নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪০
সাংবাদিক সম্মেলন
টঙ্গীতে বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে হামলার ঘটনায় সা'দপন্থিদের বিচারের দাবি
টঙ্গী থেকে দেওয়ান রফিকুল ইসলাম মাখন
টঙ্গীতে জোড় ইজতেমায় হামলাকারী সা'দপন্থিদের বিচারের দাবি জানিয়েছেন টঙ্গীর উলামা মাশায়েখ ও তাবলিগের সাথীরা। টঙ্গী বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে জোড় ইজতেমার প্রস্তুতিকালে ধর্মপ্রাণ মুসলি্লদের ওপর বর্বরোচিত হামলায় প্রশাসনের নীরব ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেনে উলামা মাশায়েখ ও তাবলিগের সাথীরা। হকপন্থি আলেমদের পরামর্শ সভার সিদ্ধান্তে যেভাবে যুগ যুগ ধরে তাবলিগের কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে ঠিক সেইভাবে ইজতেমার নিয়ন্ত্রণ চান তারা। তাদের দাবি, তাবলিগ জামাতের স্বঘোষিত আমীর

মাওলানা সা'দের পদস্খলন ঘটেছে। তিনি কুরআন-সুন্নাহর প্রকৃত আকিদায় ফিরে আসা না পর্যন্ত তাবলিগ জামাতে তার কোনো কর্তৃত্ব ও অংশগ্রহণ মেনে নেয়া হবে না। আসন্ন জোড় ও বিশ্ব ইজতেমার প্রস্তুতি কাজে অংশগ্রহণ কারী তাবলিগি সাথী ও নিরীহ মাদরাসা ছাত্রদের ওপর গত ১ ডিসেম্বর ওয়াসিফ-নাসিমপন্থি সন্ত্রাসীদের নগ্নহামলার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে গতকাল বুধবার টঙ্গী প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে টঙ্গীর উলামা মাশায়েখ ও তাবলিগের সাথীরা আরো অভিযোগ করে বলেন, ইজতেমা ময়দানে নিরীহ মাদরাসা ছাত্র ও তাবলিগের সাথীদের ওপর হামলার সময় প্রশাসনের ভূমিকা ছিল নীরব ও রহস্যজনক।

লিখিত বক্তব্যে মাওলানা আবু বকর বলেন, অথচ ইতিপূর্বে প্রশাসনের ব্যক্তিবর্গ ময়দানের দায়িত্বরত মুরবি্বদের কথা দিয়েছিলেন যে, আপনারা আপনাদের মতো করে ভেতরে শান্তিপূর্ণ অবস্থান করুন, আমরা বাইরে আছি। বাইর থেকে কেউ প্রবেশ করতে পারবে না, আমরা দেখবো। তাদের (সা'দ অনুসারীদের) জোড় স্থগিত করা হয়েছে, তাদের কেউ আসবে না। কিন্তু বাস্তব চিত্র দেখা গেল ভিন্ন।

তাহলে প্রশ্ন হলো- সারাদেশ থেকে হাজার হাজার সা'দের অনুসারী ওয়াসিফ ও নাসিমের নির্দেশে উত্তরা ও টঙ্গীতে একত্রিত হলো এবং ফজরের সময়ই চতুর্দিক থেকে ময়দান ঘেরাও করলো কীভাবে? জাতি এর জবাব জানতে চায়।

সাংবাদিক সম্মেলনে ৬ দফা দাবি জানানো হয়। দাবিগুলো হলো, (১) ইজতেমা ময়দানে হামলার নির্দেশদাতা ওয়াসিকুল ইসলাম ও সাহাবুদ্দিন নাসিমসহ টঙ্গী ও উত্তরা থেকে নেতৃত্বদানকারী এবং হামলার সাথে জড়িত সকলকে অনতিবিলম্বে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করতে হবে। (২) হামলায় আহত-নিহতদের ক্ষতিপূরণ ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে হবে। (৩) টঙ্গী ইজতেমা ময়দান এতদিন যেভাবে শূরাভিত্তিক তাবলিগের সাথী ও ওলামায়ে কেরামের অধীনে ছিল তাদের হাতেই ইজতেমার নিয়ন্ত্রণ হস্তান্তর করতে হবে। (৪) অতিসত্বর কাকরাইলের সকল কার্যক্রম হতে ওয়াসিফ ও নাসিম গংদের বহিষ্কার করতে হবে। (৫) সারাদেশে ওলামায়ে কেরাম ও শূরাভিত্তিক পরিচালিত তাবলিগের সাথীদের ওপর হামলা-মামলা বন্ধ করে পূর্ণ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হবে এবং (৬) টঙ্গীর আগামী বিশ্ব ইজতেমা পূর্ব ঘোষিত ১ম ধাপ ১৮, ১৯ ও ২০ জানুয়ারি ২০১৯ এবং ২য় ধাপ ২৫, ২৬ ও ২৭ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে অনুষ্ঠানের কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

এসব দাবিতে আগামী ৭ ডিসেম্বর বাদ জুমা টঙ্গীর সকল মসজিদ ও এলাকা হতে তৌহিদী জনতার অংশগ্রহণে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। দাবি বাস্তবায়নে কালক্ষেপণ হলে পরবর্তীতে আরো কর্মসূচি দেয়া হবে বলে সাংবাদিক সম্মেলনে ঘোষণা দেয়া হয়।

সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন টঙ্গী জামিয়া নূরীয়া ইসলামিয়া মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা জাকির হোসাইন, টঙ্গী দারুল উলুম মাদরাসার মুহতামিম মুফতি মাসউদুল করীম, টঙ্গী বায়তুল আকরাম মসজিদ ও মাদরাসা কমপ্লেঙ্রে প্রতিষ্ঠাতা মুহতামিম মাওলানা ইউনুস শাহেদী, টঙ্গীর সাতাইশ জামিয়া উসমানিয়া মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা সিরাজুল ইসলাম, মুফতি মুহাম্মদ আবু বকর কাসেমী, মাওলানা ইসমাইল আলমগীর, মাওলানা আব্দুর রাকিব আকন্দ, মুফতি মুহাম্মদ ইয়াকুব, মাওলানা কেরামত আলী, মাওলানা ইকবাল মাসুম, মাওলানা সিরাজুল ইসলাম মলি্লক, ইঞ্জিনিয়ার শামসুল হক, আবু উবাইদা, তারেক মাহমুদ, আব্দুস সাত্তার প্রমুখ। গত ১ ডিসেম্বর ইজতেমা ময়দানে সংঘর্ষে আহতরাও সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন। সাংবাদিক সম্মেলনে ঘটনার বর্ণনা দিয়ে অনেকে কান্নায় ভেঙে পড়েন।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীঅক্টোবর - ২১
ফজর৪:৪৩
যোহর১১:৪৪
আসর৩:৫০
মাগরিব৫:৩১
এশা৬:৪৩
সূর্যোদয় - ৫:৫৮সূর্যাস্ত - ০৫:২৬
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৮৭৫.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.