নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা,সোমবার ৫ আগস্ট ২০১৩, ২১ শ্রাবন ১৪২০, ২৬ রমজান ১৪৩৪
উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় ঘরে ফেরা
রাজনৈতিক অস্থিরতায় ম্লান হয়ে যাচ্ছে ঈদ আনন্দ
ওয়াজেদ হীরা
ক্রমেই কাছে আসছে ঈদ আর প্রতিদিনই ফাঁকা হচ্ছে রাজধানী ঢাকা। সবার সাথে ঈদ করেই আবারো ফিরতে হবে এই কর্মব্যস্ত শহরে। কিন্তু সেখানেই রয়েছে বিপত্তি। ঘরে ফেরা আর কর্মস্থলে ফেরা এই দুয়ের মধ্যে এক মহা বিপত্তির নাম 'হরতাল'। হরতাল শঙ্কা নিয়েও নাড়ির টানে বাড়ি ছুটে যাওয়া অতঃপর পেটের টানে কর্মস্থলে ফেরা উভয় চিন্তাই করছেন ঈদে ঘরমুখো মানুষগুলো। সবার মনের মধ্যে উঁকি দিচ্ছে উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠা । ঈদের পর রাজনৈতিক দলগুলো কোন পর্যায়ে যাবে !

ঈদের পর জামায়াতের ডাকা টানা দু'দিনের হরতাল নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছে অসংখ্য ঘরমুখো মানুষ। আর সেই দুশ্চিন্তা মাথায় রেখেই রাজধানী ছেড়ে শিকড়ে যাচ্ছে মানুষ। দিন যতো যাচ্ছে দূরপাল্লার পরিবহণগুলোর ওপর যাত্রীদের চাপ ততোই বাড়ছে। যতো শঙ্কাই থাকুক, প্রিয়জনের সাথে ঈদ আনন্দটুকু ভাগাভাগি করাই যেন কাজের সন্ধানে শহরে আসা মানুষদের পরম পাওয়া।

বিভিন্ন বাস টার্মিনাল ঘুরে দেখা গেছে, নাড়ির টানে বাড়ি ফেরা মানুষের ভিড়। এই ভিড় প্রতিদিনই বাড়ছে। তবে ঘরে ফেরা মানুষের মধ্যে ১২ ও ১৩ আগস্টের হরতালের দুশ্চিন্তাটা বেশ ভালোভাবেই বিরাজ করছে। কেননা, ঈদের ছুটি কাটিয়ে অধিকাংশ কর্মজীবী মানুষ ১২ আগস্ট থেকে ঢাকা ফিরতে শুরু করবেন। হরতালের কারণে অনেকে প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদের আনন্দটুকুও ভালোভাবে ভাগাভাগি করতে পারবেন না। শুধু যাত্রীরাই নয়, টানা দুইদিনের হরতালে পরিবহণ মালিক ও ব্যবসায়ীদের মধ্যেও বিরাজ করছে লোকসানের শঙ্কা।

হরতালের কারণেই আগাম টিকিটের কাটতি একটু কমে গেছে এমন তথ্য জানিয়েছেন গাবতলী পরিবহণ মালিক সমিতির সভাপতি আলী কবির চাঁন। তিনি আরো বলেন, এমনিতে ঈদে বাড়ি ফিরতে মানুষকে নানা ঝামেলা পোহাতে হয়। তারপর আবার ঠিক সময়ে কর্মস্থলে ফেরার শঙ্কা থাকাতে বাড়ি যাওয়া নিয়ে নতুন করে ভাবতে শুরু করেছে সাধারণ মানুষ। রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি ক্ষোভ নিয়ে তিনি বলেন, হরতাল এখন রাজনৈতিক সংস্কৃতির অংশ হয়ে গেছে। প্রতিটি ব্যবসার একটি মৌসুম থাকে। আমরা ঈদকে বড় মৌসুম হিসেবে দেখি। এ মৌসুমকে সামনে রেখে নতুন গাড়ি নামাই, মেরামত করি, বিশেষ করে গাড়ির লোন পরিশোধ করার একটি সুযোগ সৃষ্টি হয়। আর সেই সুযোগ এবার হুমকির মুখে। গাবতলী বাস টার্মিনালের ইজারাদার আক্তার হোসেন বলেন, আমরা কোনো রাজনীতি বুঝি না, আমরা ব্যবসা বুঝি। আমরা কোটি কোটি টাকা খরচ করে এই টার্মিনাল সরকারের কাছ থেকে ইজারা নিয়েছি। এই টাকা এখন তুলতে পারবো কি না বুঝতে পারছি না। এছাড়াও ঈদে ঘরমুখো অসংখ্য মানুষ হরতালের কারণে দোলাচলে পড়েছেন। সবাই হিসেব কষছেন ঈদে বাড়ি যাবে কি যাবে না সেটা নিয়ে। বিশেষ করে চাকরিজীবীরা এ নিয়ে বেশি দোদুল্যমানতায় ভুগছেন । কারণ ১২ আগস্ট তাদের কর্মস্থলে ফিরতেই হবে। রাজধানীর কয়েকটি টার্মিনালে অপেক্ষয়মান কতিপয় ঘরমুখো মানুষ জানালেন তাদের আশঙ্কার কথা। তারা বলেন, বাড়ি যাচ্ছি দুশ্চিন্তা মাথায় নিয়ে । জানি না ফেরার অবস্থা কি হবে। আর সময়মতো ফিরতে না পারলে অফিসের বড় কর্তার বকুনির সাথে বেতন কর্তনতো আছেই। তবুও বাড়ি ফেরার মানুষের ঢল। যদিও এই বাড়ি ফেরায় অন্যান্যবারের মতো আনন্দ থাকছে না, কিছুটা হলেও ম্লান করে দিয়েছে ঈদ আনন্দটা। হরতাল দুশ্চিন্তায় ঈদ আনন্দে কিছুটা ভাটা পড়লেও বাড়ি যাওয়ার ক্ষেত্রে টার্নিমানগুলোর ভিড় বলে দেয় ফেরার হিসেব পরে, আপাতত সবাই বাড়ি যেতে মুখিয়ে আছে। জানা যায়, শুধু গাবতলী বাস টার্মিনাল থেকে প্রতিদিন ছেড়ে যাচ্ছে প্রায় সাতশ গাড়ি। আর কলেজগেট, শ্যামলী, কল্যাণপুর থেকেও অনেক গাড়ি ছেড়ে যাচ্ছে যেগুলো এ হিসাবের বাইরে। এছাড়াও রাজধানীর মহাখালী ও সায়েদাবাদ বাস টার্মিনালেও একই অবস্থা। শুধু সড়ক পথেই নয়, এর সাথে রয়েছে রেল ও নৌপথ। সব মিলিয়ে প্রতিদিন লাখ লাখ লোক ছাড়ছে এই ব্যস্ত শহর।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
Jobs in Bangladesh
Jobs in Bangladesh
আজকের নামাজের সময়সূচীআগষ্ট - ৫
ফজর ৪:০৮
যোহর ১২:০৫
আসর ৪:৪২
মাগরিব ৬:৪২
এশা ৮:০১
সূর্যোদয় - ৫:৩০সূর্যাস্ত - ০৬:৩৭
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৬২৫
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদকঃ আহ্‌সান উল্লাহ্॥ প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত এবং সড়ক ৩১, বাড়ি ২৩, গুলশান, ঢাকা-১২১২ থেকে প্রকাশিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০। ফোনঃ ৮৩১৫১১৫ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.