নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২৮ ভাদ্র ১৪২৬, ১২ মহররম ১৪৪১
বায়রা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়
সিংগাইরে বারান্দার মেঝেতে চলছে শিক্ষার্থীদের ক্লাস
শিক্ষকদের নেই বসার কক্ষ
সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) থেকে সোহরাব হোসেন
মানিকগঞ্জের সিংগাইর উপজেলার বায়রা ইউনিয়নের ৯২ নং বায়রা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় দীর্ঘ ২৩ বছর অতিক্রম করলেও চলছে শ্রেণীকক্ষ সংকটে। বাধ্য হয়ে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করাতে হচ্ছে ভবনের বারান্দার মেঝেতে। সরকারিভাবে তেমন কোনো অনুদান না পাওয়ায় আসবাবপত্র সংকট, ব্যবহার অনুপযোগী টয়লেট ব্যবস্থা, কম্পিউটার সুবিধা না পাওয়া, ৪র্থ শ্রেণীর কর্মচারী ও শিক্ষক সল্পতাসহ নানা সমস্যায় জর্জরিত হয়ে পড়েছে বিদ্যালয়টি।

জানা গেছে, ১৯৯৬ সালে ৩৩ শতাংশ জমির ওপর বায়রা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়। সিংগাইর উপজেলা সদর থেকে বিদ্যালয়টির দূরত্ব প্রায় ৮ কিলোমিটার। ২০১৩ সালে বিদ্যালয়টি সরকারিকরণ হয় এবং ৪ তলা ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে তিনটি কক্ষ বিশিষ্ট একতলা ভবন নির্মাণ করা হয়। শিক্ষক ম-লীর জন্য নেই কোনো অফিস কক্ষ। শিক্ষকেরা বারান্দার এক কোণে স্বল্প জায়গায় একটি টেবিল ও কয়েকটি চেয়ার ফেলে গাদাগাদি করে বসে কাজ সারেন। ভবনের তিনটি কক্ষই শিক্ষার্থীদের শ্রেণীকক্ষ হিসেবে ব্যবহার করা হয়। এছাড়া প্রাক-প্রাথমিকের শিক্ষার্থীদের বারান্দার মেঝেতে বসিয়ে পাঠদান করাতে হয়। বর্তমানে ওই বিদ্যালয়ে শিশু শ্রেণীতে ৪৩ জন, প্রথম শ্রেণীতে ৩৯, দ্বিতীয় শ্রেণীতে ৬৮, তৃতীয় শ্রেণীতে ৩৯, চতুর্থ শ্রেণীতে ৩৯ ও পঞ্চম শ্রেণীতে ৩২ জন শিক্ষার্থী রয়েছে। প্রতি ৪০ জন শিক্ষার্থীর বিপরীতে একজন করে শিক্ষক থাকার কথা থাকলেও বিদ্যালয়টিতে ২৬০ জন শিক্ষার্থীর জন্য শিক্ষক আছেন ৫ জন। বিদ্যালয়টিতে ২০১৭ ও ২০১৮ সালের সমাপনী পরীক্ষায় একাধিক (এ+) প্লাসসহ শতভাগ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়ে লেখাপড়ায় গুণগত মানেও রয়েছে এগিয়ে। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটিতে বিভিন্ন সমস্যার কারণে ডিজিটাল যুগে আধুনিক শিক্ষা ব্যবস্থার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা।

ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিমু খানম বলেন, বিদ্যমান সমস্যাগুলোর সমাধানকল্পে বিদ্যালয়টি উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় এনে এলাকার কোমলমতি শিক্ষার্থীদের পাঠদানের সুযোগ সৃষ্টিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করছি। স্কুল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আব্দুল মান্নান মিয়া বলেন, নানা সমস্যায় জর্জরিত বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া ব্যাহত হচ্ছে।

এ ব্যাপারে সিংগাইর উপজেলা শিক্ষা অফিসার সৈয়দা নার্গিস আক্তার বলেন, বিষয়টি আমাকে কেউ অবগত করেনি। তারপরেও আমি স্কুলটিতে গিয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের করুণ অবস্থা দেখে নতুন ভবন নির্মাণের জন্য প্রস্তাব পাঠিয়েছি।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীমে - ২৬
ফজর৩:৪৭
যোহর১১:৫৬
আসর৪:৩৫
মাগরিব৬:৪১
এশা৮:০৪
সূর্যোদয় - ৫:১৩সূর্যাস্ত - ০৬:৩৬
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৮০১৩.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.