নিবন্ধিত হোন |
ইউজার সাইনইন
ই-মেইলঃ
পাসওয়ার্ডঃ
পাসওয়ার্ড ভুলে গেছেন?
ই-মেইলঃ 
বন্ধ করুন (X)
ঢাকা, রোববার ২২ নভেম্বর ২০২০, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ৬ রবিউস সানি ১৪৪২
কুর্দিস্তানি কবি শেরকো বিকাস'র যুদ্ধবিরোধী চারটি কবিতা
ভূমিকা ও অনুবাদ : মীম মিজান
শেরকো বিকাস একজন কুর্দিস্তানি নির্বাসিত কবি ও স্বাধীনতাকামী নেতা। তিনি ইরাকের কুর্দিস্তানে ১৯৪০ সালের ২ মে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা ফায়েক বিকাস ছিলেন কুর্দিস্তানি প্রখ্যাত কবি ও স্বাধীনতাকামী মানস। মাত্র ১৭ বছর বয়সে শেরকো'র কাব্য প্রকাশ হয়েছিল। তিনি কুর্দিস্তান মুক্তি আন্দোলনের রেডিও 'দ্য ভয়েস অব কুর্দিস্তান' এ কর্মরত ছিলেন। তাকে কুর্দিস্তান থেকে একাধিকবার নির্বাসিত হতে হয়েছিল ইরাকি সরকারের চাপে। বিশটির অধিক কাব্যগ্রন্থ লিখেছেন তিনি। 'দিওয়ানে শেরকো' নামে তার কাব্য সংকলন দু'খ-ে প্রকাশ হয়েছে। তিনি ১৯৮৭ সালে স্টকহোমের পেন ক্লাবের পক্ষ থেকে 'তুচোলস্কি স্কলারশিপ' এবং 'ফ্লোরেন্স সিটি স্বাধীনতা পদকে' ভূষিত হন। তার কবিতা আরবি, সুইডিশ, ড্যানিশ, ডাচ, ইতালিয়ান, ফরাসি, ইংরেজিসহ বিশ্বের অনেক ভাষায় অনূদিত হয়েছে। তিনি সারাবিশ্বের কাছে মুক্তিকামী জনতার প্রতীক, নিপীড়িত মানুষের কণ্ঠস্বর, জালিমের শোষণের বিরুদ্ধে বজ্রকণ্ঠ হিসেবে পরিচিত। শেরকো সুইডেনে রাজনৈতিক আশ্রয়ে থাকাকালীন ৪ আগস্ট ২০১৩ সালে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। শেরকো'র নিম্নোক্ত কবিতা চারটি কুর্দিশ থেকে ইংরেজিতে ভাষান্তর করেছেন হুসাইন সিনজারি।

বিচ্ছেদ

যদি আমার কাব্য থেকে

প্রসূনকে মুচড়িয়ে বের করো।

আমার কাব্যের চারটি ঋতু হতে

আমার একটি ঋতু মারা যাবে।

তুমি যদি ভালোবাসাকে বাদ দাও

আমার দুটো ঋতু প্রাণ হারাবে।

যদি তুমি রুটি বাদ দাও

আমার তিনটি ঋতু মৃত্যুবরণ করবে।

আর যদি স্বাধীনতা বের করে নাও

চারটি ঋতু এবং আমি মরে যাবো।

(বিচ্ছেদ কবিতাটি SEPARATION নামক কবিতার বাঙলায়ন)

মালগাড়ি

আমি জ্ঞাত আছি, আমরা...তুমি ও আমি

কখনোই মিলতে পারবো না

যদিও আমরা সম্মত

আমরা রেললাইনের মতো

কখনোই সাক্ষাৎ হবে না

আর যদিও আমরা পরস্পরের দিকে হামাগুঁড়ি দেই

হৃদয়ের মালগাড়ি উলটে যাবে।

তখন তুমি বুঝবে

কত্ত প্রেমপত্র, সুগন্ধির শিশি

আর নির্দিষ্ট মিলনগৃহ

কত্ত চুমুর বৃষ্টি

প্রাণ হারাবে

আমাদের উভয়ের জন্যই

উলটো মোড় নেয়ায়

এরকম একটি দুর্ধর্ষ মালগাড়ির।

(মালগাড়ি কবিতাটি THE WAGON নামক কবিতার বাঙলায়ন)

শেকড়গুলো

গগনে হত্যা হওয়া বিহঙ্গগুলো

যদিও তারকারাজি, মেঘমালা, সমীরণ

আর ভাস্কর দেয় না সাক্ষী

ঘাতকদের বিপক্ষে

আর দিগন্তরেখা

চায় না শুনতে

পর্বতমালা আর জলধি

তাদের ভুলেছে

যদিও কিছু শাখী

আবশ্যিক সাক্ষী সেই দুষ্কর্মের

আর লিখে যাবে হন্তারকের নামগুলো

তাদের শেকড়ে।

(শেকড়গুলো কবিতাটি THE ROOTS নামক কবিতার বাঙলায়ন)

একটি জঙ্গলে

আঁধার এসেছিল

আর এটার মিথ্যাচারে, একটি সিংহের চিন্তা

কীভাবে আগামীকাল আক্রমণ করবে

প্রতিবেশী বাঘেদের।

বাঘটি চিন্তা করছিল :

আগামীকাল কিভাবে শেয়ালের অস্থিতে আক্রমণ করবে।

শেয়ালটি ভাবছিল :

আগামীকাল কিভাবে, কী ছলে

বাগানের সিংহদ্বারে শিকার করবে

ঘুঘু ছানাগুলোকে।

ঘুঘু ফন্দি আঁটছিল :

আগামীকাল কিভাবে একত্রিত করা যাবে

শিকারিদের, পাখিদের

আর বনের প্রাণীদের।

কীভাবে সে পারবে, সে বিস্মিত হয়ে যায়।

(একটি জঙ্গলে কবিতাটি IN A FOREST নামক কবিতার বাঙলায়ন)।

Fatal error: Uncaught exception 'PDOException' with message 'SQLSTATE[HY000]: General error: 13 database or disk is full' in /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php:7 Stack trace: #0 /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php(7): PDO->query('Update newsHitC...') #1 /home/janata/public_html/lib/index.php(135): require('/home/janata/pu...') #2 /home/janata/public_html/web/details.php(10): lib->newsHitCount() #3 /home/janata/public_html/web/index.php(28): include('/home/janata/pu...') #4 /home/janata/public_html/index.php(15): include('/home/janata/pu...') #5 {main} thrown in /home/janata/public_html/lib/newsHitCount.php on line 7