নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, রোববার ২২ নভেম্বর ২০২০, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ৬ রবিউস সানি ১৪৪২
জনতার মত
মাদকের ভয়াবহ বিস্তার রোধ করতে হবে
মো. এনামুল হক লিটন ও সাহেনা আক্তার হেনা
সমাজের রন্ধ্রে-রন্ধ্রে আজ মাদকের ভয়াল বিস্তার। সর্বনাশা মাদকদ্রব্য আমাদের গোটা সমাজকে গ্রাস করেই চলেছে। এর শিকার যুব-তরুণ সমাজ। মাদক নিয়ে অতীতে অনেক লেখালেখি হয়েছে, এখনো হচ্ছে। আইন প্রয়োগকারী সংস্থা সমাজ থেকে মাদক নির্মূলে নানা পদক্ষেপও নিয়েছে। তবুও তা বন্ধ করা যাচ্ছে না। মাদকের বিরুদ্ধে যতই পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে, ততই অভিনব কৌশলে বাড়ছে এর ব্যবহার। মাদক ব্যবসা আর ব্যবহার বৃদ্ধির সঙ্গে-সঙ্গে বেড়েই চলেছে চুরি-ছিনতাই, বখাটেপনা ইভটিজিং, ধর্ষণসহ নানা অপরাধ। একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট সীমান্ত পথ দিয়ে মাদকের চালান এনে সারাদেশে ছড়িয়ে দিচ্ছে। মাঝে মধ্যে এরা গ্রেফতার হলেও ধরাছোঁয়ার বাইরে থেকে যায় আসল হোতারা। ফলে ওই সিন্ডিকেটের তৎপরতায় দ্রুত জামিনে বেরিয়ে এসে মাদক ব্যবসায়ীরা পুনরায় আগের পেশায় ফিরে যায়। আবার মাদকের বিস্তার নিয়ে একে অপরকে ঘায়েল করার জন্য নানা অপকৌশল, হানাহানি, খুন-খারাবি, মামলা-পাল্টা মামলা প্রায় নৈমিত্তিক ঘটনায় পরিণত হয়েছে। এর বাইরে মাদকাসক্তির কারণে সামাজিক অবক্ষয়ের নানা কুৎসিত চিত্র ধরা পড়ছে একের পর এক। নানা ঘটন-অঘটনের নেপথ্যে রয়েছে মাদক ব্যবসায় আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টার কারণ। মাদকের ব্যবহারজনিত সমস্যাটি নতুন নয়। আশির দশক থেকে শুরু হয়ে ক্রমে তা আজ মারাত্মক সামাজিক সমস্যায় পরিণত হয়েছে। মাদকের সর্বনাশা ছোবল থেকে যুবসমাজকে রক্ষায় আইন প্রয়োগকারী সংস্থা যতই পদক্ষেপ গ্রহণের কথা মিডিয়ায় বলছে এবং অভিযান চালাচ্ছে, কার্যত: কোনোভাবেই যেন বন্ধ করা যাচ্ছে না এ ব্যবসা। উপরন্তু প্রশাসনের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে নিত্যনতুন নামে মাদকের প্রসার ঘটিয়ে চলছে মুনাফালোভী দুষ্টচক্রের দল। ইয়াবা, ফেনসিডিল গাঁজাসহ নানা নামের মাদকদ্রব্যের চালান নিয়ে আসছে দেশে এবং ছড়িয়ে দিচ্ছে সব জায়গায়। বাংলাদেশে বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য প্রবেশ করছে জল-স্থল-অন্তরীক্ষে। মায়ানমার ও ভারত থেকে অবাধে প্রবেশ করছে এসব মাদকদ্রব্য। ফলে অভিভাবকরাও এ নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন। মাদকদ্রব্য এখন সহজলভ্য হওয়ায় বিভিন্ন পেশার মানুষের সঙ্গে উঠতি বয়সের যুবক ও স্কুল-কলেজের ছাত্ররাও হেরোইন, গাঁজা, ইয়াবা ও ফেনসিডিলে আসক্ত হয়ে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছে। আমরা মনে করি মাদকদ্রব্যের অবাধ বিস্তার ও অপব্যবহার রোধে সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে মাদকের কবল থেকে রক্ষার জন্য সবাইকে একসঙ্গে দায়িত্ব পালন এবং মাদক ব্যবসায় জড়িতদের আইনের হাতে সোপর্দ করতে হবে। একই সঙ্গে মাদকদ্রব্য যাতে দেশে প্রবেশ করতে না পারে সে জন্য দেশের অভ্যন্তরে এদের যে চেইন রয়েছে, তা ভেঙে দিতে হবে। এ জন্য ব্যাপক গণসচেতনতা গড়ে তোলার পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের মাধ্যমে দেশ ও সমাজকে মাদকমুক্ত করতে হবে।

মো. এনামুল হক লিটন ও সাহেনা আক্তার হেনা : লেখক

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ৩০
ফজর৫:০২
যোহর১১:৪৭
আসর৩:৩৫
মাগরিব৫:১৪
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:২২সূর্যাস্ত - ০৫:০৯
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬৯৩২.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.