নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২১, ২৯ আশ্বিন ১৪২৮, ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩
সমালোচনা
মুজিব শতবর্ষে 'ভিন্নচোখ'
দ্বীপ সরকার
'ভিন্নচোখ' নিয়ে লিখতে গেলে আগে প্রথাগত লিটেল ম্যাগাজিন নিয়ে কিছু কথা বলে রাখা দরকার। আঠারো শতকের শেষের দিকে আমেরিকা এবং ইউরোপে লেখালেখিতে এবং আঁকায় যে চিরাচরিত এবং প্রথাগত ভঙিমা ও অবয়ব ভাঙার যে আন্দোলন গড়ে উঠেছিল সেখান থেকে লিটেল ম্যাগাজিনের সূচিত হয়। চিন্তা ও লেখনীর দায়ভার থেকে পুরাতুনকে ভাঙার যে ক্রিয়াশীল জাগরণ মূলত তা থেকে লিটেল ম্যাগাজিন আন্দোলন গড়ে ওঠে। সেটাও যুগে যুুগে তর্ক-বিতর্কের ভেতর প্রথা ভাঙা না ভাঙার যে সূক্ষ্ম আন্দোলন লেখিয়েদের মাঝে দানা বেঁধেছিল সেখানেও দেখা গেছে ধাঁচ বদল খুব কঠিনতর কাজ। ব্যবসায়িক মনোভাব থেকে স্রেফ শিল্পকে সুশ্রী অবয়ব দিতে এই যে একে অপরের যোগাযোগ এবং পাঠকদের রুচির দিকে নির্দেশিত করে গড়ে ওঠা লিটেল ম্যাগ বিপ্লব তা আজ অব্দি জিইয়ে আছে। এ দেশে হাজারও লিটেল ম্যাগ প্রকাশিত হয় এবং শত সহস্রের সম্পাদকবৃন্দ রয়েছেন, তাদের গড় চিন্তার পরিমাপ প্রায় একই রকম। কিছু গোষ্ঠীভিত্তিক গড়ে ওঠা লিটেল ম্যাগ অনেক সময় হালে পানি পায়নি। তবে 'ভিন্নচোখ' অনেক আলাদা। সুদীর্ঘ চিন্তা ও কাজের সমাহার সম্বলিত একটা লিটেল ম্যাগাজিন; এ কথা আমি ব্যতীত যারা 'ভিন্নচোখ' একবার স্পর্শ করেছেন তারাও হলফ করে বলতে পারবেন। এটা কোনো সাধারণ ও চিরাচরিত লিটেল ম্যাগাজিন নয়। এর কাজের ব্যাপ্তি বিশাল ও গভীর। কুরিয়ার থেকে যে দিন বইটি তুলতে যাই তখনই আঁতকে উঠেছিলাম। পরে অফিসে এসে যখন বইটি খোলসমুক্ত করি তখন ভেবেছি, এই বই সম্পর্কে আমার মতো স্বল্প জ্ঞানের লেখক আর কি লিখবো।

ভিন্নচোখ 'বাংলাবিশ্ব কবিতা সংখ্যা'। মার্চ ২০২১ ইং। এই বইটি কোনো প্রথাগত ছোট কাগজ নয় সেটা আগেই বলেছি। বইটির ওজন অনুমান করেছি পাঁচ কেজি হবে। ১০৩২ (এক হাজার বত্রিশ) পৃষ্ঠার, ১২৯ ফর্মার ঢাউস আকারের 'ভিন্নচোখ' এর কলেবর এবং ফাংশন অনেক ব্যতিক্রম ও ভিন্ন আঙিকের। আমি অন্ততপক্ষে পাঠক হিসেবে এমন সুন্দর বইয়ের সন্ধান এর আগে পাইনি। বাংলাদেশে এমন বিশালায়তনের লিটেন ম্যাগাজিন আমার জানা মতে মাত্র দু'চারটি হতে পারে। ভিন্নচোখের 'বাংলাবিশ্ব কবিতা সংখ্যা'র নিগুঢ় তথ্য উপাত্ত উদ্ধারের জন্য ওপার বাংলার কবি প্রবাল বসুর উপসম্পাদকীয় তথা 'ভাবনার নেপথ্যে' এবং সম্পাদক আলী আফজাল খানের 'সম্পাদকের কৈফিয়ত' বার বার পড়েছি। এ থেকে বুঝতে পারি বইটির কাজ করতে প্রায় আড়াই/ তিন বছর লেগেছে। ২০১৯ ইং সালের মাঝামাঝিতে কলকাতায় প্রবালকুমার বসুর সাথে বসে এর পরিকল্পনা করেন। সম্পাদক সাহেব তারপর থেকে মেধা ও মনন খাটিয়ে ধিরে ধিরে অগ্রসর হোন এর রূপ ও বলয় নিয়ে। 