নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯
আদালতে মামলা দায়ের
শেরপুরে চাকরি দেয়ার নামে এতিমের ১ লাখ টাকা মেরে খেয়েছে প্রতারক
শেরপুর থেকে জিএইচ হান্নান
শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী উপজেলার ঘাগড়া প্রধান পাড়া গ্রামের মৃত সিদ্দিকুর রহমানের অসহায় এতিম মেয়ে নাসরিন জাহান সীমা (২৫)কে একটি মাদ্রাসায় এবতেদায়ী শিক্ষিকা পদে চাকরি দেয়ার প্রলোভনে ফেলে এক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে নকলা উপজেলার বাছুর আগলা গ্রামের প্রতারক মো. তোফাজ্জল হোসেন (৩০) নামে এক মাদ্রাসার শিক্ষক। এঘটনায় প্রতারিত নাসরিন জাহান সীমা গত ২৩ নভেম্বর ঐ প্রতারকের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করেছে।

মামলা ও আদালত সূত্রে জানা গেছে, নকলা উপজেলার বাছুর আগলা গ্রামের বাসিন্দা মৃত হাইতুল্লার ছেলে তোফাজ্জল হোসেন নালিতাবাড়ী উপজেলার ইসলামী ফাউন্ডেশনের আওতাধীন শেরপুর সদর উপজেলার আন্ধারিয়া সূতিরপাড় হযরত শাহ্ আহসান উল্লাহ (রঃ) হেফজখনা ও এবতেদায়ী মাদ্রাসার শিক্ষক। ঐ শিক্ষকের সাথে পূর্ব পরিচয়ের সুবাদে অসহায় এতিম নাসরিন জাহান সীমাকে প্রতারক তোফাজ্জল হোসেন জানায়, ঢাকায় ইসলামী ফাউন্ডেশন প্রধান কার্যালয়ে তার লোক আছে এবং শিক্ষিকা পদে চাকরি নিয়ে দিবে এমন প্রলোভনে ফেলে নাসরিন জাহান সীমাকে আকৃষ্ট করে। এ চাকরি পেতে একলাখ টাকা লাগবে এমন কথায় এবং সরল বিশ্বাসে গত ১৪/০৭/২০১৭ইং তারিখে মামলায় উল্লেখিত চারজন সাক্ষীর উপস্থিতিতে তোফাজ্জল হোসনের হাতে ১ লাখ টাকা তুলে দেন। এসময় প্রতারক তোফাজ্জল হোসেন প্রতিশ্রুতি দেন এক মাসের মধ্যে তাকে চাকরি দিতে না পারলে সমস্ত টাকা ফেরত দিবে।

এদিকে চাকরি প্রার্থী নাসরিন জাহান সীমাকে কথা মত দুই মাসেও চাকরি দিতে না পারায় টাকা ফেরত চাইলে টাকা দেই দিচ্ছি করে প্রতারক তোফাজ্জল হোসেন নানাভাবে টালবাহানা এবং কালক্ষেপণ করতে থাকে। অবশেষে অসহায় এতিম নাসরিক জাহান সীমা ওই প্রতারকের কাছ থেকে টাকা উদ্ধার করতে আইনের আশ্রয় নিয়ে বিজ্ঞ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইফুল রহমানের আদালতে দঃ বিঃ ৪০৬/৪২০ ধারায় মো. তোফাজ্জল হোসেনকে একমাত্র আসামি করে একটি মামলা দায়ের করে। পরে বিজ্ঞ আদালত আনীত অভিযোগটি আমলে নিয়ে শেরপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)কে এফআইআর হিসেবে গণ্য করে ১০ দিনের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত