নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, রোববার ১৮ অক্টোবর ২০২০, ২ কার্তিক ১৪২৭, ৩০ সফর ১৪৪২
মহামারীতেও সবাইকে ছাড়িয়ে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে চীন
জনতা ডেস্ক
করোনা মহামারী পুরো বিশ্বকে বিপর্যস্ত করলেও সব দেশকে পেছনে ফেলে ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করেছে চীন। বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশই শুধু ঠেকাতে পেরেছে মন্দার প্রকোপ। বিশ্বব্যাংক বলছে, যেখানে পুরো বিশ্বের অর্থনীতি ৫ শতাংশের ওপরে সংকুচিত হবে, সেখানে বছর শেষে শুধু চীনের প্রবৃদ্ধি হবে দেড় শতাংশের বেশি।

লকডাউন কঠোর আর ভাইরাস বহনকারী মানুষ ট্র্যাক করার মধ্য দিয়ে অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে এসেছে চীনে করোনা মহামারী। পাশাপাশি অবকাঠামো প্রকল্পের জন্য কোটি কোটি ডলার বরাদ্দ রেখেছে চীন সরকার। সাধারণ মানুষকে দিয়েছে প্রণোদনা। করোনার প্রকোপ কমায় ঘুরে দাঁড়াচ্ছে দেশটির পর্যটন খাতও। ২০২০ সালের শেষ নাগাদ চীনের জিপিডি প্রবৃদ্ধির আকার হবে সাড়ে ১৪ ট্রিলিয়ন ডলার। যা বিশ্বের মোট জিডিপি প্রবৃদ্ধির সাড়ে ১৭ শতাংশ। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অন্যান্য দেশের চেয়ে চীন খুব দ্রুত এবং শক্তিশালী হয়ে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে। দেশটির সেবা খাতও এগিয়ে যাচ্ছে। গেলো সপ্তাহের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গেলো ৭ বছরের মধ্যে চলতি বছরই দেশটির সেবা খাতের কার্যক্রম সর্বোচ্চ হয়েছে। বাড়ছে ভোক্তা খরচ। এক দশকে উৎপাদন খাতও সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধিতে আছে। স্বাস্থ্য সুরক্ষা পণ্য রফতানিতে সারাবিশ্বে এগিয়ে আছে চীন। চীনা বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বলছে, দেশটিতে বাড়ছে বিদেশি বিনিয়োগ। যুক্তরাষ্ট্র চীনের বাণিজ্যিক দ্বন্দের মধ্যেও চীনে অব্যাহত আছে মার্কিনিদের বিনিয়োগ। তবে মহামারী অন্যান্য দেশের মতো চীনের দরিদ্র জনগোষ্ঠীকেও বিপাকে ফেলেছে। মহামারীতে লাখ লাখ মানুষ এক প্রদেশ থেকে অন্য প্রদেশে গেছে চাকরির সন্ধানে। অন্তত ৮ কোটি মানুষের চাকরি নেই দেশটিতে। ৯০ লাখ মানুষ শিগগিরই চাকরির বাজারে প্রতিযোগিতায় নামবে। চীনের স্বল্প আয়ের মানুষ, যাদের বার্ষিক আয় প্রায় সাড়ে ৭ হাজার ডলার, তাদের অবস্থা আরো করুণ। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ঘুরে দাঁড়ানোর যে পরিস্থিতি দেখা যাচ্ছে, সেটি ধনী জনগোষ্ঠীর ওপর নির্ভর করেই হচ্ছে। তারা বলছেন, চীন যুক্তরাষ্ট্রের দ্বন্দ্ব যদি যুক্তরাষ্ট্র চলমান রাখে, তাহলে পিছিয়ে পড়বে মার্কিনিরাই। ২০৪০ নাগাদ অনেকটাই পিছিয়ে পড়বে চীনের থেকে। উন্নত দেশগুলো যদি যুক্তরাষ্ট্রের সাথে স্থিতিশীল সম্পর্ক বজায় রাখে, তাহলে পিছিয়ে পড়বে চীন।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২৩
ফজর৪:৪৩
যোহর১১:৪৩
আসর৩:৪৯
মাগরিব৫:২৯
এশা৬:৪২
সূর্যোদয় - ৫:৫৯সূর্যাস্ত - ০৫:২৪
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৮৫৪.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.