নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, রোববার ১৮ অক্টোবর ২০২০, ২ কার্তিক ১৪২৭, ৩০ সফর ১৪৪২
ঢাকা-৫ উপ-নির্বাচন : ক্যামেরা সাংবাদিক দেখে লাইনে দাঁড়িয়ে পড়লেন তারা
স্টাফ রিপোর্টার
মাতুয়াইল আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রের আশপাশে ঘোরাঘুরি করছিলেন তারা। বেসরকারি টিভি ক্যামেরা ও সাংবাদিক আসতে দেখে ভোটারদের জন্য নির্ধারিত লাইনে দাঁড়িয়ে যান। একজন একজন করে কেন্দ্রের ভেতরে ঢুকতে থাকেন। কেন্দ্রের মূল ফটকে দাঁড়ানো এক আনসার সদস্য তাদের বললেন, আপনারা ঢুকে ঘোরাফেরা করে চলে আসেন। গতকাল শনিবার ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচনে সকাল ৯টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়। সকাল ১০টা ১০ মিনিটে মাতুয়াইল

কেন্দ্রে গিয়ে এমন চিত্র দেখা যায়।

কেন্দ্রের মূল ফটকে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রাবাড়ী থানার উপপরিদর্শক (এএসআই) জিয়াউর ইসলামের কাছে জানতে চাইলাম, 'আপনারা এদের ঢুকতে দিলেন কেন?' উত্তরে তিনি বললেন, 'আপনারা তো আমাদের চেয়ে জ্ঞানী মানুষ।' লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা একজনের কাছে জানতে চাইলাম, 'নাম কী? ভোটার কি না।' তিনি কোনো উত্তর না দিয়ে হাসলেন। মাতুয়াইল আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় ১০১ নম্বর কেন্দ্র। সকাল ১০টার দিকে এখানকার ৫০১ নম্বর কক্ষে ঢুকে দেখা গেল বুথের ভেতরে ভোট দেয়ার জন্য নির্ধারিত কালো কাপড়ে ঘেরা জায়গায় দুজন ঢুকে ভোট দিচ্ছেন। পাশেই ছিলেন সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মো. আব্দুল মতিন, মো. আনোয়ারুল হক। আরো উপস্থিত ছিলেন শ্যামপুর থানার উপপরিদর্শক (এএসআই) সুখদেব। যারা ভোট দিচ্ছিলেন তাদের একজনের গলায় নৌকার প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারের কার্ড ঝোলানো ছিল। সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তা আব্দুল মতিনের কাছে জানতে চাই, 'দুইজন ঢুকে ভোট দিলেন কীভাবে?' উত্তরে তিনি বলেন, না করেছি। কিন্তু আমরা তো অন্য এলাকা থেকে এসেছি। আপনি প্রিসাইডিং কর্মকর্তার সাথে কথা বলুন। প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মো. মোবারক হোসাইন বলেন, এ রকম কোনো কিছু তার চোখে পড়েনি। এই কেন্দ্রে মোট ভোটার ২ হাজার ৮৫৯ জন। এখানে সব বুথেই শুধু নৌকা প্রার্থীর এজেন্ট ছিলেন। আর কোনো দলের এজেন্ট ছিলেন না। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মোবারক হোসেন বলেন, ধানের শীষের কয়েকজন এজেন্ট এসেছিলেন। তারা মনে হয়, আশপাশে চা-টা খাচ্ছেন।

নৌকার প্রার্থী মনুর দাবি ভোট দিয়েছেন, প্রিসাইডিং অফিসার বললেন না : আওয়ামী লীগ প্রার্থী কাজী মনিরুল ইসলাম মনু ভোট দেয়ার দাবি করলেও কেন্দ্রে তার ভোট দেয়ার কোনো তথ্য নেই। যাত্রাবাড়ী আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে মোট ৫টি কেন্দ্র। গতকাল শনিবার সকালে কাজী মনিরুল ইসলাম মনু এসে দক্ষিণ ভবনের তৃতীয় তলায় একটি বুথে যান। যেখান থেকে বের হয়ে এসে উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন ভোট দিয়েছেন। তবে তৃতীয় তলার ২৯ নম্বর কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার হামিদুল ইসলাম বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে হচ্ছে। আওয়ামী লীগ প্রার্থী ভোট দিয়েছেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তিনি এখনো আমার কেন্দ্রে ভোট দিতে আসেননি। ৪র্থ ও ৫ম তলায় পৃথক আরেকটি কেন্দ্র। সেই কেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মাহমুদুন্নবীও জানান তার কেন্দ্রে মনু ভোট দেননি। এ প্রসঙ্গে বিএনপি প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেন, তিনি (মনু) ঢাকা-৪ এর ভোটার। তিনি কীভাবে ভোট দেবেন? এটা হাস্যকর। আওয়ামী সন্ত্রাসীরা মিথ্যাচারই করে। এর আগে যাত্রাবাড়ীর আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে সকাল সোয়া ৯টার দিকে ভোট দেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী কাজী মনিরুল ইসলাম মনু। নেতাকর্মীদের নিয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করে ভোট কক্ষ যান। তার সাথে সাংবাদিকরা আসলে কাজী মনিরুল ইসলাম মনু নিজেই তাদের ভোট কক্ষে যেতে মানা করেন। পরে ভোট কক্ষে থেকে বেরিয়ে এসে তিনি বলেন, সার্বিক পরিস্থিতি ভালো। সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণ চলছে। নজিরবিহীন নির্বাচন হবে। জনগণের রায়ে আমি নির্বাচিত হবো।

প্রসঙ্গত, শনিবার সকাল ৯টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে একটানা বিকাল ৫টা পর্যন্ত চলে। দুটি আসনেই ইভিএমে ভোট গ্রহণ করা হয়। উপনির্বাচন নিয়ে জনমনে তেমন আগ্রহ দেখা না গেলও দুটি আসনের একটি রাজধানীতে হওয়ার জনগণের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহ দেখা গেছে। রাজধানীর ভোটের কারণে নির্বাচন কমিশনও বাড়তি সতর্কতা দেখিয়েছে। নিয়েছে বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থাও। রাজধানীর পূর্বাংশে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ১৪টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত ঢাকা-৫ আসনের উপনির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ছয় প্রার্থী। মূল লড়াইটা হচ্ছে আওয়ামী লীগের কাজী মনিরুল ইসলাম ও বিএনপির সালাহ উদ্দিন আহম্মেদের মধ্যে। এ আসনে ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৭১ হাজার ১২৯ জন। এ আসনে ১৮৭টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ৩১
ফজর৪:৪৭
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৪
মাগরিব৫:২৪
এশা৬:৩৮
সূর্যোদয় - ৬:০৪সূর্যাস্ত - ০৫:১৯
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৪৮০.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.