নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৪ জানুয়ারি ২০২১, ৩০ পৌষ ১৪২৭, ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪২
পৌর নির্বাচন নিয়ে আওয়ামী লীগে হানাহানি
সফিকুল ইসলাম
পৌরসভার নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেশের বিভিন্ন স্থানে উত্তপ্ত হচ্ছে নির্বাচনী মাঠ। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নির্বাচনী সভায় হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটছে। এরইসাথে যোগ হয়েছে হামলা-ধাওয়া ও পাল্টা ধাওয়া। কেউ কেউ প্রতিপক্ষের লোকজনকে (কর্মী) গুলি করতেও দ্বিধাবোধ করছেন না। এসব কারণে এবারের নির্বাচনে বিএনপিসহ অন্যান্য প্রার্থীর বিরুদ্ধে লড়ার আগে নিজ দলের বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধেই মাঠে নামতে হয়েছে আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের। এ নিয়ে সংঘাতের আশঙ্কা করা হচ্ছিল। অবশেষে সেই আশঙ্কাই সত্যি হলো। সর্বশেষ গতকাল বুধবার টাঙ্গাইলে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মাহমুদুল হক সানুর নির্বাচনী সভায় আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী এসএম সিরাজুল হকের সমর্থকরা অতর্কিত হামলা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শহরের নতুন বাস টার্মিনাল এলাকায় সভাস্থলে চেয়ার টেবিল ভাঙচুর করে বলেও অভিযোগ করেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী। এ ঘটনায় ৫ জন আহত হয়েছেন এ দাবি করে সাংবাদিক সম্মেলন করেন বিএনপি সমর্থিত মেয়রপ্রার্থী মাহমুদুল হক সানু। এর আগে মঙ্গলবার রাত সোয়া ৮টায় দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সহিংসতায় পাঠানটুলি ওয়ার্ডের মগপুকুর পাড় এলাকায় বিদ্রোহী প্রার্থী কাদেরের সমর্থকদের হামলায় প্রাণ হারান স্থানীয় আওয়ামী লীগ কর্মী আজগর আলী বাবুল (৫৫)। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ আরো এক যুবলীগ কর্মীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নজরুল ইসলাম বাহাদুর নিহত বাবুলকে নিজের কর্মী হিসেবে দাবি করেছেন। সংঘর্ষের পর মঙ্গলবার রাতভর নগরের ২৮ নম্বর পাঠানটুলী ওয়ার্ডের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে বিদ্রোহী কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল কাদেরসহ ২৬ জনকে আটক করে পুলিশ। একইদিন নারায়ণঞ্জের রূপগঞ্জে তারাব পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সন্ধ্যায় উপজেলার নোয়াপাড়া এলাকায় দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংর্ঘষে উভয়পক্ষের ৩০ জন আহত হয়েছেন। এসময় ভাঙচুর ও গাড়িতে অগি্নসংযোগ করা হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিল প্রার্থী রুহুল ফরাজি সমর্থকরা উট পাখী মার্কা মিছিল নিয়ে পথসভা করে। একই সময় আনোয়ার হোসেনের ডালিম মার্কার সমর্থক মিছিল নিয়ে পথসভা করে। এ সময় দু'পক্ষের সর্মথকদের সস্নোগানকে কেন্দ্র করে প্রথমে বাগবিত-া সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে দু'পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এ সময় উভয়পক্ষের লোকজন ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে কয়েকটি প্রাইভেটকার ও মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও একটি কাভার্ডভ্যানে অগি্নসংযোগ করে। এতে দু'পক্ষের প্রায় ৩০ জন আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এএসপি সার্কেল মাহিন ফরাজি জানান, ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে। অভিযোগ পেলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। গত সোমবার (১১ জানুয়ারি) দুপুর দুইটার দিকে পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড শিশিরপাড়া এলাকায় মেহেরপুরের গাংনী উপজেলায় পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আশরাফুল ইসলামের ওপর হামলা, মারধর ও পিস্তল ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ সময় ১০ জন আহত হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। আহতরা