নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ৯ নভেম্বর ২০১৮, ২৫ কার্তিক ১৪২৫, ২৯ সফর ১৪৪০
ঢাবিতে স্মারক বক্তৃতায় বক্তরা
বঙ্গবন্ধু স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করেছিলেন তাজউদ্দিন
বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার
বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী, মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, জাতীয় নেতা তাজউদ্দীন আহমদের জন্মবার্ষিকী স্মরণে 'তাজউদ্দীন আহমদ স্মারক বক্তৃতা' অনুষ্ঠান গতকাল বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে

উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান। প্রধান অতিথি'র বক্তব্যে তিনি বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাস লিখতে গেলে স্বভবতই তাজউদ্দিনের নাম চলে আসবে। কেননা তার জন্ম হয়েছিল বঙ্গবন্ধুর সাথে রাজনীতি করার জন্য। বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখেছিলেন, আর যে ব্যক্তিটি তার প্রজ্ঞা, মেধা, বুদ্ধি দিয়ে বাংলাদেশকে সবচেয়ে বেশি সাহায্য করেছিলেন তিনি হলেন তাজউদ্দিন আহমেদ। তিনি আজীবন তাঁর আদর্শে অটল ছিলেন। কখনো আপোস করেননি।

এসময় তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের আন্দোলন বিবেচনা করলে প্রথমেই আসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কথা। তারপর তার ছায়াসঙ্গী তাজউদ্দিন আহমদের কথা। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার আজ প্রায় ৫০ বছর পর দুঃখের সাথে বলতে হয় তাদের সম্পর্কে আমার আমাদের জানার পরিধি অনেক কম।

অনুষ্ঠানে স্মারক বক্তৃতা প্রদান করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ইতিহাস বিভাগের বঙ্গবন্ধু চেয়ার অধ্যাপক ড. মুনতাসীর মামুন। এতে তিনি বলেন, তাজউদ্দীন আহমদকে আমরা অনেকেই এখন 'বর্জন' এর চেষ্টা করি। কিন্তু ইতিহাসের সামান্য ছাত্র হিসেবে বলতে পারি তাকে বাদ দিয়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাস তাকে বাদ দিয়ে লেখা যায় না, যাবে না। বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠার স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করেছিলেন তাজউদ্দিন আহমদ। বর্তমান তাকে উপেক্ষা করতে পারে কিন্তু ভবিষ্যতের পক্ষে তাকে উপেক্ষা করা সম্ভব নয়।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তাজউদ্দিন আহমদের কন্যা ও সংসদ সদস্য সিমিন হোসেন রিমি বলেন, পৃথিবীতে এমন কিছু মানুষ আছে যারা সব অসুন্দরকে সুন্দর করে তোলেন। তাজউদ্দিন আহমদ ছিলেন এমনই একজন মানুষ। এর আগে অনুষ্ঠানে পরীক্ষায় ভাল ফলাফলের জন্য শান্তি ও সংঘর্ষ বিভাগের ছাত্র মো. আফতাবকে স্বর্ণপদক প্রদান করা হয়। বৃত্তি দেয়া হয় একই বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী নওশীন আকন্দকে। পরে তাজউদ্দিন আহমদ স্মৃতি রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে টাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. কামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ ও প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, শান্তি ও সংঘর্ষ বিভাগের চেয়ারম্যান তৌহিদুল ইসলাম প্রমুখ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন তাজউদ্দিন আহমদের জেষ্ঠ্য কন্যা শারমিন আহমদ।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১৬
ফজর৪:৫৬
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৩৭
মাগরিব৫:১৬
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:১৪সূর্যাস্ত - ০৫:১১
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২৭৩৬.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.