নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বুধবার ১৩ জুন ২০১৮, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৭ রমজান ১৪৩৯
চৌগাছায় যুবককে অপহরণ করে পুলিশ পরিচয়ে পিতার কাছে চাঁদা দাবি
চৌগাছা প্রতিনিধি
যশোরের চৌগাছায় আব্দুস সালাম নামে এক যুবককে অপহরণ করে চাঁদা না পেয়ে মারপিট করে পুলিশ পরিচয়ে পিতার কাছে চাঁদা দাবির করেছে দুর্বৃত্তরা। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী আব্দুস সালম চৌগাছা থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। আব্দুস সালাম চৌগাছা পৌরসভার পাঁচনমনা গ্রামের নূরশেদ আলীর পুত্র।

ভুক্তভোগী আব্দুস সালাম চৌগাছা থানায় লিখিত অভিযোগে বলেছেন, চলতি মাদক বিরোধী অভিযানে পুলিশকে মাদক ব্যবসায়ের তথ্য দেয়ায় উপজেলার সিংহঝুলি ইউনিয়নের জাহাঙ্গীরপুর গ্রামের সলেমান হোসেনের ছেলে মনি ও আব্দুল, দাউদ হোসেনে ছেলে লিটন ও টিটন, একই গ্রামের নূর মোহাম্মদের ছেলে হাফিজুর তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ৬০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় গত রোববার সন্ধ্যা ৭টার দিকে উল্লেখিত আসামীরাসহ অজ্ঞাত ৫/৬ ব্যক্তি সিংহঝুলী বাজার থেকে তাকে তুলে নিয়ে যায়। তারা জাহাঙ্গীরপুর গ্রামের ধুলোর বিল নামক মাঠের একটি মেহগনি বাগানে নিয়ে চাঁদার টাকা দাবি করে। তিনি চাঁদার টাকা দিতে অস্বীকার করলে মেহগনি গাছের সাথে বেঁধে লাঠি দিয়ে বেদম মারপিট করে এবং তার সাথে থাকা ২ হাজার তিনশত টাকা ছিনিয়ে নেয়। একপর্যায়ে গ্রামের লোকজন চলে আসলে ওই মাদক ব্যবসায়ীরা সালামকে গ্রামের ইউপি সদস্য রিপন হোসেনে ওরফে রিপন ড্রাইভারের নিকট হাজির করে। এরপর তারা পুলিশ পরিচয়ে তার পিতার কাছে ৬০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। সংবাদ পেয়ে আব্দুস সালামের পিতা নূরশেদ তার দুই ভায়রাপুত্র শরিফুল ইসলাম ও জাহিদুল ইসলামকে সাথে নিয়ে মুচলেকা দিয়ে রিপন মেম্বারের কাছ থেকে তাকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

সাংবাদিকদের আব্দুস সালাম বলেছেন 'মনি ও আব্দুল এবং লিটন ও টিটন আপন চাচাতো ভাই তারা ওই ইউনিয়নের শীর্ষ একজন প্রতিনিধির ভাতিজা। তারা ইয়াবার ব্যবসা করে। কিছুদিন আগে এই মনি একশ' ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ডিবি পুলিশের হাতে আটক হয়। এঘটনায় তারা আমাকে দায়ী করে শায়েস্তা করতে চেয়েছিল।' আব্দুস সালামের দাবি 'ওই দুর্বৃত্তরা টাকা না পেয়ে তার হাতে পাঁচটি ইয়াবা ধরিয়ে দিয়ে ভিডিও করে রাখে। পরে তাকে পুলিশের কাছে ধরিয়ে দিতে চায়।' কিন্তু চৌগাছা থানার এসআই ফজের আলী ঘটনাস্থলে গিয়ে আমার কাছে ইয়াবা থাকার সত্যতা না পেয়ে আমাকে মেম্বারের জিম্মায় দিয়ে আমার পরিবারের কাছে দেয়ার নির্দেশ দেন। পরে আমার পিতা লিখিত দিয়ে আমাকে ছাড়িয়ে নিয়ে আসে।

চৌগাছা থানার ওসি খন্দকার শামীম উদ্দিন বলেন, লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। মামলাটি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২০
ফজর৪:৪২
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫১
মাগরিব৫:৩২
এশা৬:৪৪
সূর্যোদয় - ৫:৫৮সূর্যাস্ত - ০৫:২৭
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৪৩৯.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.