নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১২ অক্টোবর ২০১৭, ২৭ আশ্বিন ১৪২৪, ২১ মহররম ১৪৩৯
প্রতারিত হচ্ছেন ক্রেতা সাধারণ
সিংগাইরে ৫০ কেজির ব্যাগে ৪৬ কেজি সিমেন্ট
সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) থেকে মো. সোহরাব হোসেন
সিংগাইর উপজেলার শাহ সিমেন্ট কোম্পানির ডিলার মোসার্স ওয়াজ উদ্দিন এন্ড সন্সের বিরুদ্ধে প্রতি ব্যাগ সিমেন্টে ৪ কেজি করে ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সুযোগে ঐ ব্যবসায়ী ক্রেতাদের সাথে প্রতারণা করে হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। গত বৃহস্পতিবার উপজেলার ধল্লা বাজারে জনৈক নজরুল মেম্বারের নির্মাণাধীন বিল্ডিংয়ের জন্য ২৫০ ব্যাগ সিমেন্ট ক্রয় করেন। এ সময় ঐ সিমেন্টের ব্যাগ ওজনে কম মনে হলে পরিমাপ করে দেখা যায়, ৫০ কেজির স্থলে রয়েছে ৪৬ কেজি। পর্যায়ক্রমে সবগুলো সিমেন্টের ব্যাগ ওজন করে এর সত্যতা মেলে। এ ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে। ধামাচাপা দিতে দফায় দফায় চলছে দেন-দরবার।

সিমেন্ট ক্রয়কারী মো. নজরুল ইসলাম খান ওরফে নজু মেম্বার বলেন, ইতিপূর্বে শাহ সিমেন্টের ডিলার হাবিবুরের কাছ থেকে ২ হাজার ৫০০ ব্যাগ সিমেন্ট ক্রয় করি। গত বৃহস্পতিবারও ২৫০ ব্যাগ সিমেন্ট নিয়ে বিল্ডিংয়ের কাজ শুরু করি। এ সময় সন্দেহ হলে পরিমাপ করে দেখি প্রত্যেকটি ব্যাগেই ৩-৪ কেজি করে সিমেন্ট কম আছে। বিষয়টি স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের মাধ্যমে মীমাংসার কথা হয়েছে বিধায় আমি বিষয়টি থানা পুলিশকে মৌখিকভাবে অবগত করলেও লিখিত অভিযোগ করিনি। অপর ভুক্তভোগী ধল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন খানের ফেসবুক আইডির স্ট্যাটাস থেকে জানা যায়, মোসার্স ওয়াজ উদ্দিন এন্ড সন্সের স্বত্বাধিকারী হাবিবুর রহমান ও তার ভাই মোখলেছুর রহমান দুজনেই চিহ্নিত প্রতারক। র্দীঘদিন যাবৎ ক্রেতা সাধারণকে ধোঁকা দিয়ে বোকা বানিয়ে সিমেন্টের ব্যাগে ওজনে কম দিয়ে ও ৩৮ মিলি ঢেউটিনে ৪২ মিলির সিল ব্যবহার করে গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতারণা করছেন। সেই সঙ্গে এই প্রতারণার ঘটনা বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশের জন্য সাংবাদিকদের প্রতি অনুরোধ জানান তিনি। সূত্র জানায়, মোখলেছ ও তার ভাই হাবিবুর আবুল খায়ের গ্রুপের কতিপয় অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজশে সরাসরি কোম্পানির ফ্যাক্টরি থেকে সিমেন্ট ও ঢেউটিন সরবরাহ না নিয়ে ঢাকাস্থ আমিন বাজারে নৌপথে আসা সংশ্লিষ্ট কোম্পানির সিমেন্ট ঢেউটিন ও রড সরবরাহ নিয়ে থাকেন। আর এখানেই ওজনে কম দেয়ার কাজটি করা হয়ে থাকে বলে অপর একটি সূত্র জানায়। গত বৃহস্পতিবার এ গোমর ফাঁস হওয়ায় এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়। ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে শাহ সিমেন্ট কোম্পানির ইঞ্জিনিয়ার জাহিদুল ইসলাম ও মার্কেটিং অফিসার ফখরুল ইসলামসহ ডিলার হাবিবুর রহমানকে দৌড়ঝাঁপ করতে দেখা গেছে। অভিযুক্ত মোখলেছুর রহমান বলেন, এটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে মাত্র। এ নিয়ে লেখালেখি করার দরকার নাই।

এ ব্যাপারে ধল্লা ইউপি চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম ভূঁইয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আমি শুনেছি ধল্লা বাজার কমিটির লোকজন বসে বিষয়টি মীমাংসা করেছেন।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২৪
ফজর৪:৪৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৮
মাগরিব৫:২৯
এশা৬:৪২
সূর্যোদয় - ৫:৫৯সূর্যাস্ত - ০৫:২৪
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৮৬৩.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.