নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শনিবার ১০ আগস্ট ২০১৯, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৬, ৮ জিলহজ ১৪৪০
সরকারের ডেঙ্গু খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ছাড়বে না : গয়েশ্বর
স্টাফ রিপোর্টার
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ইস্যুতে সরকারের প্রতি ইঙ্গিত করে দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, দেশে অদৃশ্যমান আর দৃশ্যমান ডেঙ্গু দেখছি গত ১০-১১ বছর যাবত। অবৈধ সরকার নামক ডেঙ্গুর কামড়ে দেশে এখন গণতন্ত্র নাই। হাসিনা সরকারের ডেঙ্গুর কামড়ে

খালেদা জিয়া ছটফট করছেন জেলখানায়, সেখানে ওষুধও নাই। ডেঙ্গুর কামড়ে মানুষ মরে পাঁচ দিনে সাত দিনে। কিন্তু খালেদা জিয়াকে যে ডেঙ্গু কামড় দিয়েছে সেই ডেঙ্গু তাকে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত ছাড়বে না। গতকাল শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের মওলানা আকরম খাঁ হলে অপরাজেয় বাংলাদেশ আয়োজিত 'ডেঙ্গুর ভয়াবহতা : জন আতঙ্ক ও সরকারের দায়বদ্ধতা' শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, রাজনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভূত, আইন এবং নিয়ম বহির্ভূত যত ধরনের নির্যাতন আছে খালেদা জিয়ার ওপরে চলছে। কিন্তু আমরা নির্বাক তাকিয়ে আছি- খালেদা জিয়ার তো জেলে যাওয়ারই কথা না, তার তো জেলে থাকারই কথা না। শেখ হাসিনা যখন তাকে জেলে নিয়েছেন তখন কি মুক্তি দিয়ে দেবেন, দেবেন না। বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হলে আর শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে কোনও কাজ হবে না জানিয়ে তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি অনেক হয়েছে, আজ হোক কাল হোক সরকার পতনের আন্দোলন ছাড়া দেশনেত্রীর মুক্তির আর কোনও বিকল্প পথ নাই।

গয়েশ্বর চন্দ্র বলেন, যে সরকারের নৈতিক ভিত্তি নাই কোনও জনসমর্থন নাই দায়বদ্ধতা নাই, সেই সরকারের প্রতি জনগণেরও কোনও দায়বদ্ধতা আছে বলে আমি মনে করি না।

শেখ হাসিনা যদি ছাড়বেই তাহলে খালেদা জিয়াকে জেলে নেবেন কেন- এমন প্রশ্ন করে তিনি দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা তাকে মুক্ত করতে চাই কি না সে সিদ্ধান্ত আমাদেরকে নিতে হবে। শান্তিপূর্ণ, শান্তিপূর্ণ করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে পারবো না। সুতরাং বিএনপির মতো একটা দল যে আন্দোলন করার যোগ্যতা রাখে সেই আন্দোলন না করলে খালেদা জিয়া মুক্তি পাবে না। এবার সরকার পতনের আন্দোলন অনিবার্য। দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বিএনপির এই নীতিনির্ধারক বলেন, ঘরে প্রোগ্রাম করে খালেদা জিয়ার মুক্তি হবে না। সুতরাং আপনারা স্ব-স্ব অবস্থান থেকে প্রস্তুতি নেন। তিনি আরও বলেন, ডেঙ্গু মোকাবিলায় সরকারের যে ব্যবস্থা নেয়ার কথা ছিল সেটা তারা গ্রহণ করেনি। সরকার সঠিকভাবে ব্যবস্থা নিলে আজকে ডেঙ্গুর এই অবস্থা হতো না।

সাবেক চিফ হুইফ জয়নুল আবদিন ফারুক বলেন, একটা তৃণমূলের নেতাকর্মীও কোনও দলে যোগ দেয়নি। যে দেশের সরকার ভোটের আগের রাতে ব্যালট দেয়ার সময় প্রিজাইডিং-পুলিং অফিসারকে বলে দেয়- 'পারলে এখনই গিয়ে কাজ সেরে নিও'- সেই দেশে নীতি-নৈতিকতা আর গণতন্ত্র বলতে কী অবশিষ্ট থাকে। সংগঠনের সহসভাপতি ভিপি ইব্রাহিমের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন সিরাজীর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন- এলডিপির প্রেসিডিয়াম সদস্য ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, বিএনপির সহ-শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ফরিদা মনি শহিদুল্লাহ প্রমুখ।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ২১
ফজর৪:৫৮
যোহর১১:৪৫
আসর৩:৩৬
মাগরিব৫:১৫
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১৭সূর্যাস্ত - ০৫:১০
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
১২৬৬৬.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.