নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ৯ নভেম্বর ২০১৮, ২৫ কার্তিক ১৪২৫, ২৯ সফর ১৪৪০
চট্টগ্রামের ১৬ থানায় ২ মাসে ১৪৯টি গায়েবি মামলা
পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি
চট্টগ্রাম নগরীর ১৬টি থানায় গত দুই মাসে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ১৪৯টি 'গায়েবি' মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে বিএনপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। এসব মামলায় বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মী ও সমর্থক মিলে প্রায় ৭ হাজার জনকে আসামির তালিকায় লিপিবদ্ধ করেছে পুলিশ। এ পর্যন্ত ৫ শতাধিক নেতাকর্মী ও সমর্থককে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে।

নগর বিএনপির দেয়া তথ্যমতে, গত ১ সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বর মাসের ৫ তারিখ পর্যন্ত দুইমাসে নগরীর ১৬টি থানায় ১৪৯টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এরমধ্যে পতেঙ্গা থানায় ১৬, বন্দর থানায় ১২, ইপিজেড থানায় ১৫, খুলশি থানায় ৮, পাহাড়তলী থানায় ৯, হালিশহর থানায় ৫, আকবর শাহ থানায় ৫, সদরঘাট থানায় ৯, কোতোয়ালী থানায় ১১, চকবাজার থানায় ৫, বাকলিয়া থানায় ১০, চাঁন্দগাও থানায় ১৩, পাঁচলাইশ থানায় ৭, বায়েজিদ থানায় ১০,

ডবলমুরিং থানায় ৪ ও কর্ণফুলী থানায় ১০টি দায়ের করা হয়েছে। চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহদপ্তর সম্পাদক ইদ্রিস আলী এ তথ্য জানান। এছাড়াও পটিয়া থানায় ২ হাজার জনকে আসামি করে পৃথক দুটি গায়েবি মামলা রুজু হয় বলে জানান যুবদল নেতা শাহাজাহান চৌধুরী।

সিএমপির কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মহসীন বলেন, কোন ধরণের গায়েবি বা মিথ্যা মামলা নয়। বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে সুনির্দ্দিষ্ট অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তিনি গত দুই মাসে ১০টি রাজনৈতিক মামলা দায়েরের কথা স্বীকার করেন।

মহানগর বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গাজী সিরাজ বলেছেন, সংলাপ শুরুর পর থেকে এই কয়দিনে মামলা দায়েরের সংখ্যা আরো বেড়ে গেছে। গড়ে প্রতিটি থানায় প্রতিদিন ২/৩টি করে কোন ঘটনা ছাড়াই পুলিশ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা করছে। অন্য দিকে রাতে বা দিনে নেতাকর্মীদের বাসা বাড়িতে গিয়ে তল্লাশীর নামে হয়রানি করছে।

তিনি বলেন, প্রতিটি মামলায় নগর বিএনপির শীর্ষ নেতাদের প্রধান আসামি করা হচ্ছে। এ পর্যন্ত কমপক্ষে ৫শ' নেতা-কর্মী জেলে রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, গায়েবি মামলায় আসামি হয়ে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মসহ অন্তত ৭ হাজার কর্মী সমর্থক ঘরছাড়া হয়েছে।

নগর বিএনপির সহদপ্তর সম্পাদক ইদ্রিস আলী জানান, গত রবিবার রাতে ঢাকার মতিঝিল থানা ডিবি পুলিশ মামলার জামিন নিতে যাওয়া নগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম, কোতোয়ালী থানা বিএনপির সাধারন সম্পাদক জাকির হোসেন, নগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া ও নগর ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক জমির উদ্দীন নাহিদকে একটি হোটেল থেকে গ্রেফতার করেছে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১৬
ফজর৪:৫৬
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৩৭
মাগরিব৫:১৬
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১৪সূর্যাস্ত - ০৫:১১
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৬৮৮.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.