'ভিন্নচোখে'র এই সংখ্যাটি অন্যসব লিটেল ম্যাগাজিন থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন আঙিকে বিকাশ ঘটিয়ে পাঠক মহলে শ্রেষ্ঠত্যের প্রমাণ রেখেছে। একই বইয়ে একই মলাটে কবিদের পোট্রেট ছবি, জীবনী, কবিতা ভাবনা, পনেরো/ বিশটি কবিতা। এ যেন একজন কবিকে চেনা ও জানার সবচে নিকটতম গ্রন্থ। ছবি ও কবিতার মধ্যে আদিকালের এক সুসম্পর্ক ও যোগসূত্র রয়েছে। শিল্প বৈভবে চিন্তার খোরাক মেটাতে যেমন কবিতা জীবনস্ব/তেমনি একটা ছবি চিন্তার খোরাক মেটাতে সমর্থ রাখে। আর এই কাজটি সম্পাদক সাহেব করেছেন অতি দক্ষ ও সুচিন্তিতভাবে। এমন সম্পাদকদের হাতেই এমন সোনার ফসল ফলানো সম্ভব।

বইটিতে বাংলাদেশ ও ভারত মিলে ৫০ জন করে একশ জনের কবিতা সনি্নবেশিত করা হয়েছে। এর আরেক চমকপপ্রদ অংশ হলো এই একশ কবির পোট্রেট এঁকেছেন দেশি বিদেশি ৭৩ জন পোট্রেট শিল্পীবৃন্দ। বাংলাদেশ ছাড়াও ইন্ডিয়া, ইউক্রেন, বুলগেরিয়া, গ্রীস ও চেক প্রজাতন্ত্রের বিদেশি পোট্রেট শিল্পীদের একিভূত করেছেন যা খুব কঠিন ও কষ্ট সাধ্য বটে। 'ভিন্নচোখ'-এর বিশেষত্ব হলো 'ভিন্নচোখ'-এর তুলনা করা চলে না। এর আদর্শ ও ধর্ম একক। ১০০% আর্ট পেপারে ছাপা। চকচকে ঝকঝকে। অতি ব্যায়বহুল। শিল্প যার মাথায় তিনি এর জন্য পিছন ফিরে তাকান না। তবু সম্পাদক সাহেবকে খরচ বহনের ক্ষেত্রে কিছু শিল্পমনা মানুষ এগিয়ে এসেছেন এবং ফাইন্যান্সিয়াল সাপোর্ট করেছেন জন্য হয়তো আমারো সৌভাগ্য হয়েছে এমন সুন্দর বইয়ের পাঠক হওয়া এবং পৃথিবীর আলো বাতাস পেয়েছে ভিন্নচোখের 'বাংলাবিশ্ব কবিতা সংখ্যা' মার্চ ২১ ইং। বইটিতে দুই বাংলার জীবিত কবিদের নাম তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। তবে হালে পানি পেতে আড়াই/তিন বছর সময় অতিবাহিত হওয়ায় অনেকে কবিতা দিয়ে প্রয়াত হয়েছেন। তবে ভালো কথা যে তাদের বাদ দেয়া হয়নি। বইটি মুজিব শতবর্ষে প্রকাশিত হওয়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে উৎসর্গ করা হয়েছে। শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানো হয়েছে ভারতের দুই প্রবীণ কবি ও সাহিত্যিক নবনীতা দেবসেন ও পার্থপ্রতিম কাঞ্জিলালকে। বইয়ের সম্মুখ অংশে এই দুই প্রবীণ কবির পরিচিতি, ছবি ও এক ঝাঁক করে কবিতা দিয়ে বইটি শুরু করা হয়েছে। যা 'ভিন্নচোখ'-কে আরো বেশি মর্যাদাশীল করতে সহায়ক হয়েছে। জ্যেষ্ঠতার ভিত্তিতে কবি নির্বাচন করেছেন। কবি নির্বাচনে