নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ২৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০
অরিত্রীর আত্মহত্যা : শিক্ষিকা হাসনা হেনা কারাগারে
স্টাফ রিপোর্টার
ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের বরখাস্ত শ্রেণী শিক্ষিকা হাসনা হেনাকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা মামলায় গতকাল বৃহস্পতিবার কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা, ডিবি পুলিশ পরিদর্শক কামরুল হাসান তালুকদার মামলার সুষ্ঠু তদন্তের

স্বার্থে ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদ্ঘাটনের জন্য শিক্ষিকা হাসনা হেনাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন।

এদিকে আসামি পক্ষের আইনজীবী জাহাঙ্গীর আলম জামিনের আবেদন করেন। আর বাদী পক্ষের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর হেমায়েত উদ্দিন জামিনের বিরোধিতা করেন। বিচারক শুনানি শেষে জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

পৌনে ৪টায় ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে শিক্ষিকা হাসনা হেনাকে হাজির করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। ঢাকার মহানগর হাকিম আবু সাঈদের আদালতে এ মামলার শুনানি হয়। আদালত সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

এর আগে গত মঙ্গলবার রাজধানীর পল্টন থানায় অরিত্রীর বাবা দিলীপ অধিকারী ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌসসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন। দ-বিধির ৩০৫ ধারায় মামলাটি করা হয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় গত বুধবার রাতে শিক্ষিকা হাসনা হেনাকে গ্রেফতার করা হয়। ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (পূর্ব) একটি টিম রাজধানীর উত্তরা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। পল্টন থানায় অরিত্রীর বাবা আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেয়ার যে মামলা দায়ের করেছেন, সেই মামলার ৩ নম্বর আসামি হাসনা হেনা।

হাসনা হেনাকে গ্রেফতারের বিষয়ে ডিবির (পূর্ব) উপকমিশনার খন্দকার নুরুন্নবী বলেন, আইনি ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা পাওয়ার পর থেকেই অভিযুক্ত শিক্ষকদের গ্রেফতারে তৎপরতা শুরু করেন গোয়েন্দারা। শিক্ষিকা হাসনা হেনার অবস্থান নিশ্চিত হয়ে রাত ১১টার দিকে উত্তরায় অভিযান চালানো হয়। সেখান থেকে তাকে গ্রেফতার করে আনা হয় মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয়ে।

এর আগে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী অরিত্রী অধিকারীকে 'আত্মহত্যায় প্ররোচনা' দেয়ার বিষয়টি তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় প্রিন্সিপাল (ভারপ্রাপ্ত) নাজনীন ফেরদাউসসহ ৩ শিক্ষকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের নির্দেশে বরখাস্ত করা হয় প্রতিষ্ঠানটির ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, প্রভাতী শাখার প্রধান জিনাত আক্তার এবং শ্রেণী শিক্ষক হাসনা হেনাকে। তারা ৩ জনই সংশ্লিষ্ট মামলার আসামি।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার আনুমানিক বেলা সাড়ে ১২টার দিকে রাজধানীর শান্তিনগরে ভিকারুননিসা নূন স্কুলের নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী অরিত্রী অধিকারীর (১৫) ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। পরীক্ষার হলে মোবাইল ফোন নিয়ে যাওয়ার কারণে অরিত্রী অধিকারীর বিরুদ্ধে নকল করার অভিযোগ আনেন ভিকারুননিসা স্কুল অ্যান্ড কলেজের সংশ্লিষ্ট শিক্ষিকরা। তারা তার বাবা-মাকে ডেকে প্রতিষ্ঠানে গিয়ে দেখা করতে বলেন।

অরিত্রীর বাবার ভাষ্য, ৩ ডিসেম্বর আনুমানিক বেলা ১১টায় আমার স্ত্রী বিউটি অধিকারী ও মেয়ে অরিত্রী অধিকারীকে নিয়ে আমি স্কুলে যাই। সেখানে গিয়ে আমরা প্রথমে ক্লাস টিচার হাসনা হেনার কাছে যাই। তিনি আমাদের অনেকক্ষণ বসিয়ে রাখেন এবং পরে সহকারী প্রধান শিক্ষক ও প্রভাতী শাখা প্রধান জিনাত আক্তারের কাছে নিয়ে যান। তিনি আমাদের দেখেই উত্তেজিত হয়ে ওঠেন এবং আমাদের বলেন, আপনার মেয়েকে টিসি দিয়ে দেবো। তিনি রাগান্বিত অবস্থায় আছেন বুঝতে পেরে আমি তার কাছে ক্ষমা চাই। কিন্তু তিনি বলেন, আমার কিছু করার নেই। তখন আমরা অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) নাজনীন ফেরদৌসের সঙ্গে দেখা করতে যাই। আমার মেয়ে তার কাছে গিয়ে পা ধরে ক্ষমা প্রার্থনা করে এবং মেয়ের ভবিষ্যতের অনিশ্চয়তার কথা চিন্তা করে আমরাও ক্ষমা চাই। তারপর আমরা কেঁদে ফেলি। আমাদের বা অরিত্রীর কারও ক্ষমা প্রার্থনাই অধ্যক্ষের হৃদয় গলাতে পারেনি।'
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীনভেম্বর - ১৭
ফজর৫:১৩
যোহর১১:৫৫
আসর৩:৩৯
মাগরিব৫:১৮
এশা৬:৩৬
সূর্যোদয় - ৬:৩৪সূর্যাস্ত - ০৫:১৩
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
২০৮৪.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। উপদেষ্টা সম্পাদক : মোঃ শাহাবুদ্দিন শিকদার। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata@dhaka.net
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.