নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, রোববার ২২ নভেম্বর ২০২০, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ৬ রবিউস সানি ১৪৪২
রাজধানীতে নিয়োগহীন ডোম দিয়ে চলে ময়নাতদন্তের কাজ
স্টাফ রিপোর্টার
ঢাকার সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে এনাটমি বিভাগ থেকে একজনকে ধারে এনে চলছে মর্গের কাজ। বাকিরা নিয়োগহীন। ঢাকা মেডিকেলে পারিবারিকভাবে ডোমের কাজ করেন দুই ভাই। বাকি চারজন আছেন বেসরকারিভাবে। প্রায় একই অবস্থা সলিমুল্লাহ মেডিকেলের। কর্তৃপক্ষের দাবি, নিয়োগ বন্ধ এবং সম্মান-সুবিধা না থাকায় শিক্ষিতরা আসতে চান না এ পেশায়। ডোম মুন্নার যে ঘটনাটি প্রকাশ পেয়েছে তা অমানবিক, ভীতিকর এবং অমানুষিক। দিনের পর দিন মৃত কিশোরী তরুণীদের সাথে যৌনসম্ভোগ। রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের সহকারী ডোম মুন্না ভক্তকে গ্রেফতারের পর শব্দই হারিয়ে গেছে বিশ্লেষণের।

২০১৭ সালের অক্টোবরে যাত্রা শুরু করে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গটি। যার কারণে অনেকটাই চাপ কমে যায় ঢাকা মেডিকেলের মর্গে। কাগজে কলমে এখনো কোন ডোম নেই এখানে, এনাটমি বিভাগ থেকে প্রেষণে আসা যতন কুমার সরকার সামলাচ্ছেন দায়িত্ব।

প্রতিদিন গড়ে ৬/৭টি মরদেহ আসে এখানে। নিজের স্ত্রীর বড়ভাই জীবন ও ভাগ্নে মুন্নাকে মর্গে কাজে লাগান যতন। রয়েছে আরো ২ জন সহকারি। সবই অনানুষ্ঠানিকভাবে। কিন্তু বিকৃত যৌনাচারে ভাগ্নের সম্পৃক্ততা প্রশ্নের মুখে ফেলেছে তাকেও।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে ডোম হিসেবে আছেন দুই ভাই। বাবার পথ ধরে এসেছেন এ পেশায়। সহকারী হিসেবে রয়েছে আরো চারজন। কিন্তু একেবারেই হাতে কলমে শিখেছেন লাশকাটা। প্রশ্ন, সোহরাওয়ার্দীর ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবে না তো?

ময়নাতদন্ত হয় ঢাকার তিন হাসপাতালে। যার আরেকটি সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ। সেখানেও ডোম শ্যামলের সাথে রয়েছেন একজন নারী সহকারী। সব মিলিয়ে দেখা যায়, প্রতিদিন গড়ে ৭/৮টা মৃতদেহ আসা বড় হাসপাতালে ডোম আছেন মাত্র ৪ জন।

রাতে কোথাও ময়নাতদন্ত হয় না। ব্রিটিশ এ পদ্ধতি থেকে চাইলেও বেরিয়ে আসতে পারছে না হাসপাতালগুলো। আধুনিক সরঞ্জামাদি, লোকবল এবং প্রশিক্ষণের অভাবকেই দায়ী করছেন চিকিৎসকরা।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১
ফজর৫:০৪
যোহর১১:৪৮
আসর৩:৩৫
মাগরিব৫:১৪
এশা৬:৩১
সূর্যোদয় - ৬:২৪সূর্যাস্ত - ০৫:০৯
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৭০৬৪.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.