বয়সের বেড়াজাল অতিক্রম না করে বরং এতগুলো কবির সনি্নবেশ ঘটানোর ক্ষেত্রে বয়সকে একটা স্ট্যান্ডার্ট ধরে বইয়ের ক্রমবিন্যাস করেছেন_ এটা অতি ভালো দিক। এখানে শূন্য দশককে সীমানা ধরে কবি নির্বাচন করেছেন। অর্থাৎ শূন্য দশকের আগ পর্যন্ত সকল জীবিত কবি_ তবে অবশ্যই প্রতিশ্রুতিশীল, অগ্রসরমান কবিরাই স্থান পেয়েছেন এখানে। অপেক্ষাকৃত আধুনিক থেকে উত্তরাধুনিক, প্রগতিশীল ও প্রতিনিধিত্বশীল জীবিত সব কবিদের বিবেচনায় এনেছেন। কবি নির্বাচনে ভারত থেকে হেল্প করেছেন অনন্যা ব্যানার্জী। অনেক ক্যাটাগরিতে সম্পাদনার দায়িত্ব বণ্টন করেছেন অনেককে। বাকি সব সম্পাদক নিজেই একশ। তবে কবিতা নির্বাচনে কবিদের স্বাধীনতা এবং এখতিয়ারের প্রতি গুরুত্ব দিয়েছেন তিনি। কবিরা নিজেই স্বনির্বাচিত এবং তাদের পছন্দের সেরা কবিতা দিয়েছেন। কোনো কোনো প্রবীণ কবি সময়ের অভাবে কবিতা দিতে অপারগ হলেও তাদের কবিতা সমগ্র থেকে সেরা কবিতা বাছাই করে লিস্টেড করা হয়েছে, যা 'ভিন্নচোখে'-এর ফ্যাশন ও বিশেষত্বের কমতি হয়নি। এ সংখ্যাটিতে নারীদের অন্তর্ভুক্তি অপেক্ষাকৃত কম হলেও তা প্রশ্নাতীত । সম্পাদক এ ব্যাপারে স্পষ্ট করে বলেছেন 'নারী উন্নয়নের নামে তাই কোটার খোটা এই সংখ্যার জন্য প্রযোজ্য নয়'। সংখ্যাটি একটা সত্যিকারের দর্পণ করে তোলার জন্য এবং প্রথাগত লিটেন ম্যাগ থেকে বেরিয়ে এসে আলাদা বৈশিষ্টম-িত করতেই মূলত এমন চিন্তা করেছেন সম্পাদক মহোদয়। তর্ক-বিতর্ককে থুক্কি মেরে অগ্রসর হয়েছেন সমুখ পানে। ফলে পত্রিকা পেয়েছে নিজস্ব আকার ও আকর। পাঠক মহলে নিজগুণে, নিজের আকার ও বৈশিষ্ট্য নিয়ে বাংলাদেশে এমন কি সারা বিশ্বে যেখানে বাংলা ভাষার মানুষ আছে সকল স্থানে সমানভাবে সম্পদ হিসেবে বিবেচিত হবে এবং সমাদৃত হবে।

সংখ্যাটিতে একশ দুইজন (শ্রদ্ধাঞ্জলি দুই কবিসহ) কবির প্রায় পনেরশ বা তারও অধিক কবিতা স্থান পেয়েছে। সবগুলো কবির সবগুলো কবিতা পড়া সময়ের বাধ্যবাধকতার দরুন পাঠে নেয়া সম্ভব হয়নি। তবে অতি অল্প সময়ে প্রায় পঞ্চাশ/ষাট জনের ভালো মানের দু'চারটা কবিতা পাঠে নিতে পেরেছি এবং এর স্বাদ ও মণিমঞ্জুসা কুড়ে নিতে পেরেছি যা আমার জ্ঞান ও জানার ক্ষেত্রে বিশাল সম্পদ ও সঞ্চয় হয়ে থাকবে। এই স্বল্প সময়ে যতটুকু পাঠ নিয়েছি সেখান থেকে আমার মনে দাগ কাটার মতো বারো/তেরো জনের কবিতা আমাকে আলোড়িত করেছে। কবি মতিন বৈরাগীর 'আমার বিবর্ণমুখ' 'ধনবাদী অসুখে'। কবি ময়ুখ চৌধুরীর 'কোকিল আর পরী আপার কথা' 'বিচ্ছিন্ন প্রতিমাগুলী'। কবি সাজ্জাদ শরীফের 'জন্মান্তর' 'চাঁদে পাওয়া গাছ'। কবি কুমার চক্রবর্তীর 'নক্ষত্রের স্নায়ুর