নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বুধবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১ আশ্বিন ১৪২৭, ২৭ মহররম ১৪৪২
ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা
নওগাঁয় ধর্ষণের মামলায় ফাঁসানোর ভয় দেখিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান দেড় লাখ টাকা হাতিয়ে নিলেন
নওগাঁ প্রতিনিধি
নওগাঁর বদলগাছীতে ইউপির চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলার ভয়ভীতি দেখিয়ে টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী বদলগাছী থানায় ও ইউএনও বরাবর গত ১২ এ সেপ্টেম্ব্বর লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। লিখিত অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বিলাশবাড়ী গ্রামের মৃত মনছেরের ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক (৬২) ও একই গ্রামের প্রতিবেশী মৃত কায়েমউদ্দিনের ছেলে হাফিজার রহমানের সুসম্পর্ক থাকার কারণে বিভিন্ন সময় ধার দেনা লেনদেন চলে আসছিল। গত ০২ সেম্পম্বর সন্ধ্যায় বক্কর তার প্রতিবেশী হাফিজারের বাড়িতে তার ধারের টাকা আদায়ের জন্য যান। সে সময় হাফিজার বাড়িতে ছিলেন না কিন্তু তার স্ত্রী ১ সন্তানের জননী রেনুকা বাড়িতে ছিলেন। অল্প সময়ের মধ্যে হাফিজার বাড়িতে এসে তার স্ত্রী রেনুকার সঙ্গে হাফিজারের কথা বলতে দেখে ক্ষিপ্ত হয়ে স্ত্রীকে মারপিট করে ও হাফিজারকে গাল মন্দ করে ইউ.পি চেয়ারম্যানকে খবর দেন। খবর পাওয়া মাত্র বিলাসবাড়ি ইউ.পি চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান ওরফে কেটু সেখানে চৌকিদার নিয়ে হাজির হন। বক্করের সঙ্গে হাফিজারের স্ত্রীর অনৈতিক সম্পর্ক আছে, এমন অভিযোগ তুলে চেয়ারম্যান বৃদ্ধকে আটকে রেখে দুই লাখ টাকা দাবি করেন। প্রথমে বৃদ্ধ টাকা দিতে রাজি হননি। চেয়ারম্যান তখন থানা-পুলিশের কথা বলে হুমকি-ধমকি দেন। লোকলজ্জার ভয়ে বৃদ্ধ তাঁর আত্মীয় ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য হেলাল হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। হেলাল দেড় লাখ টাকায় মধ্যস্থতা করলে গভীর রাতে বৃদ্ধকে ছেড়ে দেওয়া হয়। পরদিন সালিস বৈঠক বসার আগেই তাকে ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়িতে ডেকে নেওয়া হয়। সেখানে তিনি ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে ইউপি সদস্য হেলালের হাতে দেড় লাখ টাকা তুলে দেন। এ সময় সেখানে ওয়ার্ড সদস্য আনছার আলী, প্রতিবেশী আজাদুল, সিরাজ ও হাসান উপস্থিত ছিলেন। দেড় লাখ টাকা বুঝে পাওয়ার পর ইউপি চেয়ারম্যান তার বাড়ির আঙিনায় সালিস বৈঠক বসান। বৈঠকে প্রায় দুই শতাধিক মানুষ উপস্থিত ছিলেন। ঘটনাটি প্রাথমিক ভাবে সংশ্লিষ্ট ইউ.পি চেয়ারম্যান ও স্থানীয় মাতব্বরা ধামা চাপা দেওয়ার চেষ্টা করলেও পরে ঘটনা ফাঁস হয়ে হয়ে যায়। আটকিয়ে যায় খোন ইউ.পি চেয়ারম্যান। ইউপি সদস্য হেলাল বৈঠকে বলেন, আমাকে যে টাকা দেওয়া হয়েছিল, সকলের সামনেই আমি চেয়ারম্যানকে দিয়েছি। মধ্যস্থতাকারী ইউপি সদস্য হেলাল হোসেন বৃদ্ধের অভিযোগ সালিস বৈঠকে ইউপি চেয়ারম্যান ৪০ হাজার টাকা জরিমানার রায় ঘোষণা করেন। বৈঠকেই দুই চৌকিদারকে দুই হাজার টাকা দেওয়া হয়। বাকি টাকা দিয়ে গ্রামের লোকজন ও থানা-পুলিশ মেটাবেন বলে সালিসে জানান চেয়ারম্যান। পরে ইউপি চেয়ারম্যান ও মধ্যস্থকারী ইউপি সদস্য হেলালের কাছে বাকি ১ লাখ টাকা ফেরত চাইতে গেলে তারা ফেরত দিতে অস্বীকার করে নানা টালবাহানা শুরু করেন।

চেয়ারম্যান বলেন, আমাকে সালিস বৈঠকের আগে কেউ টাকা দেয়নি। সালিস বৈঠকে ৪০ হাজার টাকায় ঘটনাটি আপোষ মিমাংসা হয়েছে। এখন আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। সাইদুর রহমান, ইউপি চেয়ারম্যান গ্রামের বাসিন্দা দিপু বলেন সালিস বৈঠক বসার আগেই ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে ইউপি সদস্য হেলালের হাতে দেড় লাখ টাকা তুলে দেওয়া হয়েছে। হেলাল আবার সবার সামনে সেই টাকা চেয়ারম্যানের হাতে দিয়েছেন কিন্তু সালিস বৈঠকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে মধ্যস্থতাকারী ইউপি সদস্য হেলাল হোসেন বলেন, সালিস বৈঠকে ইউপি চেয়ারম্যান ৪০ হাজার টাকায় ঘটনাটি মিটিয়েছেন। বৈঠকের আগে কত টাকা দেয়া হয়েছিল, তা জানতে চাইলে তিনি বলেন তাদের সামনেই চেয়ারম্যানকে দেড় লাখ টাকা দিয়েছি। বিলাশবাড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান ওরফে কেটু জানান আমাকে যে টাকা দেয়া হয়েছিল তা দিয়ে আপোষ মীমাংসা করে দিয়েছি। প্রতিপক্ষরা আমাকে হেনস্থ করার জন্য আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। এ বিষয়ে বদলগাছী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুহা. আবু তাহির বলেন, তিনি লিখিত একটি অভিযোগ পেয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত ও করা হয়েছে। এখন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ বিষয়ে বদলগাছী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা চৌধুরী জোবায়ের আহমেদ বলেন ঘটনাটির যেহেতু নারী শিশু মামলার আওতায় সেহেতু ঘটনাটি মীমাংসা করার ক্ষমতা ইউপি চেয়ারম্যানের নেই। তিনি আরো বলেন এ ঘটনায় ভুক্তভোগী আবু বক্কর সিদ্দিক একটি অভিযোগ করেছেন। অভিযোগটি থানার ও'সি তদন্ত রফিকুল ইসলামকে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছি। তদন্ত প্রতিবেদন পেলেই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীসেপ্টেম্বর - ২৭
ফজর৪:৩৩
যোহর১১:৫০
আসর৪:১০
মাগরিব৫:৫৩
এশা৭:০৬
সূর্যোদয় - ৫:৪৮সূর্যাস্ত - ০৫:৪৮
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬১৪০.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.