নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৪ জুন ২০১৮, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫, ২৮ রমজান ১৪৩৯
আবারও উত্তপ্ত কাশ্মির সীমান্ত চার সেনা নিহত হওয়ার দাবি ভারতের
জনতা ডেস্ক
২০০৩ সালের যুদ্ধবিরতি মেনে চলতে সম্মত হওয়ার পরও কাশ্মির সীমান্তে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে নতুন করে গোলাগুলি হয়েছে। বুধবার (১৩ জুন) দিনের আলো ফোটার আগেই দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি হয়। ভারতীয় বাহিনীর দাবি, পাকিস্তানি সেনাদের গুলিতে ভারতের আধাসামরিক বাহিনীর চার সদস্য নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও তিনজন। তবে পাকিস্তানি বাহিনীর দাবি, তারা নিজে থেকে হামলা চালায়নি, ভারতীয় সেনাদের 'অনর্থক' গুলি চালানোর জবাবেই তারা পাল্টা গুলি ছুড়েছে। এক বেসামরিক নিহত হওয়ার দাবি করে ভারতীয় কূটনীতিককে তলবও করেছে ইসলামাবাদ। মার্কিন বার্তা সংস্থা এপি'র এক প্রতিবেদন থেকে এসব কথা জানা গেছে।

১৯৪৭ সালে উপমহাদেশে ব্রিটিশ শাসন শেষ হওয়ার পর থেকেই জম্মু ও কাশ্মিরের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ভারত ও পাকিস্তান দুবার মুখোমুখি যুদ্ধে জড়িয়েছে। ১৯৪৭ ও ১৯৬৫ সালে উপমহাদেশের পারমাণবিক শক্তিধর দেশ দুটি যুদ্ধে লিপ্ত হয়। সমপ্রতি ওই এলাকায় বেড়েছে গোলাগুলির ঘটনা। কাশ্মির সীমান্তে ভারত-পাকিস্তান পারস্পরিক গোলাগুলির সমান্তরালে চলছে দোষারোপের খেলা। এর মধ্যেই গত ২৯ মে জম্মু ও কাশ্মিরের নিয়ন্ত্রণরেখায় ২০০৩ সালের যুদ্ধজনিত সমঝোতা পূর্ণাঙ্গভাবে বাস্তবায়ন করার ব্যাপারে একমত হয় ভারত ও পাকিস্তান। সমঝোতা অনুযায়ী, কোনও উত্তেজনাপূর্ণ পরিবেশ তৈরি হলে, ফ্ল্যাগ মিটিং,ফোনে কথোপকথন এবং আলোচনার মাধ্যমে সেটা সমাধানের চেষ্টা করা হবে। কোনওভাবেই যাতে সীমান্ত অঞ্চলে শান্তি নষ্ট না হয়,সেদিকে খেয়াল রাখা হবে। ?কিন্তু ২০০৩ সালের যুদ্ধবিরতি মানতে সম্মত হলেও ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে প্রায়ই গোলাগুলি হচ্ছে।

এপির প্রতিবেদনে বলা হয়, বুধবার আবারও ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে গোলাগুলি হয়েছে। ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর দাবি, পাকিস্তানি সেনারাই আগে গুলি চালিয়েছে। তাদের দাবি, মঙ্গলবার দিনগত মধ্যরাতে পাকিস্তানি বাহিনীর এক ভারতীয় সেনাকে গুলি করে। মাটিতে পড়ে যাওয়া কমরেডকে উদ্ধার করার জন্য অন্য সেনারা যখন চেষ্টা করছিলো, তখন পাকিস্তানি সেনারা তাদের ওপরও গুলি ছুড়তে শুরু করে। শুরু হয় দুই পক্ষের বন্দুকযুদ্ধ। নাম প্রকাশ না করে দুই ভারতীয় সেনা দাবি করেন, পাকিস্তানি বাহিনীর গুলিতে তিন সেনা ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। আর আহত অবস্থায় সরিয়ে নেওয়ার পর আরও এক সেনা নিহত হয়। তাদের দাবি, ভারতীয় সেনারা জবাব দিয়েছে এবং বুধবার সকালে সীমান্তে গোলাগুলি বন্ধ হয়েছে। এদিকে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর দাবি, তারা আগে গুলি ছুড়েনি। ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর অনর্থক হামলার মুখোমুখি হওয়ার পরই প্রতিশোধমূলক হামলা চালানো হয়েছে।

পাকিস্তানি বাহিনীর দাবি, ভারতয়ি সেনারা মঙ্গলবার পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের একটি গ্রামকে লক্ষ্য করে হামলা চালিয়েছে। ওই হামলায় এক বেসামরিক নিহত হন। হামলার সময ওই ব্যক্তি তার বাড়ির পাশে গবাদি পশুকে ঘাস খাওয়াচ্ছিলেন।

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার অনুমতি না থাকায় নাম প্রকাশ না করে এসব কথা জানিয়েছেন ওই পাকিস্তানি কর্মকর্তারা। বিনা উসকানিত্থে গুলি চালিয়ে ্তুযুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন্থ করার প্রতিবাদে ভারতীয় কূটনীতিককে তলব করেছে পাকিস্তান।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২০
ফজর৪:৪২
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫১
মাগরিব৫:৩২
এশা৬:৪৪
সূর্যোদয় - ৫:৫৮সূর্যাস্ত - ০৫:২৭
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৩৭৬১.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.