কাছে' 'অন্ধ গাছ' 'সাঁকো'। কবি ওবায়েদ আকাশের 'মুক্তি' 'অভিনেতা তীর্থঙ্কর' 'বৃষ্টি এবং মেঘলাগাছ'। কবি মাজুল হাসানের 'পিতামহ পিতা মহী' 'পাখি বিশারদ মা' 'মহল্লা'। কবি শঙ্খ ঘোষের 'বিপুলা পৃথিবী' 'কবর'। কবি প্রবাল কুমার বসুর 'ব্যক্তিগত স্মৃতিস্তম্ভের পাশে' 'অন্ধের ঈশ্বর'। কবি সুতপা সেনগুপ্তের 'অফুরন্ত নুররজাহান'। কবি পল্লব ভট্টাচার্যের 'কাহিনী শুরু' 'একটি খ্রিস্টীয় বিশ্বাস'। কবি সুবীর সরকারের 'গেরিলাযুদ্ধ' 'জার্নাল-১'। কবি শ্রীজাত বন্দোপাধ্যায়ের 'অপেক্ষা' 'যাদবপুর মাঠ পেরিয়ে' 'অভিশাপ'। কবি অনুপম মুখোপাধ্যায়ের 'চাঁদ ও এশিয়া' 'ইন্দ্রদেবী শচীদেব'।

এখানে কিছু তরুণ প্রতিভাবান কবির ক্ষেত্রে বলাই যায় তাদের লেখনীর ধাঁচ ও ভঙিমা খুবই স্বতন্ত্র। তাদের স্বর একেবারেই ভিন্ন মাত্রার রূপ ও স্বর পেয়েছে। তাদের মধ্যে অনুপম মুখোপাধ্যায়, অবায়েদ আকাশ অন্যতম। এটা নিতান্তই পাঠক হিসাবে আমার পর্যবেক্ষণ মাত্র। এতটুকু বাচ বিচার করার ক্ষমতা অবশ্যই আমার আছে এবং থাকবে। তবে এটা পাঠক ভেদে বিশ্লেষণ ভিন্ন হতেই পারে। বাদ বাঁকি যাদের আমি পাঠে নিতে পারিনি বা আমার সামান্য পর্যবেক্ষণের বাইরে থেকে গেলেন; এজন্য আমার সময় সঙ্কীর্নতা-ই দায়ী। সবগুলো কবি অতি পরিচিত, জ্ঞাণী, সামাজিক দায়বদ্ধতার ও প্রতিশ্রিুতিশীল। সেরার সেরা দিয়েই 'ভিন্নচোখে'-এর এ আয়োজন করেছেন এটা আমার জোরালো বিশ্বাস। 'ভিন্নচোখ' লিটেল ম্যাগাজিন জগতের মডেল হয়ে থাকবে_ এটাও আমার বিশ্বাস। কবিতা ভাবনার ক্ষেত্রে সকলেই সমানভাবে সহযোগিতা করেননি। কেউ কেউ দিয়েছেন, কেউ কেউ দেননি। তাতে 'ভিন্নচোখে'-এর সৌন্দর্যের কোনো কমতি ঘটেনি। পাঠকদের হৃদয়ের মণিকোঠায় খুব সহজে জায়গা করে নেবে এমন সরল প্রত্যাশা করাই যায়।

বইটি অতি উন্নত কাগজ, মজবুত মলাটে বাঁধাই। এস এম সুলতানের ড্রয়িং অবলম্বনে ধ্রব এষ-এর আঁকা প্রচ্ছদ। আর্ট পেপারের কভার। বাংলাদেশ মূল্য ২০০০/-, ভারত মূল্য ২০০০ রুপি, ইউএস মূল্য ৫০০ ডলার। 'ভিন্নচোখ' প্রকাশনী কর্তৃক প্রকাশিত। এমন সৌষ্ঠবম-িত সুন্দর বইটি পাওয়া যাবে পাঠক সমাবেশ (ঢাকা), বাতিঘর (ঢাকা), প্রকৃতি (ঢাকা), পড়ুয়া (বগুড়া), মাহবুব লাইব্রেরি (বরিশাল), ধ্যানবিন্দু (কলকাতা), ধানসিঁড়ি (কলকাতা)।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২৫
ফজর৪:৪৪
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৭
মাগরিব৫:২৮
এশা৬:৪১
সূর্যোদয় - ৬:০০সূর্যাস্ত - ০৫:২৩
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫২৮৫.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.