নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বুধবার ১৩ জুন ২০১৮, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৭ রমজান ১৪৩৯
দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটে ছিনতাইকারী ও পকেটমারের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে
গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) থেকে আবু কালাম আজাদ
ঈদকে সামনে রেখে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌ পথে ছিনতাইকারী ও পকেটমারের দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। কোথাও স্বন্তি নেই দৌলতদিয়া পাটুরিয়া নৌপথে চলাচলকারী যাত্রীদের। অভিযোগ আছে ফেরি বা ঘাটে পর্যাপ্ত পুলিশ টহলের ব্যবস্থা নেই। এ সুযোগে ঘটছে ছোট বড় ছিনতাই ও পকেটমারের ঘটনা। তাতে টাকা, অলংকার, মোবাইল ফোনসহ মূল্যবান মালপত্র খোয়াচ্ছে সাধারণ যাত্রীরা। বাদ নেই গাড়ির চালক ও হেলপারও। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ সংস্থার (বিআইডবিস্নউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট অফিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দৌলতদিয়া থেকে পাটুরিয়া ঘাটের দূরত্ব মাত্র ৩ কিলোমিটার। প্রতিদিন এ নৌপথে দিয়ে কয়েক হাজার যানবাহন যাত্রীসহ ফেরিতে পদ্মা নদী পার হয়। কিছু কিছু যাত্রী লঞ্চ, স্পিটবোট ট্রলারের মতো বিভিন্ন নৌযানে পদ্মা পারি দেয়। দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথে দিন-রাত ফেরি চলে। তবে রাতে চলাচলকারী ফেরিগুলোতে নিয়মিতি পুলিশ পাহারা থাকে না। এ সুযোগে এলাকার ১৫/২০ জন দুর্বৃত্ত যাত্রীবেশে ট্রলারে করে এসে চলন্ত ফেরিতে ওঠে। পড়ে ফেরির ভেতর মোমবাতি জ্বালিয়ে জুয়ার আসর বসায়। তা দেখে ফেরি যাত্রীদের অনেকেই প্রলুব্ধ হয়ে জুয়ায় অংশ নেয়।

এ সুযোগে জুয়ারূদল যাত্রীদের কাছ থেকে টাকা স্বর্ণালংকার ও মোবাইলসহ ছিনিয়ে নেয়। শেষে চলন্ত ফেরি থেকে ট্রালারে নেমে নদীর ভাটিপথে দ্রুত পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। গোয়ালন্দ ঘাট থানা সূত্রে জানা যায়, জুয়াড়ি চক্রের মূল হোতা জামাল। দৌলতদিয়া এলকায় তার বাড়ি। চক্রটির অন্যরা হলো রব, সেপন, কুব্বাত, জহুর, হাশেম কাজী, মোন্নাফ, সোনাই, এরশাদ ও মনোমচি। দীর্ঘদিন ধরে টলন্ত ফেরিতে জুয়ার ফাঁদ বসানোর পাশাপাশি দৌলতদিয়া যৌনপল্লী এলাকায় মাদকের কারবার করে আসছে মাদার কাজী। তার বিরুদ্ধে গোয়ালন্দ ঘাট ও মানিকগঞ্জের শিবালয় থানায় অস্ত্র, ডাকাতি, হত্যা, ছিনতাই, মাদক ও জুয়া আইনে একাধিক মামলা আছে। অন্যদিকে ফেরি সংকটসহ একাধিক কারণে প্রায়ই দৌলতাদয়া ঘাটে পদ্মা পারের অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে থাকে শত শত বিভিন্ন গাড়ি। এতে সেখানে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। এ সুযোগে এলাকার দুর্বৃত্তরা লঞ্চঘাট, ফেরিঘাট, বাস টার্মিনাল, বাইপাস সড়কসহ গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন পয়েন্টে নিয়মিতি ছিনতাই ও পকেটমারের ঘটনা ঘটাচ্ছে। চক্রটির প্রধান বিল্লাল পত্তদার। সেও শাহাদত মেম্বারপাড়া গ্রামের জালাল ড্রাইভরের ছেলে। মাত্র কয়েক মাস আগে লঞ্চঘাট ও বাস টার্মিনাল এলাকায় একা একাই পকেট মারার কাজ শুরু করে। পড়ে এলাকার ২০/২৫ জন বখাটে যুবকের সঙ্গে নিয়ে গড়ে তোলে দূর্ধর্ষ বিল্লাল বাহিনী। হোসেন মন্ডলপাড়া গ্রামের সুলতান ড্রাইভারের ছেলে রনি মিয়া ওরফে চাপাতি রনি, উত্তর দৌলতদিয়া বড় মসজিদপাড়া গ্রামের (মৃত) জামাল শেখের ছেলে আবিদ হোসেন, জলিল সরদারপাড়া গ্রামের তোফাজ্জেল হোসেন ওরফে তোফা, দৌলতদিয়া ক্যানালঘাট এলাকার মিলন, গোয়ালন্দ পৌরসভার বিজয় বাবুরপাড়া মহল্লর আশিক, মাল্লাপুট্রির লিটন, জুড়ান মোল্লারপাড়া মহল্লার মিন্টু চক্রটির অন্যতম সদস্য। কিছু অসাধু রিকশাচালকসহ ঘাট শ্রমিকদের অনেকেই চক্রটির সঙ্গে জড়িত বলে অভিযোগ।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক ব্যাক্তিরা জানান,জুয়াড়ি ও ছিনতাইকারীদের বেশির ভাগই মাদকসেবী। মাদক কেনার টাকা জোগাড় করতে তারা দৌলতদিয়া ঘাটের অনেক যাত্রীর কাছ থেকে টাকা স্বর্ণালঙ্কার ও মোবাইল ফোনসেট ছিনিয়ে নিয়ে নেয়। গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি মির্জা আবুল কালাম আজাদ বরেন, দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া ঘাটে নৌ পুলিশের দুটি ফাঁড়ি রয়েছে। চলন্ত ফেরিসহ নৌপথ এলাকার সার্বিক নিরাপত্তার দায়িত্ব নৌ পুলিশের। তবে ঘাটে ছিনতাই ও পকেট মারার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার করতে থানা পুলিশের নিয়মিত অভিযান চলছে। এরই মধ্যে চক্রের বেশ কয়েকজনকে গ্রোফতার করে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। দৌলতদিয়া ঘাটের নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. আসাদুজ্জামান বলেন, ফোর্স সঙ্কটের কারণে ফেরিগুলোতে পাহারার ব্যবস্থা রাখা সম্ভাব হচ্ছে না।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীসেপ্টেম্বর - ২৪
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫১
আসর৪:১২
মাগরিব৫:৫৬
এশা৭:০৯
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫১
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪২১৭.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.