নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা,সোমবার ৫ আগস্ট ২০১৩, ২১ শ্রাবন ১৪২০, ২৬ রমজান ১৪৩৪
প্রসঙ্গ মিল্কি হত্যা
যুবলীগ নেতা রিয়াজুল হক খান মিল্কি হত্যার দু'দিনের মাথায় হত্যাকাণ্ডের প্রধান সন্দেহভাজনসহ দু'জন গত বুধবার রাতে র‌্যাবের তথাকথিত 'ক্রসফায়ারে' নিহত হয়েছে। ক্রসফায়ারে নিহত যুবলীগ নেতা এসএম জাহিদ সিদ্দিকী ওরফে তারেককে ভিডিও ফুটেজ দেখে মিল্কি হত্যার সঙ্গে জড়িত বলে চিহ্নিত করা হয়। শাহ আলম হচ্ছে র‌্যাবের ক্রসফায়ারে নিহত অপর ব্যক্তি। মিল্কি হত্যার ঘটনার পর তারেক রাজধানীর একটি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন ছিল। র‌্যাব তাকে সেখান থেকে ধরে নিয়ে যায়।

এদিকে র‌্যাবের ভাষ্য অনুযায়ী, পুলিশের কাছে হস্তান্তর করার জন্য হত্যার অভিযোগে অভিযুক্ত তারেককে ক্লিনিক থেকে সংশ্লিষ্ট থানায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। র‌্যাবের গাড়িটি কুড়িল ফ্লাইওভারের কাছে এলে শাহ আলমসহ ১০-১২ জনের একটি সন্ত্রাসী দল তারেককে ছিনিয়ে নেয়ার জন্য হামলা করে। এতে উভয় পক্ষের গোলাগুলিতে তারেক ও শাহ আলম নিহত হয়। এই ঘটনায় দু'জন র‌্যাব সদস্যও আহত হয়েছে বলে র‌্যাব সূত্র দাবি করেছে। তারেককে পুলিশের কাছে হস্তান্তরের জন্য ক্লিনিক থেকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল নাকি পরিকল্পিতভাবে বিচারবহির্ভূত হত্যা করার জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল তা নিয়ে সন্দেহের যথেষ্ট অবকাশ রয়েছে।

ইতোমধ্যে গত বুধবারের ক্রসফায়ারকে 'নাটক' বলে মন্তব্য করেছেন দফতরবিহীনমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। তিনি এই ঘটনার নিন্দাও জানিয়েছেন। আমরা বিচারবহির্ভূত আরও দুটি হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানাই। পাশাপাশি মন্ত্রী মহোদয়ের কথার সঙ্গে কিছু কথা যোগ করতে চাই কেবল গত বুধবারের ক্রসফায়ারই নয়, প্রতিটি ক্রসফায়ারই একেকটি নাটক।

প্রতিটি ক্রসফায়ারে একবার করে আইনের শাসন, ন্যায়বিচার, মানবাধিকার ভূলুণ্ঠিত হয়। এই নাটকের হাত থেকে চিকিৎসাধীন ব্যক্তিও রেহাই পায় না। চিকিৎসাধীন তারেককে তাড়াহুড়ো করে ক্লিনিক থেকে বের করার ঘটনা থেকে বোঝা যায়, হত্যার নটক মঞ্চস্থ করার জন্য র‌্যাব কতটা উদগ্রীব হয়েছিল। তথাকথিত হামলাকারীরা যে তারেককে ছিনিয়ে নিতে এসেছিল সেটা র‌্যাব নিশ্চিত হলো কী করে? তথাকথিত হামলাকারীদের একজনকে র‌্যাব ঘটনাস্থলেই মেরে ফেলেছে, বাকিদের কোন একজনকেও তারা গ্রেফতার করতে পারেনি যে ব্যক্তিটি স্বীকার করতে পারে তারেককে ছিনিয়ে নেয়ার জন্য এই হামলা চালানো হয়েছে। প্রতিষ্ঠার পর থেকে 'ক্রসফায়ার' নাটক করছে র‌্যাব। অথচ নাটকের কাহিনী বর্ণনায় তাদের অপক্বতা রয়েই গেছে। এখনকার ক্রসফায়ার নাটকে অবশ্য দু'একজন র‌্যাব সদস্য আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়। কল্পিত সন্ত্রাসীদের মুহুর্মূহু গুলিতে র‌্যাব সদস্যরা এখন তো তাও সিনেমার নায়কের মতো সামান্য আহত হচ্ছে, আগে তাদের গায়ে গুলির আঁচড়ও লাগত না। অবশ্য আহত কোন র‌্যাব সদ্যকে আজ পর্যন্ত গণমাধ্যমে দেখা যায়নি।

