নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১২ জুলাই ২০১৮, ২৮ আষাঢ় ১৪২৫, ২৭ শাওয়াল ১৪৩৯
থাইল্যান্ডের আনন্দে শামিল সারাবিশ্ব
জনতা ডেস্ক
গত ৮ জুলাই দেশি-বিদেশি উদ্ধারকারীদের সহায়তায় থাইল্যান্ডের গুহায় আটকে পড়াদের উদ্ধারে অভিযান শুরুর পর কয়েক দিন ধরে সেখানেই আটকে ছিল বিশ্বের চোখ। চলছিলো নানা উত্তেজনা ও গুঞ্জন। কী ঘটতে যাচ্ছে? আটকে পড়া শিশু ফুটবলাররা কি শেষ পর্যন্ত জীবিত অবস্থায় বের হয়ে আসতে পারবে_এমন সব প্রশ্ন উঁকি দিচ্ছিলো মানুষের মনে। উদ্ধার অভিযান সফলভাবে শেষ হওয়ার পর খুশিতে মাতোয়ারা থাইল্যান্ড। এ যেন এক অসম্ভবকে সম্ভব করার মিশন। থাইল্যান্ডের এ আনন্দে শামিল হয়েছে গোটা বিশ্বও। আন্তর্জাতিক সংবাদপত্রগুলোতে এ অভিযানের সফলতা নিয়ে উল্লাস দেখা গেছে। বিভিন্ন রাষ্ট্রপ্রধানরাও শিশু ফুটবলার ও উদ্ধারকারীদের অভিনন্দন জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট দিয়েছেন।

গত ২৩ জুন ফুটবল অনুশীলন শেষে ২৫ বছর বয়সী কোচসহ ওই ১২ কিশোর ফুটবলার গুহাটির ভেতরে ঘুরতে গিয়েছিল। কিন্তু বৃষ্টিতে গুহার প্রবেশমুখ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় তারা আর বের হতে পারেনি। রবিবার (৮ জুলাই) থাইল্যান্ড সরকার শিশুদের উদ্ধারে দেশি-বিদেশি বিশেষজ্ঞদের নিয়ে স্মরণকালের সবচেয়ে বড় উদ্ধার অভিযান শুরু করে। তিন দিনের সফল অভিযানে উদ্ধার হয় কোচসহ ১২ খুদে ফুটবলার। থাইল্যান্ডের ইংরেজি দৈনিক ব্যাংকক পোস্ট ও দ্য নেশন গত এক সপ্তাহ ধরেই এ উদ্ধার অভিযানের খবরকে প্রথম পাতায় গুরুত্ব সহকারে প্রকাশ করে আসছে। মঙ্গলবার অভিযান শেষ হওয়ার পর বুধবার দুটি সংবাদপত্রই মিশনের সফলতায় উল্লাস প্রকাশ করে শিরোনাম করেছে। দ্য নেশনের শিরোনাম ছিল: 'হুয়া! মিশন অ্যাকমপ্লিশড' (হুয়া! অভিযান শেষ হলো)। ব্যাংকক পোস্টের শিরোনাম ছিল: 'অল ওয়াইল্ড বোয়ার্স সেভড' (ওয়াইল্ড বোয়ার্স দলের সবাই এখন নিরাপদ)। মূল খবরের পাশাপাশি তারা উদ্ধার অভিযানের সময় পরিক্রমা ও একজন উদ্ধারকারীর সাক্ষাৎকার প্রকাশ করেছে। তাছাড়া উদ্ধার অভিযান পরিচালনার জন্য প্রযুক্তি উদ্যোক্তা এলন মাস্কের পক্ষ থেকে মিনি-সাবমেরিন পাঠানোর প্রস্তাব নাকচ করে দেওয়া নিয়েও সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে।

থাইল্যান্ডের গুহায় উদ্ধার অভিযানে সহায়তার জন্য চিকিৎসকসহ উদ্ধারকারীদের ১৯টি দল পাঠিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। এ চিকিৎসকই গুহার ভেতরে থাকা শিশুদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেছেন। থাইল্যান্ডের গুহার অভিযান সফল হওয়ার উচ্ছ্বাসটা বেশ জোরালোভাবেই প্রকাশ পেয়েছে অস্ট্রেলীয় সংবাদমাধ্যমগুলোতে। অনেক সংবাদপত্রই প্রথম পাতায় সংবাদটি প্রকাশ করেছে। ক্যানবেরা টাইমস শিরোনাম করেছে 'দ্য গ্রেট এসকেপ' (বড় বাঁচা)। সিডনি মর্নিং হেরাল্ড গুহায় আটকে পড়া শিশু ফুটবলারদের একটি রঙিন ছবিযুক্ত প্রতিবেদনের শিরোনাম করেছে: 'দে আর অল আউট' (ওরা সবাই এখন বাইরে)।

জার্মানিভিত্তিক সংবাদমাধ্যম স্পিগেল অনলাইন এ উদ্ধার অভিযানের নাম দিয়েছে 'লিবারেশন ফ্রম দ্য ডিপ' (গভীরতা থেকে পাওয়া মুক্তি)।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১৩
ফজর৪:৫৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৩৮
মাগরিব৫:১৭
এশা৬:৩২
সূর্যোদয় - ৬:১১সূর্যাস্ত - ০৫:১২
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৩০০.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.