নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯
ছাত্রকে টয়লেটে আটকে রাখার অভিযোগে বাঙলা কলেজের সামনে শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ
জনতা ডেস্ক
এক ছাত্রকে টয়লেটে আটকে রেখে পরীক্ষায় অংশ নিতে না দেওয়ার অভিযোগে ক্লাস-পরীক্ষা বাদ দিয়ে তিন ঘণ্টা সড়ক আটকে বিক্ষোভ দেখিয়েছে ঢাকার মিরপুর সরকারি বাঙলা কলেজের শিক্ষার্থীরা। বিক্ষুব্ধ ছাত্ররা গতকাল বুধবার সকালে অধ্যক্ষের অপসারণ দাবি করে কলেজ ক্যাম্পাসে মিছিল

শুরু করে এবং একপর্যায়ে বেলা পৌনে ১২টার দিকে কলেজের সামনে দারুস সালাম সড়ক অবরোধ করে। তাদের এই অবরোধের কারণে মিরপুর থেকে গাবতলী ও শ্যামলীর দিকে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে দুর্ভোগে পড়তে হয় মিরপুর এলাকার যাত্রীদের। বিকাল ৩টার দিকে আন্দোলনকারীরা সড়ক থেকে সরে গেলে ওই সড়কে আবার যান চলাচল শুরু হয়।

কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র শফিকুল ইসলাম অভিযোগ করেন, একাদশ শ্রেণির মানবিক বিভাগের ছাত্র নাহিদ হাসানকে রোববার কলেজের টয়লেটে আটকে রাখা হয়। এ কারণে সে একাদশ শ্রেণির ষান্মাষিক পরীক্ষায় অংশ নিতে পারেনি। আমরা এই প্রিন্সিপালের অপসারণ চাই। ওই ঘটনার প্রতিবাদে এবং জড়িত শিক্ষকদের শাস্তির দাবিতে শিক্ষার্থীদের অবস্থান কর্মসূচি ও বিক্ষোভে ছাত্রলীগ কর্মীরাও যোগ দেয়। বিকালে অবরোধ তুলে নেওয়ার পর বাংলা কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সোলাইমান হোসেন জীবন বলেন, আন্দোলন আজকের মতো শেষ করেছি। এরপর কী কর্মসূচি দেওয়া হবে তা আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনা করে ঠিক হবে। কলেজের প্রিন্সিপাল ইমাম হোসেন সেন্টুর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, একাদশ শ্রেনীর একটি ষান্মাষিক পরীক্ষার সময় হিসাববিজ্ঞাণ বিভাগের এক শিক্ষকের সঙ্গে ওই ছেলেটির ঝামেলা হয়। এর জের ধরে ওই ছাত্রকে বাথরুমে আটকে রাখার খবর আমরা পেয়েছি, যা অত্যন্ত দুঃখজনক। অধ্যক্ষ বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পরপরই ওই শিক্ষককে ডেকে নিয়ে তার কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি সত্যতা স্বীকার করেছেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে মন্ত্রণালয়ে আমরা চিঠিও পাঠিয়েছি। আন্দোলনকারীরা অধ্যক্ষেরও পদত্যাগের যে দাবি তুলেছে, সে বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ইমাম হোসেন সেন্টু বলেন, একজন শিক্ষক কোনো অপকর্মের সঙ্গে জড়িত থাকলে তার দায় কেন আমার ওপরে আসবে? আমি তো ইতোমধ্যে তার শাস্তির জন্য মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ করেছি।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত