নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, সোমবার ১৮ জুন ২০১৭, ৪ আষাঢ় ১৪২৪, ২২ রমজান ১৪৩৮
দশমিনায় ২৬টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগ বাণিজ্য
দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
পটুয়াখালী জেলার দশমিনা উপজেলায় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় গুলোতে চলছে দপতরিকাম নৈশপ্রহরী নিয়োগ প্রক্রিয়া। এপর্যায়ে উপজেলার মোট ২৬টি স্কুলে নিয়োগ পাবে ০১ জন করে ২৬ জন দপতরিকাম নৈশপ্রহরী। অত্র নিয়োগ সংক্রন্ত সকল প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সম্পন্ন করেছেন দশমিনা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস। উপজেলা নির্বহী অফিসার মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাহমুদ জামানকে (অতিরিক্ত দায়িত্ব) বাছাই কিমিটির সভাপতি করে নিয়োগ পরীক্ষার জন্য ১৩,১৪ ও ১৫ জুন ২০১৭ দিন তারিখ ঠিক করা হয়েছে অনেক আগেই। যার অনুলিপি ইতিমধ্যে চলে গেছে সংশ্লিষ্ট সকল দফতরগুলোতে। আশায় বুক বেধে প্রস্তুতিও নিয়েছেন সকল পরীক্ষর্থী। হঠাৎ সব কিছু ওলট-পালট করে দিল একটি বদলির আদেশ। দশমিনা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. আবুল বাশারের বদলি।

চাকরি জীবনে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে বদলি হবার রিতি-নীতি মেনেই সনকারী চাকরিতে চাকরি করতে হবে এটাই নিয়ম। তবে সে বদলির দিন ক্ষন আছে। রয়েছে অনেক বিধিবিধান। জুন মাস হচ্ছে সরকারী দফতরগুলোর হিসেব নিকেসের মাস, দেখা গেছে ১লা জুন থেকে ৩০জুন পর্যন্ত দিন রাত কাজ করেও দাফতরিক কাজ শেষ করা যায় না ।তার উপরে ঈদের মাস হওয়ায় এ বারের জুন মাসটি অন্য দশটি জুনের চেয়ে অনেক গুরুত্বপুর্ণ। তাই দেখা গেছে এ বদলিকে কেন্দ্র করে উপজেলার হাজার হাজার প্রাথমিক শিক্ষক/কর্মচারী পরেছেন বেকায়দায়। ঠিক সেই মুহুর্তে কি কারনে একজন দফতর প্রধানকে মাত্র সল্প সময়ের নোটিশে দশমিনা থেকে কলাপারায় পাঠালেন কর্তৃপক্ষ এখন জনমনে প্রশ্ন, কি কারনে হঠাৎ করে এমন একটি বদলির আদেশ। কোনো অভিযোগ ছাড়াই কি কারনে দশমিনা উপজেলা শিক্ষা অফিসার বদলি হলেন তা জানেনা শিক্ষা অফিসার মো. আবুল বাশার নিজেও।

তিনি এ প্রতিনিধিকে বলেন, আমার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ নাই। তবে আমার মনে হয়, আমি থাকলে হয়তো যে ২৬টি স্কুলে দফতরি কাম নৈশপ্রহরী নিয়োগ চলছে, হয়তো সেখানে বানিজ্য করার কোন সুযোগ থাকবে না। মুলত এ ছাড়া আমার বিরুদ্ধে এই মূহুর্তে আর কোন অভিযোগ বা অপরাধ দেখছিনা ।অথচ যাহাকে দশমিনায় বদলি করা হয়েছে,তাহাকে গত ৩০মে ২০১৭ খ্রি. তারিখে কর্মস্থল দেয়া হয় বরগুনা সদরে।তাই ভুক্তভোগীদের জানার ইচ্ছে,যা এখন অনেকেরই প্রশ্ন কোন অসুভ শক্তির অবৈধ হস্তক্ষেপে কোন অসৎ উদ্দেশ্য হাসিল করার জন্য আমতলি উপজেলার সহকারী শিক্ষা অফিসার (ভারপ্রাপ্ত শিক্ষা অফিসার) মু. জাহিদ উদ্দিনকে রাতারাতি প্রোমোশন দিয়ে দশমিনায় বদলির আদেশ দিলেন তাহা কাহারোই বোধগম্য নহে।বিষয়টি সংশ্লিস্ট বিভাগকে ভেবে দেখার জোড় দাবি দশমিনার ভুক্তভোগী মহলে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীজুন - ২৪
ফজর৩:৪৪
যোহর১২:০১
আসর৪:৪১
মাগরিব৬:৫২
এশা৮:১৭
সূর্যোদয় - ৫:১২সূর্যাস্ত - ০৬:৪৭
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২০৪০.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.