নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৩০ ভাদ্র ১৪২৫, ৩ মহররম ১৪৪০
প্রকল্প ব্যয় : ৪শ কোটি থেকে ৫ হাজার কোটি টাকা!
প্রকল্পের ব্যয় বৃদ্ধি অনেকটা নিয়মে পরিণত হয়েছে। বর্তমানে কোনো প্রকল্প ব্যয় বৃদ্ধি ছাড়া যেন কল্পনাই করা যায় না। সেই সাথে সময় বৃদ্ধি, আর জনসাধারণের ভোগান্তি।

সহযোগী এক পত্রিকার সূত্র অনুযায়ী, ২০১০ সালে গৃহীত ৪১৪ কোটি টাকার প্রকল্পে গুলশান লেক খনন ও ওয়াকওয়ে নির্মাণের পরিকল্পনা ছিল। পরে সংশোধিত হয়ে এর সাথে যোগ হয় গুলশান-বনানী-বারিধারা এলাকার ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট। যানজট নিরসনের নামে লেকের উন্নয়ন প্রকল্প ব্যয় ৪১৪ কোটি টাকা থেকে বাড়িয়ে প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকায় উন্নীত করার প্রস্তাব করেছে রাজউক। ইতোমধ্যেই প্রথম ধাপে লেক খনন ও উন্নয়ন কাজে ২৬০ কোটি টাকা খরচ হয়ে গেলেও এলাকাবাসীর কাছে কোনো উন্নয়নই দৃশ্যমান নয়। কাজেই এই প্রকল্পের ব্যয় বৃদ্ধিতে জনগণের উপকারের চেয়ে দুর্নীতিবাজদের পকেট ভারি হওয়ার আশঙ্কা অমূলক নয়। বরং তারা এও মনে করছেন, এখন প্রায় ৫ হাজার কোটি টাকার কথা বলা হলেও দেখা যাবে ধাপে ধাপে বেড়ে তা ২০ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে। রাজউকের প্রকল্পের ইতিহাসই জনমনে এমন ধারণার সূত্রপাত ঘটিয়েছে। তাদের কাজই ধাপে ধাপে সময় ও ব্যয় বৃদ্ধি। এই সুযোগে অনিয়ম আর দুর্নীতি জেঁকে বসে।

এক পরিসংখ্যান থেকে দেখা গেছে, হাতিরঝিল প্রকল্প পাঁচ দফায় বাড়িয়েও রাজউক এখনও কাজ শেষ করতে পারেনি। এ প্রকল্পের ব্যয় বাড়ানো হয়েছে, ৭৬৩ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। আবার কুড়িল-পূর্বাচল ৩০০ ফুট সড়ক সংলগ্ন দু' পাশের ১০০ ফুট খাল উন্নয়ন প্রকল্প কাজের শুরুতেই প্রকল্প ব্যয় ৫ হাজার ৫৩০ কোটি টাকা থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ১৬ হাজার কোটি টাকা। পূর্বাচল নতুন শহরের প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছিল ১৯৯৫ সালে। দুই যুগ পার হয়ে গেলেও অর্ধেক কাজও শেষ হয়নি। ব্যয় বেড়েছে ৩ হাজার ৩১১ কোটি ৭৪ লাখ টাকা থেকে ৭ হাজার ৭৮২ কোটি ১৪ লাখ টাকা। রাজউকের সব প্রকল্পের একই চিত্র। সুতরাং গুলশান লেক উন্নয়নে রাজউকের বড় দুর্নীতির আশঙ্কা উড়িয়ে দেয়া যায় না। বরং প্রকল্পগুলোর সরকারি তদারক জনগণের দাবি।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীজুলাই - ১৬
ফজর৩:৫৫
যোহর১২:০৫
আসর৪:৪৪
মাগরিব৬:৫১
এশা৮:১৪
সূর্যোদয় - ৫:২০সূর্যাস্ত - ০৬:৪৬
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৯৩০.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.