নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ৯ নভেম্বর ২০১৮, ২৫ কার্তিক ১৪২৫, ২৯ সফর ১৪৪০
মানিকগঞ্জ-২
বিএনপি'র মনোনয়ন প্রত্যাশী ২ উপজেলা চেয়ারম্যান মামলার ভয়ে মাঠে নেই
সিংগাইর (মানিকগঞ্জ) থেকে মো. সোহরাব হোসেন
মানিকগঞ্জ-২ (সিংগাইর-হরিরামপুর-সদরের আংশিক) আসনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী দুই উপজেলা চেয়ারম্যান মামলার ভয়ে নির্বাচনী মাঠে নেই। মামলা -হামলা ও পুলিশি হয়রানির ভয়ে তারা নির্বাচনী এলাকায় নেই বলে চেয়ারম্যানদ্বয়ের কর্মী সমর্থকরা দাবি করেছেন। এরা হচ্ছেন- সিংগাইর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আবিদুর রহমান খান রোমান ও হরিরামপুর উপজেলা চেয়ারম্যান সাইফুল হুদা চৌধুরী শাতিল। দু'জনেরই রয়েছে এলাকায় ব্যাপক জনসমর্থন।

সিংগাইর উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আবিদুর রহমান খান রোমান ছাত্র জীবনে রাজনীতিতে প্রবেশ। তিনি সিংগাইর ছাত্র উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও যুবদলের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ১৯৮৯-৯০ সালে সিংগাইর ডিগ্রি কলেজছাত্র সংসদের ভিপি ছিলেন। বর্তমানে সিংগাইর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। গত উপজেলা নির্বাচনে ভোটের কয়েক দিন আগে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে সমর্থন পেয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি'র মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে মতবিনিমিয় ও গণসংযোগ শুরু করলেও এখন তাকে নির্বাচনী মাঠে দেখা যাচ্ছে না। তার বিরুদ্ধে সিংগাইর থানা পুলিশের দায়েরকৃত নাশকতা মামলা হলে তিনি গা-ঢাকা দেন। এ ব্যাপারে আবিদুর রহমান খান রোমান মুঠোফোনে বলেন, জামিন হওয়া পরেও আমিসহ বিএনপির অন্য কোনো নেতাকর্মীই নির্বাচনী মাঠে দাঁড়াতে পারছেন না। যেখানে প্রধানমন্ত্রী নিজেও বলেছেন এসব গায়েবী মামলা হবে না। সেখানে বিভিন্ন মামলায় তার নেতাকর্মীদের হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন রোমান। অপর প্রার্থী হরিরামপুর উপজেলা চেয়ারম্যান সাইফুল হুদা চৌধুরী শাতিল মাসাফি গ্রুপের চেয়ারম্যান । নম্র, ভদ্র ও বিনয়ী ক্লিন ইমেজ সম্পন্ন শাতিল একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে তার প্রার্থিতা ঘোষণা দিয়ে গণসংযোগ শুরু করলে বাধ সাধে পুলিশ। হয়রানির শিকার হন তিনি। ইতোমধ্যে ৩টি নাশকতার মামলা মাথায় নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন শাতিল। বিভিন্ন ধর্মীয় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রয়েছে তার ব্যাপক অবদান। এ ব্যাপারে সাইফুল হুদা চৌধুরী শাতিল মুঠোফোনে বলেন, রাষ্ট্র যন্ত্র ব্যর্থ হয়ে আমি ও আমার নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে দাবিয়ে রাখা হচ্ছে। পাশাপাশি এ সব মামলা দিয়ে পুলিশ চাকরি নেয়ার সময়ের শপথও ভঙ্গ করেছেন। এ দিকে সংশ্লিষ্ট উপজেলা পরিষদ অফিসে চেয়ারম্যানদ্বয়কে না পাওয়ায় জনসেবা বিঘি্নত হচ্ছে। পাশাপাশি দাফতরিক কাজেও ব্যাহত হচ্ছে। এ দু'উপজেলা চেয়ারম্যান ছাড়াই বিএনপি'র অন্যান্য মনোনয়ন প্রত্যাশীরা হচ্ছেন- জেলা বিএনপির সভাপতি আফরোজা খান রিতা ও সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জি. মঈনুল ইসলাম খান শান্ত। বিএনপির দলীয় সূত্রে দাবি সম্ভাব্য প্রার্থীদের পাশাপাশি কর্মী সমর্থকেরা মামলা ও গ্রেফতার আতংকে এলাকায় নেই ।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১৬
ফজর৪:৫৬
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৩৭
মাগরিব৫:১৬
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১৪সূর্যাস্ত - ০৫:১১
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৭০৩.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.