নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, শুক্রবার ৩১ জুলাই ২০২০, ১৬ শ্রাবণ ১৪২৭, ৯ জিলহজ ১৪৪১
ভারত থেকে ট্রেনে পণ্য পরিবহণে পাকশী রেলওয়ের আয় ১৮ কোটি টাকা
জনতা ডেস্ক
করোনা মহামারির কারণে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়েতে বেশিরভাগ যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকায় 'জুলাই' মাসে ভারত থেকে পণ্যবাহী ট্রেন আসায় ১৮ কোটি টাকা রাজস্ব আয় করেছে পশ্চিমাঞ্চল জোন পাকশি বিভাগীয় দফতর। পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে পাকশি বিভাগীয় রেলওয়ে ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) আসাদুল হক বিষয়টি জানান। স্বাধীনতার পর চলতি বছরের জুন মাসে প্রথম একমাসে ভারত থেকে পণ্যবাহী ওয়াগন পণ্য পরিবহনের কারণে ১১ কোটি ৩৮ লাখ ৩৩ হাজার ৭৫২ টাকা রাজস্ব আয় হয়েছিল। পাকশি বিভাগীয় পরিহন কর্মকর্তা (ডিটিও) নাসির উদ্দিন জানান, কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে ভারত থেকে চলতি জুলাই মাসে ১২৬টি পণ্যবাহী রেকগুলোতে পেয়াঁজ, মরিচ, হলুদ, আদাসহ বিভিন্ন পণ্য হস্তান্তর করেছে ভারত। গত জুন মাসে প্রথমবারের মতো দুই দেশের রেলওয়েতে এক মাসে শতাধিক পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল করে রেকর্ড গড়েছিল। চলতি মাসে বাংলাদেশ রেক গ্রহণ করেছে ১২৬টি। গতমাসে রেক গ্রহণ করা হয়েছিল ১০৩টি রেক। যা গতমাসের চেয়ে ২৩টি রেক বেশি। পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে জোনের পাকশি বিভাগীয় রেলওয়ের ব্যবস্থাপক (ডিআরএম) আসাদুল হক জানান, চলতি বছর জুলাই মাসেই ১৮ কোটি টাকা রাজস্ব আয় করেছে পাকশি রেলওয়ে বিভাগ। (জুন-জুলাই) দুইমাসে ভারত থেকে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ ২২৯ রেক গ্রহণ ও বাংলাদেশ থেকে খালি রেক পাঠাতে পেরেছে। স্বাধীনতার পর দুই মাসে এতোগুলো পণ্যবাহী ট্রেন ভারত থেকে কখনোই বাংলাদেশে প্রবেশ করেনি। ১২৬টি পণ্যবাহী রেকে বাংলাদেশকে পেঁয়াজ, আদা, মরিচ, হলুদ, ধানবীজ, চিনি ও বিভিন্ন তৈরি পণ্য হস্তান্তর করেছে ভারত। বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো দুই দেশের রেলওয়েতে এক মাসে শতাধিক পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল করে রেকর্ড গড়েছে। করোনা মহামারি-লকডাউনের জন্য বিশেষ সুবিধা পাওয়ায় দুই দেশের ট্রেনে পণ্য আনা-নেওয়া বেড়েছে। ডিআরএম আসাদুল হক আরও বলেন, ভারত থেকে পণ্যসামগ্রী আসায় রেলওয়েতে বেশ রাজস্ব আয় বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশে খাদ্য চাহিদাও পূরণ হবে, জনবলের কর্মসংস্থান, দেশে রাস্তাঘাট নির্মাণ, উন্নয়নমূলক কাজের পণ্যাদি আমদানি করা সম্ভব হচ্ছে। পাকশি রেল বিভাগে এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। এতে উভয় দেশে রাজস্ব বৃদ্ধির পাশাপাশি সুসম্পর্কের 'প্লার্টফর্ম' তৈরিতে বিশেষ ভূমিকা রাখছে।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
আজকের নামাজের সময়সূচীসেপ্টেম্বর - ২৫
ফজর৪:৩৩
যোহর১১:৫১
আসর৪:১২
মাগরিব৫:৫৫
এশা৭:০৮
সূর্যোদয় - ৫:৪৮সূর্যাস্ত - ০৫:৫০
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৪১৬৬৬.০
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদক : আহ্সান উল্লাহ্। প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় : খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০ থেকে প্রকাশিত। ফোন : ৯৩৫৭৭৩০ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্স : ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ djanata123@gmail.com, bishu.janata@gmail.com
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.