নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, সোমবার ১৮ জুন ২০১৭, ৪ আষাঢ় ১৪২৪, ২২ রমজান ১৪৩৮
সুন্দরগঞ্জে একটি নিরীহ পরিবারের বসতবাড়িতে অগি্নসংযোগ করে উচ্ছেদ
সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) থেকে আঃ মতিন সরকার
সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের মনিরাম গ্রামে এক নিরীহ পরিবারের বসতবাড়ি পুড়িয়ে দিয়ে উচ্ছেদ করেছে এক প্রভাবশালী। উচ্ছেদের শিকার রোস্তম খাঁ ঐ গ্রামের মৃত ওসমান খাঁনের পুত্র। ঘটনাস্থল সূত্রে জানা গেছে, অনেকদিন থেকে ঐ গ্রামের মৃত ভুলকু শেখের পুত্র নুর আলম ওরফে ভুট্টু শেখের সাথে রোস্তম খাঁর জমি-জমার বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এক পর্যায়ে প্রভাবশালী ভুট্টু শেখ যে খতিয়ান ও দাগের জমি পাবে সেখানে না দিয়ে অন্য খতিয়ান ও দাগের ৪ শতক জমি বুঝিয়ে দেন রোস্তম খাঁকে। সেখানেই রোস্তম খাঁ বসতবাড়ি করে বসবাস করে আসছিলেন। কিন্তু গত ৬ মাস আগে ভুট্টুর নামে ঐ জমি নয় বলে ভুট্টুর আপন দুই ভাই শাহ আলম শেখ ও লাল মিয়া শখ রোস্তম খাঁর বাড়ি সরানোর চাপ প্রয়োগ করে। এ সময় রোস্তম খাঁ বামনডাঙ্গা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রসহ গ্রামবাসীর কাছে বিচার প্রার্থনা করে। এর প্রেক্ষিতে ৪/৫ বার সালিশ বৈঠক বসে। সালিশের সিদ্ধান্ত মোতাবেক এলাকাবাসী যে দাগ খতিয়ানে রোস্তম খাঁ জমি পান সেখানেই ৪ শতক জমি বের করে দেন। এরপর রোস্তম খাঁ এলাকাবাসীর কর্তৃক দখল করে দেয়া জমিতে বসতবাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করে আসছিলেন। কিন্তু ৬ মাস যেতে না যেতেই গত ২৮ মে দুপুর বেলা ভুট্টু শেখ তার লোকজনসহ রোস্তম খাঁর বসতবাড়িতে ভাঙচুর ও অগি্নসংযোগ করে পুড়িয়ে দিয়ে রোস্তম খাঁকে উচ্ছেদ করেন। এ সময় এলাকাবাসী কোন প্রতিবাদ করার সাহস পায়নি ভুট্টু শেখ প্রভাবশালী বলে । কিন্তু রোস্তম খাঁ আবারো এলাকাবাসীর কাছে বিচার প্রার্থনা করেন। এতে কোন কাজ না হওযায় গত ১১ জুন সুন্দরগঞ্জ থানায় একটি লিখিত এজাহার দাখিল করেন। এজাহার দাখিলের পর এসআই রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। কিন্তু মামলাটি এখনো রেকর্ডভুক্ত হয়নি। এরপর থানা অফিসার ইনচার্জ আতিয়ার রহমান রোস্তম খাঁর জমি বুঝিয়ে দেয়ার জন্য বামনডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান নজমুল হুদার উপর দায়িত্ব দেন। চেয়ারম্যান সফল হবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। কিন্তু তিনিও শেষ পর্যন্ত ব্যর্থ হন। এরপর রোস্তম খাঁ গত শনিবার (১৭ জুন) পুনরায় থানা অফিসার ইনচার্জ আতিয়ার রহমানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে বিচার প্রার্থনা করেন। বাড়ি থেকে উচ্ছেদের পর রোস্তম খাঁ স্ত্রীসহ তার মেয়ে জামাইয়ের বাড়িতে উঠেছেন। কোন কোন রাত রাস্তায়ও কাটিয়ে দেন বলে জানান রোস্তম খাঁ। থানা অফিসার ইনচার্জ আতিয়ার রহমান জানান ঘটনাটি আপোস করার চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু না হওয়ায় আইনি প্রক্রিয়া গ্রহণ করা হচ্ছে। এখন রোস্তম খাঁ কি বিচার পাবে সে জন্য থানার দিকে তাকিয়ে আছে এলাকাবাসী।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীআগষ্ট - ১৭
ফজর৪:১৫
যোহর১২:০৩
আসর৪:৩৮
মাগরিব৬:৩৪
এশা৭:৫০
সূর্যোদয় - ৫:৩৪সূর্যাস্ত - ০৬:২৯
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৫১১.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.