নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৩১ ভাদ্র ১৪২৮, ৬ সফর ১৪৪৩
যুবসমাজ দক্ষকর্মী হিসেবে গড়ে উঠুক
দেশের ভৌত অবকাঠামো উন্নয়নের মেগাপ্রজেক্টের পাশাপাশি যুবসমাজ, নারী ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীকে কর্মসংস্থানের উপযোগী ও চাহিদাভিত্তিক কর্মী বাহিনী গড়ে তোলার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। যা দেশের বিকাশমান অর্থনীতিতে ব্যাপক অবদান রাখবে। এক্সসিলারেটিং অ্যান্ড স্ট্রেনদেনিং স্কিলস ফর ইকোনমিক ট্রান্সফারমেশন। (এএমএসইটি) শিরোনামে এ প্রকল্পটি কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের জুলাই ২০২১ থেকে ডিসেম্বর ২০২৬ মেয়াদে বাস্তবায়িত হবে। প্রকল্প ব্যয়ে ১ হাজার ৭২০ কোটি টাকা সরকার অর্থায়ন করবে আর বাকি ২ হাজার ৫৮৩ কোটি টাকা বিশ্বব্যাংক থেকে প্রকল্প সাহায্য হিসেবে পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম.এ মান্নান।

গত ৭ সেপ্টেম্বর রাজধানীর শেরে বাংলা নগরের এনইসি সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় এ প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন এ সভায়। দেশে দক্ষ জনগোষ্ঠীর অভাবের কথা বহু দিন থেকে শোনা যাচ্ছে। শুধু দেশে নয় প্রবাসী শ্রমিকদের পক্ষ থেকেও দক্ষ শ্রমিকের প্রয়োজনীয়তার কথা ব্যাপক আলোচনা হয়েছে। কিন্তু বাস্তবতা হচ্ছে দক্ষ শ্রমশক্তি গড়ার জন্য সরকারি বা বেসরকারি কোনো উদ্যোগ দেখা যায়নি। ফলে প্রবাসী শ্রমিকদের ব্যাপারে বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের অদক্ষ শ্রমিকদের ব্যাপারে দুর্নাম শোনা যায়। এদিকে দেশে ১০০টি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের শিল্প কারখানাগুলো উৎপাদনে গেলে দক্ষ শ্রমিকের চাহিদা দেখা দেবে। সেজন্য আগাম প্রস্তুত জরুরি। তাই সরকারের এ প্রকল্প অনুমোদন যথার্থ এবং সমপোযোগী।

প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে দেশের কারিগরি ও বৃত্তিমুলক শিক্ষার মান উন্নতি হওয়ার পাশাপাশি যুবসমাজের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধি পাবে। তাছাড়া যুবসমাজের নতুন নতুন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে এবং দেশে-বিদেশে মানসম্মত কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। এছাড়া প্রকল্পের আওতায় নারী ও সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর যুবসমাজ ও কর্মীদের ভবিষ্যৎ কর্মসংস্থানের সম্ভাবনা তৈরির জন্য তাদের চাহিদাভিত্তিক জনবল গড়ে তোলা সম্ভব হয়। আর তা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে বিশেষ অবদান রাখবে।

আমরা চাই প্রকল্পটি যথাযথভাবে বাস্তবায়িত হোক। যাদের দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য প্রকল্প নেয়া হয়েছে, তাদের সংশ্লিষ্টতা বাড়ুক প্রকল্পের সাথে। দক্ষ শ্রমিকই পারে দেশের অর্থনৈতিক কর্মকা-কে এগিয়ে নিতে। তাই দক্ষতা আর সেবাই হোক অর্থনীতির মুক্তি। আমরা সেই শুভ দিনের প্রতীক্ষায় রইলাম।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীসেপ্টেম্বর - ২২
ফজর৪:৩২
যোহর১১:৫২
আসর৪:১৪
মাগরিব৫:৫৮
এশা৭:১১
সূর্যোদয় - ৫:৪৭সূর্যাস্ত - ০৫:৫৩
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪৩৪৬.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.