নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, মঙ্গলবার ৪ মে ২০২১, ২১ বৈশাখ ১৪২৮, ২১ রমজান ১৪৪২
উলিপুর উপজেলা প্রাণীসম্পদ দফতর খামারিদের প্রণোদনার অর্থ আত্মসাৎ করেছে
রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি
কুড়িগ্রামের উলিপুরে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত খামারীদের এককালীন প্রণোদনার টাকা বিভিন্ন কৌশলে আত্মসাৎ করেছে একটি সিন্ডিকেট চক্র। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগীরা। এই চক্রটি সরকারের উন্নয়ন ধারাকে বৃদ্ধাঙুলি দেখালেও প্রতিকার না পেয়ে হতাশ তালিকাভুক্তরা। সংশ্লিষ্ট বিভাগের কার্যকর মনিটরিং ব্যবস্থা না থাকায় ক্ষতিগ্রস্তদের প্রণোদনার সিংহভাগ টাকা ঢুকছে এখন প্রতারক চক্রের পকেটে। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উলিপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয় থেকে ক্ষতিগ্রস্ত খামারিদের এককালীন প্রণোদনার তালিকা তৈরির দায়িত্ব পান সাহেবের আলগা ইউনিয়নের টিকা প্রদানকারী (ভ্যাক্সিনেটর) রিপন মোল্লাহ। তিনি ওই ইউনিয়নে ১৫৩ জন সুবিধাভোগীর নামের তালিকা তৈরি করে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ে প্রেরণ করেন। এ সুযোগে প্রণোদনার টাকা বিকাশে দেয়ার কথা বলে কৌশলে তালিকাভুক্ত ব্যক্তিদের কাছ থেকে নতুন সিম কিনে নেন রিপন। পরে এসব সিম তার কাছে রেখে দেন।

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে পর্যায়ক্রমে এসব সুবিধাভোগীর উল্লেখিত মোবাইল নম্বরে টাকা আসলে রিপন মোল্লাহ ক্যাশ আউট করে তাদের প্রত্যেককে ৪ থেকে সাড়ে ৫ হাজার টাকা হাতে ধরিয়ে দেন। এতে করে সুবিধাভোগীদের মাঝে চরম অসন্তোষ বিরাজ করে। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে বেশ কয়েকজন সুবিধাভোগী উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দফতরে লিখিত অভিযোগ করেন।

চলতি বছর উলিপুর উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভাসহ মোট ২ হাজার ৬৩০ জন খামারির তালিকা অ্যাপসের মাধ্যমে পাঠানো হয়। এতে বরাদ্দ ধরা হয় ২ কোটি ৭৯ লাখ ৬৬ হাজার ৬২৫ টাকা। এই তালিকা তৈরি করেন উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের মনোনীত সিন্ডিকেট চক্র। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি থেকে ৫ ক্যাটাগরির মাধ্যমে সুবিধাভোগীরা মোবাইল ব্যাংকিংয়ে সর্বনিম্ন ১০ হাজার এবং সর্বোচ্চ ২২ হাজার ৫০০ প্রণোদনার টাকা বরাদ্দ পান।

অভিযোগকারী মমতাজ বেগম, সোনেকা বেগম, সুরতী বেগম, শাহিনুর মোল্লা, আবু সাঈদ, ছিদ্দিক, সাহেরা বেগম জানান, রিপন মোল্লাহ সুবিধাভোগীদের প্রণোদনার কারো অর্ধেক, আবার কারো পুরো টাকা টাকা হাতিয়ে নেন। এসব টাকা অফিসের স্যারদের দিতে হবে বলে জানান। কেউ টাকা না দিলে পরবর্তীতে তাদের অন্য সুযোগ-সুবিধা দেয়া হবে না জানিয়ে নানা ভয়ভীতি দেখান।

অভিযোগের বিষয়ে টিকা প্রদানকারী (ভ্যাক্সিনেটর) রিপন মোল্লাহ জানান, আমি শুধু ১৫৩ জনের তালিকা করে অফিসে পাঠিয়েছি। এর বেশি আমি কিছু জানি না। ওটা অফিস জানে। তবে নতুন সিম হস্তগত করে টাকা নেয়ার বিষয়টি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট বলে তিনি দাবি করেন।

এ ব্যাপারে উলিপুর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আব্দুল আজিজ প্রধান বলেন, রিপন মোল্লাহর কাছে বিষয়টি জানতে চাওয়া হয়েছে, কিন্তু তিনি অস্বীকার করেছেন। আমাদের লোক গিয়ে ওইসব সুবিধাভোগীর সাথে কথা বলে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

এ প্রসঙ্গে উলিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নূর-এ-জান্নাত রুমি জানান, অভিযোগ পেয়েছি। সরেজমিন গিয়ে তদন্ত করে এবং বিষয়টি সত্য হলে অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।্ল

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীমে - ১৫
ফজর৩:৫২
যোহর১১:৫৫
আসর৪:৩৩
মাগরিব৬:৩৬
এশা৭:৫৬
সূর্যোদয় - ৫:১৬সূর্যাস্ত - ০৬:৩১
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৫৭৭১.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.