আমরা সাধারণ জনগণ চাই, অপরাধীর অপরাধ আদালতে প্রমাণ সাপেক্ষে সাজা দেয়া থোক, অপরাধের নেপথ্যের গডফাদারদের খুঁজে বের করা হোক। কিন্তু র‌্যাব বরাবরই বিচারবহির্ভূত হত্যাকা-ের মাধ্যমে আইনের শাসনকে ভূলুণ্ঠিত করছে এবং নেপথ্যের গডফাদারদের আড়াল করছে। মিল্কি হত্যার অভিযুক্ত তারেককে বাঁচিয়ে রাখা গেলে নেপথ্যের গডফাদারদের ধরা যেত। তারেককে মেরে ফেলায় গড়ফাদাররা যে ধরাছোঁয়ার বাইরেই থেকে যাবে সেটা নিশ্চিত করেই বলা যায়।

প্রতিষ্ঠার পর থেকেই র‌্যাব সন্ত্রাসের মূলকে সুরক্ষিত রেখে উপরতলার সন্ত্রাস দমনের নামে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড ঘটাচ্ছে। তীব্র সমালোচনার মুখে মাঝে কিছু দিন ক্রসফায়ার বন্ধ হলেও গুপ্তহত্যার অবির্ভাব ঘটে। র‌্যাবকে বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড অবশ্যই বন্ধ করতে হবে। অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আদালতে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দিতে হবে। বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড সংঘটনের দায়ে র‌্যাবের বিচার করতে হবে। মিল্কি হত্যার সঙ্গে জড়িত গডফাদারদের খুঁজে বের করতে হবে।
এই প্রতিবেদন সম্পর্কে আনার মতামত দিন।
মতামত দিতে চাইলে অনুগ্রহ করে করুন।
আপনার কোন একাউন্ট না থাকলে রেজিষ্ট্রেশন করুন।
এই পাতার আরো খবর -
সর্বাধিক পঠিত
ফটো গ্যালারি
আজকের পত্রিকা
Jobs in Bangladesh
Jobs in Bangladesh
আজকের নামাজের সময়সূচীআগষ্ট - ৬
ফজর ৪:০৮
যোহর ১২:০৫
আসর ৪:৪২
মাগরিব ৬:৪২
এশা ৮:০০
সূর্যোদয় - ৫:৩০সূর্যাস্ত - ০৬:৩৭
পুরোন সংখ্যা
বছর : মাস :
আজকের পাঠকসংখ্যা
৭৪৯
সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতিঃ সৈয়দ এম. আলতাফ হোসাইন। সম্পাদকঃ আহ্‌সান উল্লাহ্॥ প্রকাশক ছৈয়দ আন্ওয়ার কর্তৃক রোমাক্স লিমিটেড, তেজগাঁও শিল্প এলাকা থেকে মুদ্রিত এবং সড়ক ৩১, বাড়ি ২৩, গুলশান, ঢাকা-১২১২ থেকে প্রকাশিত। সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ খলিল ম্যানশন (৩য়, ৫ম ও ৬ষ্ঠ তলা), ১৪৯/এ, ডিআইটি এক্সটেনশন এভিনিউ, ঢাকা-১০০০। ফোনঃ ৮৩১৫১১৫ (বার্তা), ৮৩১৫৬৪৯ (বাণিজ্যিক), ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪.
ই-মেইলঃ
ফোনঃ ০২৮৩১৫১১৫, ০২৮৩১৫৬৪৯ ফ্যাক্সঃ ৮৮-০২-৮৩১৪১৭৪
Copyright The Dainik Janata © 2010 Developed By : orangebd.com.