হলেন-হিরোন, আব্দুল করিম, মাসুদ, শহিদুল ইসলাম, রুমন হোসেন, সম্রাট আলী, বিদ্যুৎ হোসেন ও মেয়র আশরাফুল ইসলাম। এখনও পিস্তলটি উদ্ধার হয়নি বলে জানান মেয়র আশরাফুল ইসলাম। তবে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনীত প্রার্থী আহমেদ আলী এ ঘটনায় মেয়র আশরাফুল ইসলামকে গ্রেফতার ও তার পিস্তল জব্দের দাবি জানিয়েছেন। এর আগে ৭ জানুয়ারি বিকাল পাঁচটায় পৌরসভা নির্বাচনে বরিশালের গৌরনদীতে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে নারীসহ ৪ জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত ৪ জনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান সামীম ও একই ওয়ার্ডের অপর প্রার্থী ছাত্রলীগ নেতা সরকারি গৌরনদী কলেজের সাবেক ভিপি সুমন মাহমুদের সমর্থকদের মধ্যে এ সংঘষের্র ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শিরা। এর আগে গত ৩০ ডিসেম্বর রাত সাড়ে ৯টার দিকে রাজশাহীর ভবানীগঞ্জ পৌরসভার স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। এতে গুরুতর আহত হন দুখু সরকার (৩০)। ওই সময় তিনি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মেয়র প্রার্থী মামুনুর রশীদের পোস্টার লাগাচ্ছিলেন। অভিযোগের আঙুল আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আবদুল মালেকের দিকে। অভিযোগ করা হচ্ছে লোহার রড ও লাঠিসোটাসহ মালেকের ক্যাডার বাহিনী ভবানীগঞ্জ বাজারের গোডাউন এলাকায় দুখুর ওপর হামলা করে। এ সময় গুরুতর অবস্থায় তাকে বাগমারা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। এর আগে বাগেরহাটের মোংলা পৌর নির্বাচনে বিএনপির মেয়র প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা ও মারধর করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষ প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। গত ২৯ ডিসেম্বর দুপুর ১২টায় বিএনপির মেয়র প্রার্থী মো. জুলফিকার আলী পৌর শহরতলীর কমলার মোড় এলাকায় ভোটারদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে বিএনপির মেয়র প্রার্থীর সমর্থক আলতাফ হোসেন, ফয়সাল ও মো. রুহুল আমীন আহত হয়েছেন। একইভাবে সারাদেশে একের পর এক পৌরসভার নির্বাচনে প্রতিপক্ষের হামলার ঘটনা ঘটছে।

পৌরসভা নির্বাচনে কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলার ঘটনায় করা মামলার আসামিদের গ্রেফতার করে বিচারের দাবি জানিয়েছেন পঞ্চগড় পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত কাউন্সিলর হাসনাত হামিদুর রহমান। গত ৩১ ডিসেম্বর রাতে পঞ্চগড় প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে এ দাবি জানিয়েছেন তিনি। এতে হাসনাত হামিদুর রহমান, মকলেছুর রহমান, আবুল খায়ের, মো. ফজর আলী, মোজাম্মেল হক, কাজী মো. জাহেদুল হক, নিজামউদ্দিন পাটোয়ারী, মো. হোসেন আলীসহ ওয়ার্ডের সাধারণ ভোটাররা উপস্থিত ছিলেন। সাংবাদিক সম্মেলনে জানানো হয়, পৌরসভা নির্বাচনে তুলারডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সংলগ্ন সড়কে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর নির্দেশে তার কর্মী-সমর্থকরা লাঠিসোঁটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে হাসনাত হামিদুর রহমানের ছোট ভাই মো. শিশির (২৭), মো. আবিদ (১৫), সিদ্দিকুর, মো. মুকুল, মো. ফরহাদসহ ১৭ কর্মী-সমর্থককে বেধড়ক মারধর করে। এ ঘটনায় আহতদের পঞ্চগড় সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে সাতজনের অবস্থা গুরুতর। শিশির, আবিদ ও মুকুলকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এ ঘটনায় হাসনাত হামিদুর রহমানের বাবা মকলেছুর রহমান বাদী হয়ে ৪৩ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ১০০ জনকে আসামি করে পঞ্চগড় সদর থানায় মামলা করেন।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীমে - ১৩
ফজর৩:৫৪
যোহর১১:৫৫
আসর৪:৩৩
মাগরিব৬:৩৫
এশা৭:৫৪
সূর্যোদয় - ৫:১৭সূর্যাস্ত - ০৬:৩০
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
১৪৭০৭.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.