নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৩০ ভাদ্র ১৪২৫, ৩ মহররম ১৪৪০
চট্টগ্রামে জাতীয় পার্টি পুনরুজ্জীবিত
চট্টগ্রাম ব্যুরো থেকে নুরশাদুল হক
১৯৯০ সালে এরশাদ সরকারের পদত্যাগ এবং ২০০১ সালের জাতীয় নির্বাচনের আগে পার্টি তিন ভাগ হওয়ার কারণে প্রায় দুই যুগ ধরে চট্টগ্রাম মহানগরী ও জেলায় যে জাতীয় পার্টি বিলুপ্তির পথে ছিল সে জাতীয় পার্টি এখন চট্টগ্রামের রাজনীতিতে ফ্যাক্টর হয়ে দেখা দিয়েছে। গত ২-৩ বছর ধরে নগরী ও জেলায় মিছিল সমাবেশসহ পার্টির বিভিন্ন কার্যক্রমে সাধারণ মানুষ হতভাগ হয়ে গেছে। নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-৫ গুরুত্বপূর্ণ সংসদীয় আসন থেকে মহাজোট মনোনীত প্রার্থী জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বিপুল ভোটের মাধ্যমে জয়লাভ করে। গত সংসদ নির্বাচনের মতো সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে জাতীয় পার্টি বড় ধরনের ফ্যাক্টর বলে মনে করছে চট্টগ্রামের রাজনৈতিক মহল ও সাধারণ মানুষ। চট্টগ্রামে জাতীয় পার্টি হঠাৎ করে এই অবস্থানে আসার পিছনে সাধারণ মানুষ ও পার্টির নেতা কর্মীরা জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও নগর জাতীয় পার্টির সভাপতি সোলায়মান আলিম শেঠের ভূমিকা রয়েছে বলে মনে করেছেন। ৯০ সালে এরশাদ সরকারের সময় চট্টগ্রামের জাতীয় পার্টির ২ জন মন্ত্রী, ১ জন প্রতিমন্ত্রী ও ১ জন মেয়র ছিলেন, কিন্তু সরকার পদত্যাগের পর তারা কেউ পার্টির হাল ধরেনি। কেউ কেউ ক্ষমতার লোভে অন্য দলে যোগদান করেন।

বিগত জাতীয় নির্বাচনের আগে জাতীয় পার্টি তিন ভাগ হওয়া ও ২০০৩ সালে নগর কমিটির আহ্বায়ক ইয়াহিম বিন খলিলের অকাল মৃত্যুতে চট্টগ্রামের পার্টির অবস্থা তখন বিলুপ্তির পথে ছিল, নেতৃত্ব শূন্য হয়ে পার্টির নেতাকর্মীরা দিশেহারা হয়ে পড়েন। চট্টগ্রামে পার্টির অবস্থান শক্তিশালীকরণ ও দিশেহারা নেতাকর্মীদের সঠিক দিকনির্দেশনা প্রদানের জন্য কেন্দ্রীয় সংগঠন ২০০৩ সালে পার্টির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান ও শিল্পপতি সোলায়মান আলিম শেঠকে নগর জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক মনোনীত করে। সোলায়মান শেঠ নগর আহ্বায়ক মনোনীত হওয়ার পর চট্টগ্রাম নগরী ও জেলায় জাতীয় পার্টির কার্যক্রমে প্রায় চাঞ্চল্য ফিরে আসে। সক্রিয় হয়ে উঠেন ঝিমিয়ে পড়া নেতাকর্মীরা। সোলায়মান আলম শেঠের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় নগরী ও জেলায় অনুষ্ঠিত হতে থাকে জাতীয় পার্টির বিভিন্ন সভা সমাবেশ ও মিছিলসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক কার্যক্রম। তার প্রচেষ্টায় প্রতিষ্ঠিত হয় মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের যৌথ কার্যালয়।

সোলায়মান শেঠের আহ্বানে তিনবার চট্টগ্রামে সফরে আসেন পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। চট্টগ্রামে পার্টি চেয়ারম্যানের আগমনে সাধারণ নেতা কর্মীদের মধ্যে দেখা দেয় ব্যাপক চাঞ্চল্য। চট্টগ্রামের রাজনীতিতে জাতীয় পার্টি যে একটি বড় ধরনের ভূমিকা রাখতে পারে বলে মনে করছে চট্টগ্রামের সাম্প্রদায়িক ও রাজনৈতিক মহল। সম্প্রতি সোলায়মান শেঠকে নগর কমিটির সভাপতি নির্বাচিত করায় পার্টির মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে। গত বুধবার চট্টগ্রামে ব্যাপক গণসংযোগের মাধ্যমে সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় তাকে সংবর্ধনা দেয়া হয়। এতে নেতাকর্মীরা আশা করেন আগামী দিনের জাতীয় পার্টি চট্টগ্রামের রাজনীতিতে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে। নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে। অন্যদিকে চট্টগ্রামে পার্টির রাজনীতিতে কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান মোরশেদ মোরাদ ইব্রাহীম থাকলে ও পার্টিতে তার অবস্থান বিতর্কিত। পার্টি সংগঠিত নয়, পার্টির মধ্যে ভাঙন সৃষ্টি এবং নেতাকর্মীদের মধ্যে গ্রুপিং সৃষ্টিই ছিল তার প্রমাণ।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীআগষ্ট - ১৭
ফজর৪:১৫
যোহর১২:০৩
আসর৪:৩৮
মাগরিব৬:৩৪
এশা৭:৫০
সূর্যোদয় - ৫:৩৪সূর্যাস্ত - ০৬:২৯
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৪০৫.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.