নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বুধবার ১২ জুন ২০১৯, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ৮ শাওয়াল ১৪৪০
মুগদা ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল
ডাক্তারের বিরুদ্ধে শিশু রোগীর বাবা ও মাকে মারধরের অভিযোগ
স্টাফ রিপোর্টার
রাজধানউর মুগদায় ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালের ডাক্তার রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে শিশু রোগীকে চিকিৎসায় অতিরিক্ত টাকা দাবিসহ রোগীর বাবা ও মাকে মারধর করে হাসপাতাল থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বিচার চেয়ে মুগদা থানায় মামলা করতে গেলে থানা পুলিশ মামলা না নিয়ে ঘটনার ৪ দিন পর জিডি করেছে। গত মঙ্গলবার সকালে এই জিডি করেন ভুক্তভোগী শিশু রোগীর বাবা হেমায়েত উদ্দিন সাজী। হেমায়েত উদ্দিন গাজী হিমু তার জিডিতে উল্লেখ করেছেন গত ৮ জুন রাত ১ টার দিকে তার ৪ মাসের শিশু আনহা নিজ বাসায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ে। তাৎক্ষণিকভাবে তার স্ত্রী রোজিনা

পারভিনসহ আনহাকে নিয়ে মুগদা ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালের জরুফর বিভাগে যান। সে সময় জরুরী বিভাগে দায়িত্বরত ছিলেন ডা. রুহুল আমিন। হিমু অভিযোগে জানান, ডা. রুহুল আমিন প্রথমেই তাকে জিজ্ঞাসা করেন টাকা আছে কি না? টাকা না থাকলে চিকিৎসা হবে না। এরপর কত টাকা লাগবে জিজ্ঞাসা করলে ডা. রুহুল আমিন বলেন অনেক টাকা লাগবে। এদিকে তার মেয়ের শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি ঘটতে থাকে। এর পর ডা. রুহুল আমিন অসুস্থ শিশুকে নিয়ে সেখান থেকে চলে যেতে বলেন। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ডা. রুহুল আমিন ও তার সহযোগীরা হিমুকে মারধর করে। এতে হিমুর স্ত্রী রোজিনা বাধা দিলে তাকে কিল ঘুসি মেরে অসুস্থ শিশুসহ তাদের ধাক্কা দিয়ে বের করে দেয়। শুধু তাই নয় রাস্তার ওপর এসেও ও হিমুকে লাঠি দিয়ে আঘাত করে। বিষয়টি তাৎক্ষণিক মুগদা থানার অবহিত করা হলে থানা থেকে একজন এস আই এসে ঘটনার সত্যতা পেয়ে পরের দিন হিমুকে থানায় এসে মামলা করতে বলেন। কিন্তু ঘটনার ৪ দিন পার হওয়ার পরও থানার মামলা না নিয়ে কেবল জিডি করা হয়। জিডি নং-৪২৯। আরেকটি সূত্র জানায়, মুগদা নতুন ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালের নতুন শাখা হওয়ার পর এ ধরনের আরও কয়েকবার ঘটনা ঘটেছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। কিন্তু কোন ঘটনায় মামলা থানায় করা হয়নি।। কিন্তু স্ত্রী রোজিনা আক্তার জানান, ডা. রুহুল আমিনের আচার আচরণ মোটেই ভালো না। আমার স্বামী ও সন্তানকে তারা মারধর করেছে। এতে আমি বাধা দেয়ার কারণে আমাকেও গলা ধাক্কা দিয়ে বের করে দেয়। এই হলো ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালের চিকিৎসা সেবা বলে এ ব্যাপারে তিনি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২৯
ফজর৪:৪৬
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৫
মাগরিব৫:২৫
এশা৬:৩৯
সূর্যোদয় - ৬:০৩সূর্যাস্ত - ০৫:২০
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
১৭৯৩৩.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.