নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, মঙ্গলবার ৩০ জুন ২০২০, ১৬ আষাঢ় ১৪২৭, ৮ জিলকদ ১৪৪১
নয়া সমীকরণ, চিনের সঙ্গে দ্বিতীয় বর্ডার পয়েন্ট খুলে দিল নেপাল
জনতা ডেস্ক
চিনের সঙ্গে বাণিজ্যের জন্য নিজের সীমান্ত খুলে দিল নেপাল। নির্মাণ কাজের কাঁচামাল, জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র ও বিমানবন্দর নির্মাণের জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহের জন্য সীমান্ত খুলে দেওয়া হয়েছে বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্যে জানা গিয়েছে। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য চিনের সঙ্গে নিজেদের দুটি সীমান্ত টাটোপানি ও রসুয়াগাড়ি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। ৮ই এপ্রিল খুলে দেওয়া হয় টাটোপানি সীমান্ত। এবার খোলা হল রসুয়াগাড়ি সীমান্ত। নেপাল চিনের মধ্যে একতরফা সরবরাহের জন্য বিশেষ চুক্তি হয়েছে। সেই প্রেক্ষিতেই সীমান্ত খুলে দেওয়া হয়েছে। তবে কাঠমান্ডু পোস্টের প্রতিবেদনে ঠিক কবে সীমান্ত খুলে দেওয়া হচ্ছে, তার উল্লেখ নেই।

রাসুয়া এলাকার মুখ্য জেলা আধিকারিক হরি প্রসাদ পন্ত জানান দুই দেশের মধ্যে সদর্থক আলোচনার পরেই সীমান্ত খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্তনেওয়া হয়েছে। বুধবার এই আলোচনা হয়। দুই দেশের মধ্যে এই আলোচনা হয় মৈত্রী ব্রিজ বা ফ্রেন্ডশিপ ব্রিজে। চুক্তি অনুযায়ী চিনের কার্গো ট্রাক নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য নেপাল সীমান্তে নামিয়ে দেওয়া হবে। চিনের কার্গো ট্রাক ফিরে গেলে নেপালি চালক ও খালাসিরা সেই পণ্য ফের দেশের ভিতরে নিয়ে আসবে। প্রাথমিকভাবে দিনে মোট চারটি ট্রাক যাতায়াত করবে। পরে ধীরে ধীরে সেই সংখ্যা বাড়ানো হবে। ভৈরবাহা ও পোখারা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর তৈরির জন্য কাজ দ্রুত গতিতে চালাচ্ছে নেপাল। জুলাই মাসের মাঝামাঝি এই কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার কথা থাকলেও, লকডাউনের জন্য সময়সীমা বেড়ে গিয়েছে। চিনের সঙ্গে নতুন করে সখ্যতা হওয়ার পরে ভারতের সঙ্গে দূরত্ব বাড়াচ্ছে নেপাল। কথায় বলে সরব শত্রুর থেকে নীরব বন্ধু অনেক বেশি ক্ষতিকারক। নেপাল ঠিক সেই কাজটাই করে চলেছে। সেনাপ্রধান এমএন নারাভানে আগেই সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন নেপালের দ্বিচারিতার পিছনে বেজিংয়ের বড় ভূমিকা রয়েছে। সেই সন্দেহকে শিলমোহর দিয়েই একের পর এক ভারতবিরোধী পদক্ষেপ নিয়ে চলেছে কাঠমান্ডু। এবার ভারত নেপাল সীমান্ত লাগোয়া গ্রামগুলি সূত্রে চাঞ্চল্যকর খবর মিলেছে।

জানা গিয়েছে, নেপালের রেডিও স্টেশনগুলি সীমান্ত জুড়ে ভারত বিরোধী প্রচার চালাচ্ছে। কালাপানি, লিপুলেখ ও লিম্পিয়াধুরা যে নেপালেরই অংশ এবং এই বিষয়ে ভারত যে মিথ্যা দাবি করছে, সেই বক্তব্য তুলে ধরে প্রচার চালাচ্ছে নেপালের রেডিও স্টেশনগুলি বলে খবর। ভারত নেপাল সীমানা লাগোয়া পিথোরাগড় দারচুলা মহকুমার দান্তু গ্রামে বসবাসকারী এক বাসিন্দা জানাচ্ছেন বেশ কয়েকটি নেপালি রেডিও স্টেশন ভারত বিরোধী বার্তা প্রচার করছে বিভিন্ন নেপালি গানের সমপ্রচারের ফাঁকে ফাঁকে। নেপালি নেতাদের ভারত বিরোধী বক্তব্যও প্রচার করা হচ্ছে বলে খবর। নয়া নেপাল ও কালাপানি রেডিও নামে দুটি স্টেশন এই প্রচার চালাচ্ছে।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ৩
ফজর৫:০৪
যোহর১১:৪৮
আসর৩:৩৬
মাগরিব৫:১৪
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:২৪সূর্যাস্ত - ০৫:০৯
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৯০৯০.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.