নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ১৫ মার্চ ২০১৯, ১ চৈত্র ১৪২৫, ৭ রজব ১৪৪০
কাহালু উপজেলা পরিষদ নির্বাচন প্রার্থীদের প্রতিশ্রুতি উন্নয়নে গ্রাম হবে শহর
সরকারি দফতরে থাকবে না অনিয়ম ও দুর্নীতি
কাহালু (বগুড়া) প্রতিনিধি
আগামী ১৮ মার্চ কাহালু উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা কোমর বেঁধে রয়েছেন নির্বাচনী মাঠে। সকল প্রার্থীরাই তাদের নির্বাচনী সভা-সমাবেশে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন উন্নয়নের ফুলঝুড়ি। এখানে বিশেষ করে চেয়ারম্যান পদে অন্য কোনো দলের প্রার্থী নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নেই। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর সাথে ভোটযুদ্ধে রয়েছেন আওয়ামী লীগ ঘরনার আরো দুজন বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী। এখানে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান। আর বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে লড়ছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক মো. মোশফিকুর রহমান কাজল। আরেক বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে আনারস প্রতীক নিয়ে লড়ছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র আলহাজ হেলাল উদ্দিন কবিরাজের একমাত্র ছেলে জেলা ছাত্রলীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক আল হাসিবুল হাসান সুরুজ। এই তিনজন প্রার্থীই ভোটারদের নানা ধরনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বেড়াচ্ছেন তারা নির্বাচিত হলে কি কি কাজ করবেন। তবে সকলেরই মুখে একই ধরনের বুলি শোনা যাচ্ছে। বর্তমান সরকারের যে উন্নয়ন পরিকল্পনা রয়েছে সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতিই তারা দিচ্ছেন। গত সোমবার এক সাক্ষাৎকারে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. আব্দুল মান্নান জানান, জনগণের ভোটে আমি নির্বাচিত হতে পারলে অত্র উপজেলাবাসীর আশা আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটাবো। সন্ত্রাস, মাদক, দুর্নীতিসহ সমাজের সকল প্রকার অসঙ্গতি দূর করতে আন্তরিকভাবে কাজ করবো। উপজেলাবাসীর উন্নয়নে ও বর্তমান সরকারের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে আমি বড় ধরনের ভূমিকা রাখবো। অপরদিকে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মোশফিকুর রহমান কাজল এক সাক্ষাৎকারে জানান, আমি নির্বাচিত হলে জনগণকে জননেত্রী শেখ হাসিনার দেয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের উপর আগে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করবো। গ্রামকে শহরে রূপান্তর করতে ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে উপজেলার সকল শ্রেণীপেশার মানুষকে নিয়ে পরিকল্পনা মাফিক কাজ করবো। উপজেলার সরকারি বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠানে স্বচ্ছতা ফিরে আনতে আমি সব ধরনের প্রদক্ষেপ গ্রহণ করবো। এদিকে আওয়ামী লীগের আরেক বিদ্রোহী প্রার্থী আল হাসিবুল হাসান সুরুজ এক সাক্ষাৎকারে জানান, আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলে রাস্তা-ঘাট, শিক্ষা, সামাজিক, ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নসহ সর্বক্ষেত্রে আন্তিরিকতার সাথে উন্নয়ন করবো। অত্র উপজেলাকে মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে পরিকল্পিতভাবে কিছু নান্দনিক কাজ করবো। সমাজের সকল অসঙ্গতি দূর করে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠায় আমার সবচেয়ে বড় ধরনের ভূমিকা থাকবে। সর্বক্ষেত্রে অনিয়ম, সুদ, ঘুষ ও দুর্নীতি দূর করতে আমার বড় ধরনের একটা লড়াই থাকবে। অত্র উপজেলায় এই তিনজন চেয়ারম্যান প্রার্থী ছাড়াও ভোটযুদ্ধে অবতীর্ণ হয়েছেন সংরক্ষিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন ও পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন। নির্বাচন অফিসের সর্বশেষ হিসেব অনুযায়ী অত্র উপজেলায় সর্বমোট ভোটার ১ লাখ ৭১ হাজার ৫৫১ জন।


Fatal error: Uncaught exception 'PDOException' with message 'SQLSTATE[HY000]: General error: 13 database or disk is full' in /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php:7 Stack trace: #0 /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php(7): PDO->query('Update newsHitC...') #1 /home/janata/public_html/lib/index.php(135): require('/home/janata/pu...') #2 /home/janata/public_html/web/details.php(10): lib->newsHitCount() #3 /home/janata/public_html/web/index.php(28): include('/home/janata/pu...') #4 /home/janata/public_html/index.php(15): include('/home/janata/pu...') #5 {main} thrown in /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php on line 7