নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯
৭ ডিসেম্বর বেগমগঞ্জ মুক্ত দিবস
বেগমগঞ্জ প্রতিনিধি
১৯৭১সালের ৭ ডিসেম্বর পাক হানাদার বাহিনী ও তাদের এ দেশীয় দোসর রাজাকারদের হাত থেকে বেগমগঞ্জ মুক্ত হয়।

জানা যায়, স্বাধীনতা যুদ্ধকালে ১৭ এপ্রিল পাক হানাদার বাহিনীর দোসরদের সহযোগিতায় ১৭ এপ্রিল তারিখে কুমিল্লা সেনা নিবাস থেকে একদল পাকিস্তানি সেনাবাহিনী ট্রেন যোগে সোনাইমুড়ী রেল স্টেশনে নেমে দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে কুমিল্লা-নোয়াখালী পাকা সড়ক দিয়ে এক গ্রুপ এবং রেল লাইন দিয়ে অন্য গ্রুপ আসার সময় দুই পাশ্র্বের বিভিন্ন বাড়িঘর অগি্নসংযোগ, লুটপাট, নারী নির্যাতন শুরু করে এবং উভয় গ্রুপ চৌমুহনী চৌরাস্তায় অবস্থিত সরকারি কারিগরি উচ্চ বিদ্যালয়ে ক্যাম্প স্থাপন করে। পর দিন চৌমুহনী রেল স্টেশন চত্বরে এক সমাবেশে আমান কমিটি গঠন করে। এর পর থেকে তারা ক্যাম্পে এনে নারী-পুরুষদেরকে নানাভাবে অত্যাচার করতে থাকে। এরপর পাকিস্তানী সেনা বাহিনী ও এ দেশীয় দোসর রাজাকারদের সাথে কেন্দুরবাগ, বাংলাবাজার, ফেনা ঘাটা ব্রিজ এর গোড়ায় মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। একপর্যায়ে মুক্তিযোদ্ধারা ফেনা ঘাটা ব্রিজ উড়িয়ে দেয়। এতে পাকিস্তানি সেনা বাহিনী পশ্চিমে লক্ষ্মীপুরের দিকে এগুতে না পেরে এবং চতুর্মুখী মুক্তিকামী জনতা এবং মুক্তিযোদ্ধারা ঘেরাও দিলে আত্মরক্ষার্থে ক্যাম্পে এসে কুমিল্লা সেনানিবাসে ফেরৎ যেতে বাধ্য হয় এবং ৭ ডিসেম্বর পুরো নোয়াখালীর সাথে বেগমগঞ্জ মুক্ত ঘোষণা করা হয়।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত