নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা,সোমবার ৫ আগস্ট ২০১৩, ২১ শ্রাবন ১৪২০, ২৬ রমজান ১৪৩৪
সংলাপ নয় রাজপথেই বেশি মনোযোগী প্রধান দুই রাজনৈতিক দল
শাহীন আলম চৌধুরী
ঝুলে গেছে শেখ হাসিনা-খালেদার সংলাপ। পাঁচ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের পরে অনেকটা পাল্টে গেছে দেশের রাজনীতির সমীকরণ। নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে প্রধান দুই রাজনৈতিক দল দুই মেরুতে থাকলেও নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজনীতির মাঠ দখলে রাখতে এখন আলোচনার চেয়ে রাজপথেই বেশি মনোযোগী তারা।

সিটি নির্বাচনে হেরে অন্তর্দ্বন্দ্বে পুড়ছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। আলোচনায় রাজি থাকলেও অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের বিকল্পের কথা ভাবছে না ক্ষমতাসীনরা। দলের সভাপতির কয়েক দফা আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করার পর নতুন করে আর এ পথে হাঁটতে চাইছে না তারা। বরং ঝিমিয়ে পড়া দলীয় তৃণমূল নেতাকর্মীদের সক্রিয় করতে ঈদের পরে পূর্ণ শক্তি নিয়ে মাঠে নামার ঘোষণা দিয়েছে ক্ষমতাসীন দল। বিশেষ করে বিরোধী দলের অপপ্রচারের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ সর্বশক্তি নিয়ে মাঠে নামবে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

অন্যদিকে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি সিটি নির্বাচনে বিজয়ের পর এখন অনেকটাই চাঙ্গা। তাই এখন আলোচনার চেয়ে আন্দোলনের হুমকি দিয়ে সরকারকে চাপে রাখতেই তারা বেশি মনোযোগী। নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবিতে ঈদের পর তারা সর্বাত্মক আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছে।

১৮ জুলাই গণভবনে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে হারানো জনমত ফিরিয়ে আনতেই আওয়ামী লীগের একটি শক্তিশালী টিম গঠন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। যে টিমগুলো সরকারের জনপ্রিয়তা যাচাইয়ের পাশাপাশি নির্বাচনী জনমত গঠনে কাজ করবে। কর্মসূচি পালনের মাধ্যমে নেতাকর্মীদের চাঙ্গা করে ঈদের পরই সর্বশক্তি নিয়ে মাঠে নামবে আওয়ামী লীগ। ঈদের পর বিভিন্ন এলাকা সফর করবেন প্রধানমন্ত্রী। ঐ সাংগঠনিক টিমের সঙ্গে আওয়ামী যুবলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, কৃষক লীগ ও ছাত্রলীগের নেতারাও থাকছেন।

জাতীয় নির্বাচনের আর মাস কয়েক বাকি। এই সময়ের মধ্যে আর আলোচনার কোনো সুযোগ নেই বলে মনে করেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম। গত ২৩ জুলাই রাজধানীতে একটি আলোচনা সভায় তিনি বলেন, নির্বাচনের আর চার মাস আছে। এই সময়ের মধ্যে নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে আলোচনার আর সুযোগ নেই। নির্বাচন হবে অন্তর্বর্র্তীকালীন সরকারের অধীনে।

এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য নূহ-উল আলম লেনিন দৈনিক জনতাকে বলেন, আমরা নিঃশর্ত আলোচনায় সব সময় প্রস্তুত। আমরা আলোচনার পথ বন্ধ করিনি। তবে বিএনপি একদিকে আলোচনার কথা বলে আর অন্যদিকে আল্টিমেটাম দেয়। তিনি বলেন, সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে আলোচনার জন্য আমরা সব সময় প্রস্তুত। আওয়ামী লীগ সব সময়ই সংবিধান মেনে আলোচনা রাজি। আইন প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট কামরুল ইসলাম জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় বলেছেন, সংবিধান অনুযায়ীই আগামী জাতীয় নির্বাচন হবে। নির্বাচন আপনাদের (বিএনপি) জন্য থেমে থাকবে না। আপনারা না আসলেও নির্বাচন হবে। জনগণ নির্বচনে অংশ নিল কি না, সেটিই মুখ্য। আওয়ামী লীগের সূত্রমতে, পরপর পাঁচটি সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে পরাজয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে আস্থার সঙ্কট তৈরি হয়েছে। তাছাড়া এ পরাজয়ের পেছনে তৃণমূলের সঙ্গে কেন্দ্রের দূরত্বকে দায়ী করা হয়। এ মুহূর্তেই ঘুরে দাঁড়াতে না পারলে আগামী জাতীয় নির্বাচনে সঙ্কট সৃষ্টি হতে পারে। তাই তৃণমূলকে চাঙ্গা করে জনমত ফেরাতে এখনই মাঠে নামার পক্ষে দলীয় হাইকমান্ড।

অন্যদিকে আগামী নির্বাচন নিয়ে চলমান সঙ্কট উত্তরণে সংলাপের বিষয়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার আন্তরিক নয় বলে অভিযোগ বিএনপি'র। দলটির শীর্ষ পর্যায়ের নেতারা বলছেন, সরকার বারবার সংলাপের কথা বলার পরও সেদিকে না গিয়ে দেশকে চূড়ান্ত নৈরাজ্যের পথে নিয়ে যাচ্ছে। তাই পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে সংলাপকে গুরুত্ব দিলেও তারা মূলত আন্দোলনকে অগ্রাধিকার দিচ্ছেন। সে কারণেই ইতিমধ্যে দলটির চেয়ারপারসন ছাড়াও শীর্ষ নেতারা সঙ্কট নিরসনে সরকার এগিয়ে না আসলে ঈদের পর সর্বাত্মক আন্দোলনের ঘোষণা দিয়েছেন।

এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
Jobs in Bangladesh
Jobs in Bangladesh
আজকের নামাজের সময়সূচীআগষ্ট - ৬
ফজর ৪:০৮
যোহর ১২:০৫
আসর ৪:৪২
মাগরিব ৬:৪২
এশা ৮:০০
সূর্যোদয় - ৫:৩০সূর্যাস্ত - ০৬:৩৭
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৮২৫
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদকঃ আহ্‌সান উল্লাহ্॥ প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত এবং সড়ক ৩১, বাড়ি ২৩, গুলশান, ঢাকা-১২১২ থেকে প্রকাশিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০। ফোনঃ ৮৩১৫১১৫ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.