিন্ন রাস্তা খোঁড়াখুড়ি করেন। এ বিষয়ে তাদের নজর দিতে বলেছেন। নাগরিক সুযোগ সুবিধা সৃষ্টির জন্য সিটি কর্পোরেশনের যে যে দায়িত্ব রয়েছে সেসব নিশ্চিত করতে বলেছেন আদালত।

তিনি বলেন, আজকে তারা যে প্রতিবেদন দাখিল করেছেন তাতে আদালত খুব বেশি সন্তুষ্ট হতে পারেননি বলে আরো এক মাস সময় দিয়েছেন আদালত। যাতে আদালতের আদেশ অনুযায়ী সব ধরনের কাজ সম্পন্ন করতে পারে।

আদালত আরো বলেছেন, জনগণ যেভাবে ট্যাঙ্ দিচ্ছেন, তাতে জনগণের যেভাবে নাগরিক সুযোগ সুবিধা পাওয়া উচিত ছিল। সে ক্ষেত্রে অনেকটাই হচ্ছে না। এ বিষয়ে ওনাদেরকে আরো বেশি মনোযোগী হতে বলেছেন আদালত। এ বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে অভ্যন্তরীণ কোনো সমস্যা থাকলে সেটিও নিরসনের কথা বলেছেন আদালত। গত ৫ মে ঢাকার দুই সিটির প্রধান নির্বাহীকে তলব করেছিলেন হাইকোর্ট।

গত ২৭ জানুয়ারি হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় হিউম্যান রাইটস এন্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে রিট আবেদনটি দায়ের করেন এডভোকেট মনজিল মোরসেদ। সে রিটের শুনানি নিয়ে গত ২৮ জানুয়ারি রাজধানী ঢাকার বায়ুদূষণ বন্ধে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। রুল জারির পাশাপাশি বায়ুদূষণ রোধে ব্যবস্থা নিতে অন্তর্বর্তীকালীন আদেশও দেন। রাজধানীর যেসব এলাকায় উন্নয়ন কর্মকা- চলছে ১৫ দিনের মধ্যে সেসব এলাকা ঘেরাও করে পরের দুই সপ্তাহের মধ্যে এ বিষয়ে আদালতকে অবহিত করতে নির্দেশ দেয়া হয়। এছাড়াও, পরিবেশ অধিদফতরের মহাপরিচালক ও ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী কর্মকর্তাদের ঐ আদেশ পালন করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১৭
ফজর৪:৫৬
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৩৭
মাগরিব৫:১৬
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১৪সূর্যাস্ত - ০৫:১১
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৪৭৯.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.